বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।
/ সাহিত্য
আমাকে তোমরা হিন্দু বললে ভাইকে মুসলমান প্রতিবেশী যারা আত্মীয় ছিলো তারা ইহুদি- খ্রিস্টান, তা হলে মানুষ কই? ধর্মই যদি পরিচয় হবে আমরাতো আসলে কেউ মানুষ নই। একই সূর্যের আলোকে আলোকিত এ বিশাল আকাশতলে, একই বাতাসে বেঁচে আছি সবে তৃষ্ণা মিটাই একই শীতল জলে, তা হলে- বিভেদ রচিলো কারা? মানুষ থেকে মনুষত্ব কেড়ে সভ্যতার শিকড়ে কঠিন কুঠারের আঘ...
ছলাৎ ছলাৎ শব্দে যমুনা দু'কুলের জলে ভাঙ্গে ঢেউ, কী নিবিড় বিষাদ ছুঁয়ে যায় অতলের কালো জল সেখবর রাখেনিতো কেউ। জোছনার আলো ধরে নিশি ভরে যে অপার্থিব রূপ, যে জন মজেছে সে জানে কী তীব্র প্রণয় সুখে কী সুধার টানে সে দিয়েছিল ডুব। চেতনার বাড়ি ঘরে অহর্নিশ জ্বলে কোন তুষের আগুন? হৃদয়ের গহীনে অসুখ লাল ক্ষত বুকে নিয়ে বাইরেতে সাজানো ফাগুন। ক...
ইচ্ছে হলে আমিও ভাই অনেক কিছুই করতে পারি, মনের ডানায় ভর করেও মেঘ পরিকে ধরতে পারি। মেঘের ভেলায় চড়ে চড়ে নীল আকাশটা ঘুরতে পারি খারাপটাকে রোখতে দিয়ে সাত নদী পার করতে পারি। শিশিরভেজা ঘাস মাড়িয়ে ফুল কুড়িয়ে আনতে পারি বইয়ের পাতায় চোখ বুলিয়ে ছড়ার মানে জানতে পারি। মায়ের আদর -সোহাগ পেলে ফুলের মতো হাসতে পারি চরণধূলি মাতায় নিয়ে সুখজ...
আজো বেশ মনে পরে রসইঘরের দুই ধারে ছিলো দুটি লাললাল  ডালিমের গাছ, টুনটুনি এসে ডালে কতো কিছু যেতো বলে লেজ তুলে ভোর হলে আহা কিযে নাচ। তাল ধরে টুনটুনি কিযে পড়তো কিজানি চেয়ে চেয়ে ডাকতাম কোথা পেলি বই? মাঝে মাঝে ঠোঁটে ঠোঁটে রাগ করে কিছু কুটে ডানা মেলে উড়ে যেতো কোথা জানি কই? পড়াশুনা শেষ করে উঠুনের পাশ ধরে উড়ে গিয়ে বসে ভাবে মজ...
১.ল্যাংড়া বলে মাফ করেছে লাত্থি সে আর দেবে না ভিক্ষুকেরও মান বেড়েছে টাকা সে আর নেবে না। ২.চোখ বুজে যে ডিম লুকাচ্ছে সে খুব চালাক কাক কথা এবং কাজের মাঝে আকাশ পাতাল ফাঁক।
স্টাফ রিপোর্টারঃ ‘আকবর ফিফটি নট আউট’ প্রকাশের আগেই অনেক হৈচৈ হলো। এবার সেটি এলো প্রকাশ্যে। যার জীবন থেকে লেখা বইটি, তিনি প্রকাশনা উৎসবে এসে ফের দ্ব্যর্থহীন। ‘আকবর ফিফটি নট আউট‘ বইটি প্রকাশ করেছে সাহস পাবলিকেশনস। চব্বিশ ফর্মার বইটির প্রচ্ছদ করেছেন মোস্তাফিজ কারিগর। বইয়ের দাম রাখা হয়েছে ৬শত ২৫ টাকা। অনুষ্ঠানে প্রকাশক নাজমুল হুদা রতন জানান,...
বিশ্বস্ত সাহসী দুটি হাত চাই যাকে ধরে ঝঞ্জার রাতেও পথ চলা যাবে গুটঘুটে অন্ধকারেও অনেকদূর এগিয়ে যাওয়া যাবে বিশ্বাস করা যাবে নির্দ্বিধায়, কোনো সংঙ্কা আশংকা হবেনা এমন পবিত্র হাত আমি খুঁজে চলেছি বহুদিন । আমি এমন একজন সহচরী খুঁজে চলেছি যে হাঙ্গরের মুখ থেকে আমাকে নিয়ে আসতে ঝাঁফিয়ে পরবে, নির্ভিক ও নির্লোভ এমন মন মানসী পেলে সমুদ্রজয়ে ব্রতী হ...
তৌহিদুল ইসলাম কনক লাল পতাকার দেশ থেকে, কবি নজরুলের দেশ থেকে বঙ্গবন্ধুর দেশ থেকে আজ লাল সবুজের পাসপোর্ট নিয়ে সবুজ ঘাস পেড়িয়ে যখন কাটাতার পার হয়ে ইমিগ্রেশন টেবিলের অফিসারের সিল পরলো আমার লাল সবুজের পাসপোর্ট আনন্দে হেসে উঠলো। আমি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোসের দেশে চলছি আমি মহাত্মা গান্ধীর এদেশে চলছি আমি ইন্দিরা গান্ধীর দেশে ...
স্টাফ রিপোর্টারঃ শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ‘বাঙালির আশীর্বাদ বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনা’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন, শিক্ষা মন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন আসাদুজ্জামান নূর এমপি। আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো...
হ্যাঁলো, কী অবস্থা? আরে বাহ্, মনে পড়ে তাহলে? কেন পড়বে না? তুমি তো আমার প্রথম ভালবাসা। ও, তাই? হুম, তাই। হা হা হা! হাসছো যে? হাসি পাচ্ছে। কেন? ভালবাসার কথা শুনে। মনে হয় প্রথম শুনলে? তা না! প্রথম শুনলে তো অবাক হতাম। তাহলে‌ কেন হাসলে? আরে বাদ দাও, ও কিছু না! না বলো ময়না! হা হা হা! আবারও? হুম। না হেসে বলো না প্লীজ! ওকে! শুনো...
স্টাফ রিপোর্টারঃ দৈনিক মুক্তির লড়াই পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক কামরুজ্জামান জনিকে ভারত বাংলাদেশ সাহিত্য সাংস্কৃতিক পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশের মানবাধিকার তাত্ত্বিক প্রফেসর মু. নজরুল ইসলাম তামিজী ও ভারতের প্রখ্যাত কন্ঠশিল্পী রানা মুখার্জিকে আহবায়ক এবং ছড়াকার তৌহিদুল ইসলাম কনককে সদস্য সচিব করে ভারত বাংলাদেশ সাহিত্য সাংস...
স্টাফ রিপোর্টারঃ বাংলাদেশের মানবাধিকার তাত্ত্বিক প্রফেসর মু. নজরুল ইসলাম তামিজী ও ভারতের প্রখ্যাত কন্ঠশিল্পী রানা মুখার্জিকে আহবায়ক এবং ছড়াকার তৌহিদুল ইসলাম কনককে সদস্য সচিব করে ভারত বাংলাদেশ সাহিত্য সাংস্কৃতিক পরিষদের ১০১ সদস্যবিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটির অন্যান্যরা হলেন, যুগ্ম আহ্বায়ক পদে, শিশু সাহিত্যিক তারাশঙ্কর চক্রবর্ত...
আমরা সকলে ভুলিবো আজিকে হিংসা বিদ্বেষ হানাহানি, অতীতের ভুল নয় একচুল রাখিবো মনে, মানুষের চেয়ে বড় কিছুই নাই সে কথাই আজ করিবো জানাজানি। আসুন সকলে একসাথে মিলে গাহি মানুষের জয় গান, মানুষের মন আলোকিত হউক আজিকে মনুষত্বের প্রার্থনায় মুখরিত করি বিশ্বাস করি মানুষই শ্রেষ্ঠ মানুষই মহিয়ান।
প্রিয়, শত জনমের প্রেম আজিকে তোমায় দিবোগো অঞ্জলি ভাবিয়াছি তাই, দুই চোখে তোমার মুখচ্ছবি ভাসে তুমি কি কেবলি ছবি তাতে কিগো তুমি নাই? তোমারে খুঁজিয়া ব্যাকুল ব্যাথিত আকুল মিনতি বুকে, পথের পরে পথ হাঁটিয়াছি দেখিয়াছি পৃথিবীর কতো রূপ, মেঘেরা কি তাই কাঁদিয়া বেড়ায় কোথাও কি তুমি নাই বৃথাই পোড়াই কিগো বাসনার ধূপ? এ জীবন ভাসিয়া চলে আকাঙ্খার...
আজি এ নতুন সূর্য্যদয়ে চলো নির্ভয়ে সকলে গাহি ভাতৃত্ব আর মৈত্রীর গান, যতো আছে গ্লানি ভ্রূকুটি হানাহানি ভুলে গিয়ে সবি, ধরনীরে করি মহিয়ান  | আজি ভোরের শিশিরে পূর্ন্য স্নান সেরে চলো সবে দৃপ্ত আলোয় হই ধন্য, মনের গভীরে আঁধার কুটিরে, প্রদীপ জ্বালিয়ে আলোকিত করে, হই অনন্য  | আজি রাতের আঁধার টুটি যে আলো প্রাতে উঠিবে ফুটি ধারণ করি তার...
স্টাফ রিপোর্টারঃ সোমবার বিকালে রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে ‘বঙ্গবন্ধুর দেশে’ নামক গ্রন্থের প্রকাশনা উৎসব ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গ্রন্থটির রচয়িতা দীপক চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি, বিশেষ অতিথি ছিলেন নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী,...
পথের বাঁকেই প্রথম দেখা কোন সে পথে কোন সে সময় মনে কিগো পরে? হয়তো তুমি এতদিনে ঘর বেঁধেছো অন্যখানে সরেও গেছো যোজন পথের দূরে। আমার কিন্ত সবই মনে আছে তোমায় দেখার সকল স্মৃতি এক পলকের ছন্দগীতি কিছুই আমি যায়নি কিন্তু ভুলে, গাঁয়ের পথে বটের ছায়া আহারে কি আদর মায়া এ পথ দিয়ে গেলে আবার দেখো পরান খুলে। আমার চোখের গহীন বাঁকে অবুঝ এ মন ...
এইসব দিনরাত্রির কথা,এইসব বিবর্ণ বিদ্রুপ সময়ের তান্ডবের কথা, চিরকাল রয়ে যাবে, অবনীর চায়ের দোকানে, হাটবাজারে, পাড়া ও মহল্লার ঘরে ঘরে, রাজপথ ও বস্তিতে আর- আরতিদের স্বজন হারানোর ব্যথার গল্পকথার দীর্ঘনিশ্বাসে। রাত গভীর হয়ে এলে জানালা ছুঁয়ে মৃদু বাতাস ছুটে যায়, ঝরা পাতার মর্মরে যে শব্দ কানে আসে কনকেরা কান পেতে শুনে থাকে হয়তো- মন মানসী ফি...
কোলকাতায় পা দিয়ে প্রথমেই মনে হলো, এখানকার নায়িকারাই শুধু ডায়েট করে। মেয়েরা করে না। টি-শার্টের নিচে থলথলে ভুঁড়িই এখানকার ফ্যাশন। এমনও হতে পারে কলকাতার মেয়েরা গোপাল ভাঁড়ের বিরাট ভক্ত। তার মতো ভুঁড়ি বানাতে প্রাণপণ চেষ্টা তাদের। হোটেলে উঠে ফ্রেশট্রেশ হয়ে নানা বলল ‘লম্বা ঘুম দে।’ আমি বললাম ‘বর্ডার পার হয়েছি কি ঘুমানোর জন্য?’ বইয়ের লিস্টটা হাতে নিয়...
স্টাফ রিপোর্টারঃ জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবরের বায়োগ্রাফি ‘আকবর ফিফটি নটআউট’ বইটির লেখক সোহেল অটল এর উপস্থিতিতে শুরু হয় বইকথা অনুষ্ঠান। ১ এপ্রিল, ২০২২ সন্ধ্যায় সাহস লাইব্রেরির আয়োজনে লাইব্রেরি কক্ষে অনুষ্ঠিত হলো বইকথা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে উক্ত বই প্রসঙ্গে লেখক সোহেল অটল বলেন, আসিফ আকবরের জীবন নানান শাখা-প্রশাখায় বিস্তৃত। এ কারণেই তার জীবনের ...
রাস্তায় ঈশ্বর ঘুরে বেড়ায় আমরা অনেকে দেখতে পাইনা, রাস্তায় ঈশ্বর ঠেলা চালায় জংশনে কুলি হয়ে বোঝা টানে কিংবা- হোটেলের সামনে হাসিমুখে ফুল বিক্রি করে আমরা চোখে দেখিনা। যারা অন্তরাত্মার নৈসর্গিকতাকে দেখতে পায়না তারা আসলেই অন্ধ, যারা রাস্তার পাশে রাত কাটায় ডাস্টবিনে হন্যে হয়ে খাবার খুঁজে বস্তিতে হেলান দিয়ে চাঁদ দেখে আসলে তারাই আমার ঈশ্বর।
সব চোরেরা সাধু আজকে তুমি আমি পাপি, রাজনীতির বংশী বাদক সাথে সাপের ঝাফি। বললে কিছু সাপ ছেড়ে দেয় ফণা তুলে দাঁড়ায়, সাথে কিছু পোষা কুকুর ঘেউ ঘেউ করে তাড়ায়। কারো মাথায় টিকি আছে কারো কপালে টিপ, মধুর বচন নিত্য ঢালে যায়না বুঝা ঠিক। ধর্ম দিয়ে অপকর্ম বর্ম দিয়ে বাঁচে, লেবাস লাগায় অবতারের সুযোগ পেলেই নাচে। তিনারা সব জ্ঞানীগুণী ...
তোমরা যে স্বাধীনতা বলে চিৎকার করো আসলে কি তা হয়েছে? আমারতো একদম বিশ্বাস হয়না, আমি জানি এ কথা বলার জন্যই তোমরা আমাকে দেশদ্রোহী বলবে, আমি এও জানি সুযোগ পেলে আমার কণ্ঠ রোধ করতে অনেকে দ্বিধাও করবেনা। আসলে এই একটা শব্দ আজ পুঁজিহীন ব্যবসার একমাত্র উপায় হয়ে উঠেছে, আমি দেখতে পাই যারা রক্তপাত ঘটিয়েছে তারাই আজ বড় মহাজন পুরুটা দেশ তাদের অঙ্গ...
অন্তরে অনন্ত দহন চিতা সম জ্বলে, মরমে মরমিয়া ডুবে দুটি আঁখি তলে। উথলিয়া ছুটে চলে কুটে মাথা ঢেউ, সমুদ্রের বিরহ ব্যথা জানেনাতো কেউ। উত্তাল তরঙ্গ যেনো কালের ভৈরবী, ধ্বংশের ধজা হাতে পিষে যায় সবি। মনের গহীনে কাঁদে সোনার হরিণ, যারে চায় নাহি পায় ইচ্ছে রঙিন। স্বপ্নেরা ফুটে রাতে প্রাতে দেয় হাসি, সায়ান্নে ঝরে পরে বিরহী উদাস...
রেবেকা আজ আমার ২২ এ পদার্পণ, তবুও কারো কাছে শপিনি এই পাগল মন। মাঝে মাঝে অনেক একা মনে হয়, কিন্তু স্রষ্টার কথা মনে পড়লে সব ভুলে যায়। জানি তো কষ্টের পরেই আছে শান্তি, তাই স্রষ্টার আদেশে যৌবন সংরক্ষণ করছি। তার জন্যই এত আয়োজন, যাকে রেখেছে আমার ভাগ্যে স্রষ্টার দেওয়া প্রিয়জন। রেবেকা আজ আমার ২২ এ পদার্পণ। কলেজ ক্যাম্পাসে অনেক রমণী...
স্টাফ রিপোর্টারঃ মঙ্গলবার কুমিল্লা সরকারি জেলা গণগ্রন্থাগার এর সহকারী লাইব্রেরিয়ান মোঃ নাফিস সাদিক শিশির সাহস লাইব্রেরি পরিদর্শন এ আসেন। পরিদর্শনকালে তিনি লাইব্রেরির বিভিন্ন খুঁটিনাটি বিষয় জানতে চান। তিনি সাহস লাইব্রেরি র বিভিন্ন কার্যক্রম দেখে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, সাহস লাইব্রেরি এই উপজেলার একটি মডেল লাইব্রেরি হওয়ার অংশীদার। তিনি লাইবেরি...
তোমার হৃদয়ে ফাগুন এসেছে আমার চৈত্রের খরা, তৃষ্ণার্ত আমি পথ হেটে চলেছি অবাক চেয়ে আছে কৃষ্ণচূড়া। রৌদ্র দহণে মাঠ ফেটে গেছে মেঘেরা আকাশে ভাসে, এতটুকু বৃষ্টি ভুল করে যদি লুটায়ে নামতো এসে। লুকানো ইচ্ছেরা মাটি ভেদ করে তবেই দিতো উঁকি, সবুজ পাতারা সাত রং মিশায়ে নিজেদের দিতো আঁকি। স্বপ্নে বিভোর আকাঙ্খার মুকুল ডালায় বাধিতো বুক, দার...
কাপুরুষ মরে পরাজয়ের ভয়ে বীরেরা মৃত্যুঞ্জয়, হুঙ্কার দিলেই হয়না সিংহ কিংবা, বাঘের পরিচয়। বিশাল দেহের হাতি হেটে যায় কুকুরেরা ভাবে অপমান, পেছনে পেছনে ঘেউ ঘেউ করে বাঁচাতে চায় মান সন্মান। ছাগল শুধুই চেঁচামেচি করে দিনরাত তার নাই, গোয়াল ঘরের গরু দেখে ভাবে সে তার আপন ভাই। ঘোড়া ছুটে যায় দৌড়ে দৌড়ে ভেড়ায় ভাবে আমি কিসে কম, একটু দৌড়...
ক্লান্তিহীন শ্রান্তিহীন সময় হাঁটিতেছে অজানার অসীমে, কোথাও না থামে এতটুকু, ঠিক যেনো স্রোতের বুকে, শুয়ে আছে নিবিড় সুখে, দুঃখ কষ্ট সাথে নিয়ে চলিতেছে মহাকালের পথে, নিজে জানে কিনা জানে, চাহেনা পিছন পানে, অতীত তাকিয়ে থাকে অবাক চোখে, উপরে আকাশ চাঁদে, বিরহ বিষাদে কাঁদে, ডেকে বলে খানিকটা থামো, চঞ্চল সময় বলে, মায়াবী পৃথিবী তলে, আজন্ম চলেছি বৃথাই ...
যৌবন, তোমারে প্রণমি তব অসীম শক্তির কাছে আমি অবণত, সমরে বাহুতে দাও সাহস সতত,শত্রুর সম্মুখে শোনাও বিজয়ের বাণী, তাই রেখেছি ধরি , তোমারে ভরসা করি, ভাসায়ে দিয়েছি তরী উত্তাল সাগরে, তরঙ্গ আছাড়ে হাল, ছিড়ে পাল, নির্ভয়ে চলেছি ভরসা তোমারি, তুমি অনেকেরে দিয়েছো রাজমুকুট খানি, পরম সম্মানে, কেউ জানে কিনা জানি, আমি জানি ও মানি তোমার অসীম শক্তিরে। য...
মোঃ শাহাদত হোসেন, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ আট আনায় জীবনের আলো' এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া দ্বাদশ গ্রন্থমেলায় লেখক চক্রের সদস্য প্রফেসর রাশিদুল হাসান এর দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। গত শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত সপ্তাহব্যাপী গ্রন্থমেলার ৫ম দিনে সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ প্রধান অ...
আমারে কি জানি দেবে তুমি এই ভেবে, নিরবে গেছে বহুদিন সোধিতে পূর্বজনমের ঋণ কিগো, সকাল বিকালে সাজিয়েছো উপহার? তাই করি মনে, সন্ধিক্ষনে খানিক আলোহিন সময় রচিয়াছে নিরাশার অন্ধকার তবুও খুঁজে বারবার এতটুকু বৃষ্টির তৃপ্তির শীতল ছটা, দু'এক ফোটা বর্ষে যদিগো ভুলে, চোখ তুলে তাই আজ দেখিবারে খুলিলাম কপাটের খিল, অনাবিল অতীতের স্মৃতির টানে। জানি বন্ধ ...
অতনু চৌধুরী (রাজু), বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ মহান ২১শে ফেব্রুয়ারী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে মোংলায় শুরু হয়েছে একুশে বই মেলা। বই মেলার দ্বিতীয় দিয়ে মোড়ক উন্মোচিত হয়েছে আজিজ মোড়ল এর জনপ্রিয় মজার হাসির গল্পের বই "ঝোপের মধ্যে ঘন ঘন দাঁড়ি নাচায় কে?" বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন মোংলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার কমলেশ মজুমদার ও মংলা পৌ...
(কবিতাটি সম্পাদনা করেছেন কবি অরণ্য খান) বসন্ত এসেছে! সেটি ক'জনই বা জানে? বস্তির করকুল বিবিরা,পাড়ার বিধবা গৌরীরা রাস্তার পাশের চামার মুচি, কামার কুমার রিক্সাওয়ালা - তারা কি জানে? কোকিল ডাকে তাতে কার কি আসে যায় কঠিন গদ্যের মতো যাদের জীবন তাদের কাছে বসন্ত বিবর্ণ নয় কি? নিরন্ন মানুষের কাছে একটুকরো রুটিই যখন জরুরী হীমশীতে ছেড়া আচ্ছাদন...
তুমি না এলে বসন্ত এসে কাজ কি? কৃষ্ণচূড়ায় ফুল ফুটুক আর নাইবা ফুটুক হলুদ শাড়ির আঁচল উড়িয়ে তুমি না এলে আমি বসন্তবরণ করবোনা। শিমুলের ডালে কোকিল যতোই ডাকুকনা কেনো ঘোমটার আড়ালে তুমি মুচকি না হাসলে আমি বসন্ত এসেছে মনে করিনা, আমি জানি ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক তুমি এলেই বসন্তবরণ হবে।
একুশে ফেব্রুয়ারি বাঙালি জাতির জাগরণ বাংলাকে রাষ্ট্রভাষার দাবীতে স্পর্ধিত উচ্চারণ, ধর্মান্ধতা ও সাম্প্রদায়িকতার অপসারণ অন্যায়ের বিরুদ্ধে ছাত্র-জনতার বিস্ফোরণ। বিশ্বে সবচেয়ে বড় ঐতিহাসিক ঘটনা বাঙালির স্বাধীনতা সংগ্রামের সূচনা, শহীদের রক্ত ¯্রােত নয় কোন রটনা সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের প্রেরণা। স্বাধীনতার ডাক, জাতির মুক্তি মোদের অহংকার,...
স্টাফ রিপোর্টারঃ অমর একুশে বইমেলায় (২০২২) প্রকাশিত হচ্ছে কুমিল্লা জেলা বরুড়া উপজেলাধীন আড্ডা গ্রামের কৃতিসন্তান, আড্ডা প্রজন্ম উন্নয়ন সংঘের প্রতিষ্ঠতা সভাপতি, তরুণ সমাজ সেবক, কবি মুহাম্মদ সবুজ হোসেনের রচিত ৭ম কাব্যগ্রন্থ ‘বেদনার ঝুলি’। বইটি প্রকাশ করেছে তৃণলকা প্রকাশ। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। ‘বেদনার ঝুলি’ গ্রন্থটি সম্পর্কে স...
চেয়ে দেখ ঐ আকাশে, পানকৌড়ি উড়ে না। তোমার কবি দূরে আছে, পরাণটা কি পুড়ে না? কলমটা আজ পরে আছে, ডাইরিটা ও খুলে না। চাঁদনী রাতের মধুর স্মৃতি, তোমার কবি ভুলে না। বড়ুই গাছটা নুয়ে আছে, বড়ুই কিন্তু পরে না। কবির কথা ভেবে তোমার, অশ্রু কিগো ঝরে না? আমের গাছে মুকুল এলো, দখিন বাতাস আসে না। কে বলেছে তোমার কবি, তোমায় ভালো বা...
জীবন পুড়ে ছাই হয়েছে সব জমেছে স্তুপে, কালো ধোঁয়ায় কষ্ট উড়ে বিষাদ বিধুর ধূপে। তবুও আমি মুক্তা খুঁজি উড়িয়ে দেখি ছাই, অনেক আশায় বুক বেঁধেছি যদিবা কিছু পাই।
কষ্টগুলি জমিয়ে রাখি তোমার হাতে দেবো বলে, অপেক্ষাতে থেকে থেকে সূর্য গেছে অস্তাচলে। হয়নি দেয়া হয়নি বলা পূর্ণিমা রাত আসলো নেমে, মেঘের কাছে ডাক পাঠালো চাঁদের বুড়ি রঙিন খামে। জোনাকিরা জ্বালিয়ে আলো সন্ধ্যারতী মুখর করে, ঝিঁ ঝিঁ পোকা মাতিয়ে দিলো নিত্যদিনের চেনা সুরে। কষ্টগুলি রইলো পরে জীবন চলার পথের বাঁকে, দেয়া নেয়া রইলো বাকি যো...
ওই ছবিটা কইযে গেছে কখন গেছে হারিয়ে, এথা হেথা খুঁজে ক্লান্ত এ গ্রাম ও গ্রাম ছাড়িয়ে। নদীর বুকটা শুকিয়ে গেছে খাঁ খাঁ করে রোদ্দুরে, চৌচির হয়ে সবুজ মাঠটা দেখলে চোখে জল ঝরে। ডিঙ্গিগুলি কইযে গেছে মাঝিমাল্লা গায়না গান, পল্লীগীতি ভাটিয়ালির আহারে কি মধুর টান। বিকেল বেলা ষোড়শীরা আসেনা আর জল নিতে, রাখাল বালক সুর ধরেনা কাঁচা বাঁশের বাঁ...
তোমাদের পাড়ায় নিয়ম করে ফজরের আজান হয়? তুমি কি দেখতে পাও প্রভাতের রবি? শিশির কণা স্পর্শ করে যায় কি তোমার ওড়নায়, ঘুম থেকে তুমি ঠিক কয়টায় ওঠো বলতো? তুমি কোথায় থাকো আমার খুব জানতে ইচ্ছে করে, ইচ্ছে করে তোমাদের নগরীতে আমি জন্ম নেয়! তুমি থাকো ব্যস্ত কোন শহরে নাকী নীরব কোন গাঁয়ে? তুমি লাল চা'য়ে জীবন শুরু করো নাকি বইয়ের কোন পাতায়? তোমাদের পাড়ার...
(আগরতলা ১৮/০১/২০২২) পৃথিবীতে নরক এসেছে নেমে অবক্ষয় ছুটেছে উল্কাবেগে, নেই থেমে, মনুষ্যত্ব লুটিয়ে ধুলায় গড়াগড়ি চলছে মাতম, আহাজারি পশুত্বের প্রকাশ ও বিকাশ দৃঢ় ক্রমে। বিপন্ন সবই বিপন্ন কোনোকিছু ঠিক নেই আগেরমতো জঞ্জাল অবিরত, অবসাদ অবসন্ন সবখানে জমেছে ক্লেদাক্ত পূতি চারদিকে আসন্ন অপূরণীয় ক্ষতি। (কবিতাটি সম্পাদনা করেছেন কবি নিলয় চৌ...
উদাস পথিক ভাবে অনেক পথতো হেটে এলাম শেষ হবে তার কবে? পথ তখনই ডেকে বলে নাইকো পথের শেষ, পথের মাঝে পথ হারিয়ে যাবি অচিন দেশ। চলতে পথে খানিক দেখা খানিক আলাপন, মনের সাথে মন মিলিয়ে তবেই বিসর্জন, এইতো পথের খেলা শিশুর মতোই সারাজীবন মিছে মিছে অবুঝ যেমন কাটিয়ে দেয় বেলা। হঠাৎ যখন ডাক এসে যায় ফিরতে হবে ঘরে, কালো আঁধার হাত বাড়িয়ে বুকে...
পাখি জাগার অনেক আগেই বলোতো ঘরে কে জাগে? সবার বাড়ি খবর পৌঁছে মানুষ জাগায় কে আগে? জীর্ণ দেহে সাইকেল নিয়ে খবর বিলায় কোন সে লোক? বারোমাসই একই কাটে থাকনা যতোই কষ্ট দুখ। শীত গ্রীষ্ম ঝড় ঝঞ্জা যায় আসেনা কিচ্ছুতে, সবার বাড়ি পেপার দেবেই মোশল ধারার বৃষ্টিতে। কোথায় কি সব কাল ঘটেছে কিচ্ছুই তার নাই জানা, সকল খবর সাথেই আছে পড়তে শুধু তার...
এমন কিছু সত্য কথা গাঁয়ের লোকে বলে, খেতে কোনো হয়না কিছুই বেড়ায় ফসল খেলে। যাদের ঘরের পোষা বিড়াল বন্ধু বানায় ইঁদুর, ধানের গোলায় ধান থাকেনা নিত্য খেলা জাদুর। গাভী বাছুর ভাব জমালে শুন্য দুধের বাটি, যতোই বলো সবাই জানে এই কথাটি খাঁটি। জলের সাথে তেল মিশেনা তেলের সাথে জল, ভেড়ার ছানা দেখতে সুন্দর যেমন মাকাল ফল। বামন যদি ধরতে চায় ...
ওই যে সমুদ্র বুক ভরা তার কষ্টের ফেনিল, উপরে আকাশ নীল বিশাল বিস্তৃত কিযে যন্ত্রণার ক্ষত অবিরত বিরামহীন ছুটিতেছে অশান্ত নাগিনী কতকাল ধরে খুঁজে প্রেয়সীরে পাবে কি পাবেনা তারে অপলক চেয়ে আছে মাটির ধরণী। ঠাঁই নাই ঠাঁই নাইযে অতলান্ত সীমাহীন গহীন জলে কাহারে পেতে যুগ যুগ গেছে তার দুর্নিবার ঢেউয়ের অতলে, না পাওয়ার আর্তিতে বেদনার সঞ্চয় আয়...
সুরিন্দর সুরাইয়া, কলকাতাঃ বাংলা সাহিত্যে সব শাখায় অসামান্য অবদানের জন্য গতকাল সৃজনী ভারত এ বছর সাহিত্য প্রভাকর পুরস্কারে সম্মানিত করল কথাসাহিত্যিক সিদ্ধার্থ সিংহকে। আনন্দ পাবলিশার্স থেকে প্রকাশিত তাঁর 'পঞ্চাশটি গল্প' বইটির জন্য। এই পুরস্কার বহু দিন আগে ঘোষণা করা হলেও অতিমারির কারণে স্থগিত রাখা হয়েছিল। এ দিন 'আগুনের পরশমণি ছোঁয়াও প্রাণে' গ...
দুর্নীতির সংক্রামক রোগে সাধারণ জনতা ভোগে, যারা দুর্নীতি করে তারা থাকে সুখে! দেশ ধ্বংসের পথে। সত্য অবনত বেশে মিথ্যা চলে এগিয়ে, দুর্নীতির ছলে বলে দূর্ভোগ যাচ্ছে বেড়ে। শহর কিংবা গ্রামে দুর্নীতি ব্যাধির জ্বরে মানুষ মরছে ধীরে আমরা বাঁচব কি করে, দুর্নীতি দূর না হলে? দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে প্রত্যেকে জনে জনে এসো এক পতাকাতলে।
আমার গ্রামের পাশটি কেটে যে নদিটি গেছে, শীতের ছোঁয়ায় জুবুথুবু বর্ষা এলেই নাচে। তারি বুকে সাঁতার দিয়ে মামার বাড়ি যাই , কে আমারে বারণ করে এমন কেহই নাই। ডিঙ্গি নিয়ে যখন তখন গ্রাম পেরিয়ে হাটে, কত্তো যে সুখ নদীর জলে গল্প গানে কাটে। এপার ওপার নয়কো ব্যাপার ডানপিঠে এই আমি, করলে তারা দৌড়ে গিয়ে তারি বুকে নামি। আত্মরক্ষার একটাই উপা...
আর কোনো লাশের মিছিল নয় বন্ধুরা এবার শক্ত প্রতিরোধ প্রতিশোধ চাই, কাপুরুষের মতো করুনা নয়কো আর বজ্রমুষ্টি হাতে আকাশ বাতাস মুখরিত করো ছড়িয়ে যাক সে আওয়াজটাই। মানচিত্রে আজ শুকুনের থাবা দুপায়ের হায়েনার নখের বিষ জ্বালা যন্ত্রনায় বন্ধুরা কান্না নহে আর, আমি জানি তোমার দৃপ্ত চরণের আঘাত তার চেয়ে ও অনেক বেশী দুর্বার। তোমাদের বুকে আগ্নেয়গিরি...
আজ আর হতাশা নয় বন্ধু দৃপ্ত চরণ ফেলে রাজপথে যাও, আমরা যে জেগেছি লেগেছি কাজে সে খবরটি জানাও। অনেক হয়েছে দেরী কালোরাত শেষ হবে সহসাই, পূর্ব দিগন্তে নতুন সূর্য্য উঁকি দিয়ে হাসে ঐ শোষিতের দাও খরটাই। কাল রাতে তাজা রক্তের অক্ষরে ভেজা পেয়েছি চিঠি, নির্যাতিতেরা জাগো অত্যাচারীদের কষে ধরতে হবে চিবুক ও টুটি। কিষান কিষানী কাস্তে হাতে ...
হেমন্তে শিশির ভেজা সকাল সূর্যের আলো ঝিলমিল করে, শেষ রাতে কুয়াশা পড়ে শীতের আমেজ ভোরের বাতাসে। শরতের শেষে হেমন্ত আসে কাঁচা-পাকা ধান আনন্দে হাসে, অবনত বঙ্গ বধুর বেশে নবান্ন তোলে হেসে হেসে। বিকেলে পাখিরা সব কলরব করে সন্ধ্যায় তারা ঘরে ফেরে, ঝিঁঝিঁ পোকা গান করে পল্লী বাংলা বুক চিরে, হেমন্তে আনন্দ নদীর তীরে অপরূপ সৌন্দর্য বহন করে।
ভাঙ্গন ভেতর থেকে হলে প্রাণের স্ফুরণ সংশোধিত অনুভবের উৎসাহিত অগ্ৰগমন নতুন পদক্ষেপ সঞ্জীবিত সম্ভাবনার অভিমুখ ভাঙ্গন বাইরে থেকে হলে আবাহন ধ্বংসের রাজপ্রাসাদের ভাঙ্গনের শব্দে ভালোবাসার কান্নার প্লাবন ডুবে যাওয়া অন্তরের ভুবনডাঙ্গা অলকানন্দা জলে শীতলতা আনে মৃত্যুর বিবর্ণ শ্যাওলা অন্তিম উষ্ণতার আবেশেই জাগে প্রাণের আহির ভৈরব বুদবুদের মতো ভে...
(আগরতলা ০৯/১১/২০২১) হাতটি তুমি বাড়িয়ে দিলে ধরবে বলো কারে, হাতের উপর হাত রাখা কি বলো সবাই পারে ? হাতে হাতে হাততালি হয় রাখলে হাতে হাত, মনের সাথেই মনের কথন হয় যে বাজিমাত | যে হাত দিয়ে টানছো কাছে সে হাত দূরে ঠেলে, বিসর্জনের ভাসান গীতি ভাসায় গহীন জলে | হাত দিয়েই তো চাঁদকে ডাকো চাঁদ কি কাছে আসে ? উজান ভাটির খরস্রোতে দুকূল ভ...
কিচ্ছুতে আজ নেইকো রুচি মন্ডা মিঠাই ছানা লুচি লাগছে টাকার ক্ষুধা, ফিন্নি বলো শিন্নি বলো গিন্নি যতোই খেতে বলুক টাকাই জীবন সুধা | ছাগল থেকে অধম হয়ে খুঁজছি খাবার হন্যে হয়ে কোথায় খাবার পাই ? টাকারা সব বন্দিদশায় অট্টালিকায় প্রহর কাটায় তাকিয়ে দেখি নাই সে কোথাও নাই | পেটের খুদা রইলো পেটে টাকা ছাড়াই দিনযে কাটে টাকা তোমায় সেলাম, সত্য ...
রাতনীতি তোমার নগ্ন চেহারা আর কতো কাল দেখবে জনগন ? হেমিলনের বংশীবাদক তুমি গণতন্ত্রের সুর বাজিয়ে মানুষেরে দাও বিসর্জন| ভাত রুটি কথা বলে বলে শুধুই অভুক্ত রেখেছো মানুষেরে আজ, সম্পদ লুটে পাহাড় গড়েছো স্বৈরাচারীর মাথায় ঐ সুভিছে রক্তমাখা তাজ| রাজপথে মানুষ হাহাকার করে একটুও ভ্রূক্ষেপ নাই তাতে, রাজনীতি তুমি দংশন করো নিরীহদের নিয়ত বিষ...
ঘৃণা'র পৃষ্টা-গুলো বাতাসে উড়ে গিয়ে, জমা হয়- অ-হেতুকে'র বন্দর! বন্দরে'র অধিভুক্ত দরজা-গুলো সোনা-ঘুমে মত্ত। জাগন আর-জাগরণে'র নদী-তে মিমাংসা'র ঢেউ-গুলো হাওয়া'র দোলনায়- রপ্ত হতে হতে, এখন- স্বার্থপরতা'র একেক-টা সুতন্বি এমজে'র মুরিদ! নারী-দূতে'র বাহক হতে, তাদের মজায়- ব্যাপক। অ-বন্ধক রচনা'র পৃথিবী-তে ও-রা ক্রমশঃ দৌরাত্ম্...
কার কাছে বলি এ দুঃখ কথা কারেবা দেখাই হৃদয়ের ক্ষত, কালের কণ্ঠে শুনিনা কিছুই কষ্টই শুধু বাড়ছে অবিরত। যেখানে যারে জড়ায়ে ধরেছি আপন ভেবেই করেছি ভুল, হৃদয়ের তানপুরা ধূলায় লুটায় ছন্দহীন জীবনের বেসুরা বোল। পায়ের তলার মাটি কেড়ে নিলো খড়স্রোতের পাষণ্ড ঢেউ, কষ্টেরা শুধুই বালিচর গড়ে রুখে তারে নেই কেউ। বাপের ভিটা বেহাত হয়েছে সব ...
বরুড়া প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার বরুড়ায় সাহস ইন্টেলেক্ট ডেভেলপমেন্ট স্কুলের আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ সকাল ১১ টায় সাহস লাইব্রেরি মলনায়তনে এর কার্যক্রম শুরু হয়। প্রথমে কোরআন তেলাওয়াত করে স্কুলের ছাত্র নাঈম ইসলাম। এরপর সমবেত জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্কুলের সহকা...
বহু প্রতীক্ষা শেষে অতঃপর তুমি এসে দাড়ালে আমার সামনে এসে। কী ভাবছো? ভূলে গেছি তোমায়? ভূলি নাই ভূলি নাই হৃদয়ে যারে গেথেঁ রেখেছি তারে কী ভূলা যায়? রেগে আছো? তোমায় খুঁজিনি তাই,,, খুঁজে যাই আমি আজো খুঁজে যাই তোমারই পদচিহ্ন সেই চিরচেনা জায়গায়, হৃদয় দিয়ে শোনো হৃদয়ের কাছে আসি সে যে শুধু বলছে তোমায় ভালোবাসি, বড়ো ভালোবাসি শুধু তোমারেই ...
স্টাফ রিপোর্টারঃ কবি সংসদ বাংলাদেশের প্রধান উপদেষ্টা দেশবরেণ্য ছড়াকার ও শিশু সাহিত্যিক রফিকুল হক দাদু ভাইয়ের মৃত্যুতে ১৯ অক্টোবর মঙ্গলবার বিকেলে বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ সেমিনার হলে স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। কবি সংসদ বাংলাদেশের স্থায়ী পরিষদের চেয়ারম্যান লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল এর সভাপতিত্বে দাদু ভাইকে নিয়ে স্মৃতিচারণমূলক বক্তব রাখে...
ধর্মের নামে অধর্ম করো শাসনের নামে শোষণ, রাজধর্ম ভুলুন্ঠিত করে মূর্খদের শোনায় ভাষণ। মনে হয় দিনে আলোয় যতো আলোকিতই সব মানুষ, রাতের আঁধারে বুঝা যায় আসলে সকলি গড়ল ফানুস। পুঁজি আর রুজি সিদ্ধহস্ত কাজী মিথ্যের ফুলঝুরি মুখে, মানুষ ফাসিয়ে কেড়ে নেয় সব কেউ নেই তাদের রুখে। ধর্মের আফিমে অবস রাখে আর রাজনীতির জুয়া খেলে, রাষ্ট্রকে বানায়...
আজ এক কল্পনাই আমার চোখে এঁকেছি তোমাকে কল্পনার বেড়াজালে তুমি বন্ধী আমার হৃদয়ের ক্যানভাসে। আকাশ ছুয়ে যায় প্রকৃতির সবুজ শ্যামল নিস্তব্ধতায়। আমার কল্পনায় সেই তুমি তোমাকে নিয়ে বাস্তবতায় মিশলে আমি যেন হারিয়ে ফেলি নিজেকে তোমার মাঝে। সেই খোলা আকাশের নীল মেঘ আর নীলাকষ্ঠে এক নিলান্জনা। আজ খোলা আকাশের সাজে তুমি ও পড়ছো ...
ছোট্ট আপু দৌড়ে এসে বলল, নানু ভাই, নেচে নেচে আমি একটা গান শুনাতে চাই, কথার চেয়ে হাসি বেশি নাচতে প্রস্তুত, না বলতেই শুরু করলো ফুর্তিটা অদ্ভুত। গানের তালে নাচে আপু দোলা দেয় কোমর, নাচের চেয়ে ফুর্তি বেশি আহা কি সুন্দর!!
শুভঙ্কর সিংহ, কলকাতা: সম্প্রতি কলকাতার কলেজ স্ট্রিট কফি হাউজের তিনতলার রেনেসাঁস হলে প্রকাশিত হল ঘনশ্যাম চৌধুরী এবং সিদ্ধার্থ সিংহ সম্পাদিত ৪৭ ফর্মার, ডবল ক্রাউন ১/৮ সাইজের বোর্ড বাঁধাই এক সুবিশাল পূজাবার্ষিকী--- সাহিত্যের তেরো পার্বণ। এই পূজাবার্ষিকীটিতে কে লেখেননি? গল্প লিখেছেন--- রমাপদ চৌধুরী, সমরেশ মজুমদার, মতি নন্দী, শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায...
(আগরতলা ০৫/১০/২০২১) লজ্জাহীন এ দুঃসময়ে কি ভাষায় বলো লিখি? ফসল যারা ফলায় মাঠে গুলিতে মৃত্যু দেখি। রক্ত রঞ্জিত রাজপথ কাঁদে সন্তানের লাশ বুকে, বন্ধুগো ভাষাহীন হয়ে গেছি কিছুই আসছেনা মুখে। ফসলের মাঠ ভিজে গেছে ঐ কৃষকের রক্ত ও ঘামে, লুটেরার প্রাসাদ টইটুম্বুর হলো নামে ও বেনামে। মাটির বুক চিরে সোনালী ফসল ফলাতো যারা নিশিদিন, আজকে...
মায়াবী নয়ন জুগল পানে চাহিলে, দৃষ্টি ফেরেনা। স্নিগ্ধ মুখটি ছাড়া আর কিছু, দেখতে ইচ্ছে করে না। ঠোটের কোণে যবে তার দেখি এক চিলতে হাসি। হৃদয় হতে অনুভব করি, কি কারণে ভালোবাসি। ডানপিটে এক কিশোর সে যে, বড়ই চপল মন, সাতার আর দশ্যিপনাঢ় মেতে রয় সারাক্ষণ। লাল-সবুজের জার্সি জড়ালো, দশ্যি ছেলের গায়ে। চিনলো সবাই বাংলাদেশকে, নব পরিচয়ে। তার গতির ঝড়ে কুপকাত যত রথি-...
(আগরতলা ২৩/০৯/২০২১) খরস্রোতা নদীর ঢেউ দেখে এখন আমি আর ভয় পাইনা বিব্রত ও হইনা, বরং গা ভাসিয়ে তাকে বারংবার ছুঁয়ে আসি তার কোমল স্পর্শে আমি শান্ত হয়ে অন্যরকম সুখ খুজে পাই, নদী ও আমার আত্মার নীরব প্রণয় বহুদিনের পুরানো এ নিবিড় সম্পর্কের কথা কেউ জানেনা, তাই প্রায়শই বিকেল হয়ে এলে অন্তরাত্মার টানে তার কাছে ছুটে যাই সংগোপনে। আমার জীবনকে অ...
(আগরতলা ২০/০৯/২০২১) এখন সংকট সময় উদ্ভট ঘোড়ার পিঠে পাগলা সোয়ারি ধূলায় ধূসর পথে চলেছে দিশাহীন ঠিকানায়, সকালের সূর্য্যটা নুয়ে গেছে হাটু গেড়ে পশ্চিম আকাশের অন্ধকার গালিচায় বিষণ্ণ অসীমান্তের কোলে। ক্রমে অন্ধকার ঝাফটে ধরেছে দৈব দৈত্যের মতো কাজহীন এ অলস সময়ের ঘড়ি চেনা পথে টিকটিক নিরলস হেটে চলেছে বিরামহীন, নিঝুম নিস্তব্ধ এ সময়ে দিকভূলে...
(আগরতলা ১৮/০৯/২০২১) সুযোগসন্ধানী কাপুরুষ যতো পতাকা নিয়েছে হাতে, যারা ভালোবাসে দেশ গেছে সন্যাসে ইঁদুর আর বিড়ালের বাস একসাথে। রাজকোষে ওই বিশাল সুড়ঙ্গ গোপনে গড়েছে যারা, সাধু সন্যাসে দারুন বিন্যাসে সবকিছুই করেছে জনতার হাতছাড়া। মন্ত্রী মশাই সরিষার তেলে ডুবিয়ে রেখেছেন নাভি, প্রজাদের গতি কি হবে জানেনা রাক্ষসের মুখে শুধু খাবি খাবি...
সুরিন্দর সুরাইয়া, কলকাতা: গত আগস্ট মাসের শেষ সপ্তাহে মাত্র সাত দিনে পাঁচখানা পূর্ণাঙ্গ উপন্যাস লিখে বাংলা সাহিত্যে সাড়া ফেলে দিয়েছেন কবি ও কথাসাহিত্যিক সিদ্ধার্থ সিংহ। সেই পাঁচটি উপন্যাস পৃথিবীর ভিন্ন ভিন্ন পাঁচটি দেশ থেকে ইতিমধ্যেই ধারাবাহিক হিসেবে প্রকাশ হতে শুরু করেছে। কানাডা থেকে প্রকাশিত 'দেশ দিগন্ত' পত্রিকায় গত ৩১ আগস্ট থেকে প্রতি স...
ইস্কুলেতে যাব আবার ইস্কুল খুলেছে, শিশু মনে হাসি খুশির ঝিলিক ফুটেছে ৷ করোনাতে ঘর-বাড়িটা ছিল বন্দিশালা, বিদ্যালয়ে যাব এবার মন হবে উজলা ৷ মধুর গল্পে মেতে উঠব সহপাঠির সাথে ৷ পড়া-লেখা করব আমি সকাল সন্ধা রাতে ৷ শিক্ষাগুরুর কাছে শুনবো দামি দামি কথা, সময় নষ্ট করব না আর অহেতুক অযথা ৷ পাঠে হব মনোযোগী খুলেছে স্কুল, স্বাস্থ্যবিধ...
(আগরতলা ০৭/০৯/২০২১) সকল অন্ধকার ভেদ করে মানুষের জয় হবে একদিন কালো মেঘের বুক চিরে সূর্য্যটা উঁকি দেবে, আবার জাগবে প্রাণ আবার গাইবে গান সবাই মেতে উঠবে আরেকটা উৎসবে | অনেক আশায় নিরন্ন মানুষেরা জেগে উঠবে দৃঢ় বিশ্বাসে নির্যাতিতেরা, বঞ্চিতেরা প্রতিক্ষিত সময়ের করবে শুভ সূচনা, প্রতিশোধের তীব্রতা ছাড়িয়ে যাবে পরিমাপের সমস্ত মাত্রা মাঠ...
(আগরতলা ০৩/০৯/২০২১) করোনা এবার ক্ষমা করো পৃথিবীকে, অনেক হয়েছে অনেক কাঁদিয়েছো আমাদের, সীমাহীন ক্ষতি আর মাথায় বইতে পারছিনা বাতাসের বুক ভরে গেছে শোকে এবার থামাও তোমার সংহারী রুদ্র রুষ্ট আধিপত্যের বিনাশী খেলা। স্বজন হারানোর শোকে আমরা পাথর হতে চলেছি পৃথিবী আর কাঁদতে পারছেনা দয়া করে এবার ক্ষমা করো আমাদের, তোমার এ সর্বনাশা অন্যায় ম...
(আগরতলা ৩১/০৮/২০২১) যে বাড়িতে জন্মনিলাম সেটি ছিলো বাবার, বিয়ের পরে যেথায় এলাম সেটাও নয় আমার, তবে আমার বাড়ি কই ? জীবন গেলো বাসন ধুঁয়ে অপরাধ কি মেয়ে হয়ে মেয়েদের কেনো হয়না বাড়ি অবাক চেয়ে রই ? সব দিয়েও পায়না কিছু সব করেও রাখছে নিচু তারপরেও দিনেরাতে লাগে ভীষণ ভয়, মেয়েদের কি হয়না বাড়ি এই সমাজ কি নয় অত্যাচারী এইটা কিরে বিড়ম্বনা নয়...
স্বপ্নগুলো হয় ফ্যাকাসে ক্লান্ত আমি রোজ, তবুও নিত্য হাসিমুখে করছি সুখের খোঁজ। আমার কাছে সুখ মানেই আনমনে চা খাওয়া, সুখ মানেই খোলা ছাদে একটু দমকা হাওয়া। সেই হাওয়াতে ওড়না উড়ে উড়ে আমার চুল, দমকা হাওয়ায় মনেপড়ে জীবনের যত ভুল।
প্রসেনজিত দাস, আগরতলা: এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে প্রকাশিত হল 'ত্রিপুরা বিচিত্রা' বইয়ের ষষ্ঠ সংস্করণ। রাজ্যের অন্যতম স্বনামধন্য প্রকাশনা সংস্থা পারুল লাইব্রেরির উদ্যোগে এই বইটির আনুষ্ঠানিক আবরণ উন্মোচন করা হয় সোমবার। এদিন দুপুর নাগাদ আগরতলা প্রেস ক্লাবে এই ইনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চেন্সেলার সত্যদেও পো...
(আগরতলা ২৯/০৮/২০২১) তোমারা বলেছিলে এখন মহাজাগরণের যুগ বলেছিলে এখন মহামিলনের যুগ, এও বলেছিলে এ যুগে সবাই ধর্মের খোলস হতে বেড়িয়ে সভ্যতার দিশা দেখাবে। হাজার বছর অতিক্রম হলো সামাজিক সামান্য অন্ধকারও গেলোনা বরং ধর্মের ঢাল হাতে সমাজটাকে কাঁচের মতো টুকরো টুকরো করা হলো, কেউ মসজিদ ভাঙ্গলো কেউ মন্দির ভাঙলো আসলে ভাঙাভাঙ্গির খেলায় সবাই মত্...
(আগরতলা ২৭/০৮/২০২১, মুনিয়া হত্যার প্রতিবাদ ) আমি এ নষ্ট সময়ের কথা বলছি আমি বলছি সভ্যতার ইতিহাসের সবচেয়ে বিবর্ণ সময়ের কথা, আমি পূঁজির সাতকাহনের কথা নিপিড়িত মানুষের কাছে বলতে চাইছি। ঐযে কাকভোরে সবিতা জড়িনারা ঘর ছেড়ে যায় হাজার তিনেক টাকা মাস শেষে গুনবে বলে, এ যৎসামান্য রোজগারেই তাদের সংসার চলে আর সোনার চামুচ মুখে যারা জন্মায় তারা ...
(আগরতলা ২৬/০৮/২০২১) কবে কোন পউষের শেষে সেদিন ধান কাটা হয়েছিলো সারা, হঠাৎ কোথা হতে গুধূলি এসে ঘরে যেতে করেছিলো তাড়া | চারদিকে পূজার ঘন্টা আর উলুধ্বনি একাকার করেছিলো সন্ধ্যায়, ব্যস্ত চরণ ফেলে ফিরে দেখি তুমি রয়েছো বন্দনায়  | খানিক দাঁড়ায়ে থেকে প্রাণের আকুতি রেখে ভেবেছিনো তোমাতে আমিগো যদি করি সমর্পন, পবিত্র প্রেমের স্রোতে ...
অগস্ত্যের চুমুকে জীবনহীন কলরব জেগে থাকা শরীর কবিতার আশ্রয়ে সারা রাত যাপন তার সাথে এ কবির ভরসার আশ্রয় মায়ের সতর্ক মমতা যেমন বুকে চেপে আগলে রাখে কান্নার উৎসমুখ কবি লিখে চলেন লিখে চলেন মাটির ঘ্রাণ কলম তার সবুজ সঞ্জীবনের অনুভবে অক্ষরের শরীরে যত্নে বসান পান্না হীরে চুনি দ্যুতিময় তথাগতের ধ্যান মগ্নতা তার মননে আলো পড়লেই ভুবনজোড়া ...
(আগরতলা ২২/০৮/২০২১ কবিতাটি সম্পাদন করেছেন আমার বন্ধুবর মোসলেম উদ্দীন মুনির ) বন্ধুগণ আমি তোমাদের কথা বলতে এসে কলম ধরেছি, রাতের চাঁদ দেখে আমি কবিতা লিখিনা আমি শোষিতের কথা শ্রমিক মুজুরের ঘামের রক্ত জল করার কথা আপন মাধুরী দিয়ে নীরবে নিভৃতে বুনে যাই প্রশস্ত সবুজের বুকে। আসন্ন দিনের সম্ভাবনাময় নতুন সূর্য্য পূব আকাশে আনাগোনা দেখে আমি...
এখনো কি ছেলেরা স্কুল ছুটি হলে গরু-ছাগল মাঠে নিয়ে মেতে উঠে হাডুডু আর গোল্লাছুটে, কিংবা গ্রীষ্মের সন্ধ্যায় পুরো পুকুরটা দাপিয়ে বেড়ায়? এখনও কি রাতের বেলায় রাক্ষস খোক্কস কিংবা ঠাকুর মা'র ঝুলি, ফুফু খালা আর মাসীদের ভরাট কন্ঠে চুপটি করে শোনে? এখনও কি শিয়ালের হাঁক শিশুদের আতংক ছড়ায় কিংবা শিয়াল কামড়ে মেরে যায় তার প্রধান শত্রু কুকুর ছানাট...
আমি বেশ্যা আমি অসতি তোমাদের এই কথিত সভ্য সমাজে আমি কুলটা অস্পৃশ্য বটে, আমার নগ্ন দেহ তোমাদের মনের খোরাক যোগায় প্রতিদিন মাঝে মাঝে কচি মুরগির মাংসের মতো খুবলে খুবলে খেয়ে তৃপ্ত হও তোমারা।ং আমার দেহটা তোমরা বর্গীদের মতো ইচ্ছেমতো চাষাবাদ করো আমি নীরবে তোমাদের পশুবৃত্তি সহ্য করি, আমার কষ্ট হয় হাসি দিয়ে কান্না ভুলে থাকি তোমরা তা বুঝো? ...
দুয়ারে দাঁড়ায়ে থাকি অপলক দৃষ্টি রাখি চাহিয়া থাকিবে সেদিন আকাশের দিকে, গ্রহ -তারা, রবী -শশী বিরহের কান্নাহাসি সমস্ত স্মৃতি কথা হয়ে যাবে ফিকে। অন্দর অলিন্দে তুমি খুঁজিবে কোথা আমি এথা নাই হেথা নাই অদৃশ্য আঁধারে, দখিনা বাতাস এসে উতাল আউলা বেশে কাঁদিয়া ফিরিয়া যাবে, না পেয়ে আমারে। অন্তরে অনন্ত কষ্ট ধূপে জ্বলিবে স্পষ্ট না বলা ব্যথার...
বলেছিলে আসবে তুমি আমার কুঁড়ে ঘরে, সাঁঝের বেলা আলোআঁধার যখন খেলা করে কিংবা যখন বৃষ্টি ঝরে। তুমি এলে মাটির পিদিম জ্বালিয়ে দেবো বলে, অপেক্ষাতে জানলা খুলে পথ চেয়ে রই নয়ন মেলে তাই শুনে কি আকাশ জুড়ে মেঘেরা খেলা খেলে? ঘরে ফিরে গেছে পাখি দিনের পাখায় ক্লান্তি মাখি থেমে গেছে নীরব হয়ে সবে, সূর্য্য গেছে অস্তাচলে দিনের কষ্ট ভাসিয়ে জল...
মৃদ হাসতে না পারলে ও অযথা তুমি কাঁদাবে না, আনন্দ দিতে না পারলে ও, কষ্ট কাউকে দিবে না। ভালবাসতে না পারলে ও, ঘৃণা কাউকে করবে না, বন্ধু হতে না পারলে ও, শত্রু কাউকে ভাববে না। ভালো কাজ করতে না পারলে ও ক্ষতি কারোর করবে না, কাউকে সন্মান না দিলে ও অসন্মান তুমি করবে না। সত্য কথা বলতে না পারলে ও মিথ্যা কথা কখনো বলবে না, সর্বদায় ভাল...
কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ আজ ৮ আগষ্ট প্রয়াত শিশুশিল্পী, সংগঠক, সমাজকর্মী, সাংবাদিক, প্রচ্ছদ শিল্পী, নওশাদ কবীরের শুভ জন্মদিন। ১৯৬২ সালের এই দিনে তিন কুমিল্লার ঐতিহাসিক জনপদ ময়নামতির সিন্দুরিয়াপাড়া গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মেছিলেন। খুব ছোটবেলা থেকেই ছড়া, কবিতা, ছবি আঁকা শুরু করেন। স্কুল জীবনেই কুমিল্লা পূর্বাশা ও মধুমিতা কঁচিকাচার মেলা...
বেহায়াদের সেরা নারীর নাম শোনা যায় মডেল, দেহ ব্যবসায় অর্থ সম্পদ কামাই করে অঢেল। বস্তিঘরে আল্লাহ ওদের বানালেন সুন্দরী? ঢাকায় এসে মডেল সেজে হচ্ছে নিশাচারী। পরিমণি, পিয়াসা, মৌ মডেলের নেই শেষ, নষ্ট করছে জাতির স্বভাব নষ্ট করছে দেশ। পত্রিকাতে ছাপায় ওদের নগ্ন নগ্ন ছবি, বিবেক শুন্য জাতি আমরা হারিয়েছি সবই? কুরুচিতে রুচি যেন দেশ ...
চলে যাবো লোকান্তরে খুঁজবে কি অবনীর বুক চিরে! অাসবো না অার ফিরে জ্বলবো আমি লক্ষ তারার ভিড়ে। পুরানো স্মৃতি জড়িয়ে বুকে হবে কি পাগল কেঁদে কেঁদে? ঘুমের ঘোরে মাঝরাতে হঠাৎ জাগবে কি চমকে? চেনা হাতের পরশে ভেসে যাবে মেঘের আবেশে ভাববে বুঝি আমি এসে দোলা দিয়েছি বুকের অলিন্দে। নির্জন কোনো দুপুরে একাকি থাকার প্রহরে থমকে যাবে হঠাৎ বাতাসে ভেসে...
(প্রয়াত শিক্ষক জনাব আব্দুল হাই স্যারের স্মরণে) (শিক্ষকঃ কশামী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বরুড়া, কুমিল্লা।) তিনি মোদের মহান শিক্ষা গুরু বেঁচে থাকার অনুপ্রেরণা, শিক্ষায়-দীক্ষায়,মার্জিত স্বভাব-চরিত্র হয়না যার তুলনা। সাদামাটা; মিষ্টিভাষী ব্যক্তি যোগ্য মায়ের সুযোগ্য সন্তান, শিক্ষকতা পেশায় মমতায় জড়ানো; অত্যন্ত মর্যাদাবান। দেখতে শুনতে লি...
(আগরতলা ৩০/০৭/২০২১ মুনিয়া হত্যার প্রতিবাদ ) মুনিয়া তোমার নির্মম হত্যার বিচার দাবি করে ভীষণ বিব্রত হই, তুমিতো জানো যে দেশে বিচারপতিও বিচার পায়না বরং সর্বস্ব ফেলে শুধু প্রাণ বাঁচাতে দেশ ত্যাগ করে। মুনিয়া তুমি কি জানো তোমার মতো হাজারো মুনিয়াদের কান্নায় বাতাস ভারি হয়ে আছে, আঃ বিচারের নামে প্রহশনের সিরিয়াল নাটক আমরা নিয়ত দেখে যাচ্...
বিনোদন ডেস্কঃ অভিনেত্রী ও গায়িকা মেহের আফরোজ শাওন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে নিজ বাসায় আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। আজ শুক্রবার (৩০ জুলাই) দুপুরে তিনি ফেসবুক স্ট্যাটাসে লেখেন, 'পজিটিভ'। তারপর থেকেই তার ভক্ত অনুরাগীদের মধ্যে উৎকণ্ঠা দেখা দেয়৷ তার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি গণমাধ্যমে জানান, 'আমার কোভিড-১৯ পরীক্ষার রেজাল্ট পজ...
কঠিন বাস্তবের কাছে নতজানু হয়ে বলি শিক্ষা নাও ওহে মহাজীবন, সকলি যে মেকী সকলি যে গড়ল সত্য হয়ে ফুটে সবই হলে প্রয়োজন। অন্ধ বিশ্বাস আর অন্ধ ভালোবাসা কেবলি দুরন্ত ভরসা আমার, দেখেছি জীবনভর মিছে মিছে খেলাঘর নীরবে নির্মাণ করি স্বপ্ন দুরাশার। ফুলের সুবাস পেতে আশার সিঞ্চন রাতে সকলি বৃথা মোহ অলীক কামনা, অন্ধকার এলে পরে ইচ্ছেরা জড়িয়ে ধরে ...
অন্ধকার কেটে সোনালী সকাল হবে একটা অন্যরকম নতুন সকাল, অতন্দ্র অপেক্ষার প্রহর কাটি অপেক্ষায় চেয়ে আছি আমি বাইরের দিকে কতোকাল। পাশের বাড়ির অভুক্ত শিশুরা মায়ের বুকে চুপ হয়ে ঘুমিয়ে গেছে খানিকটা আগে, আকাশে আসন্ন বর্ষার মেঘ এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে ছুটাছুটি করে অথচ মা তার শিয়রে এখনো কষ্টে জাগে। ক্রমে রাতের অন্ধকার পায়ে পায়ে...
করোনা আক্রান্ত হয়ে বরুড়া বাজারে ঘুরে, কতজন কে আক্রান্ত করে শেষ পর্যন্ত ছাড়ে। করোনা রোগী থাকবে ঘরে ঘুরাঘুরি করে পথে ঘাটে, করোনা রোগীর কারনে করোনা ছড়াবে দ্রুত হাটে। শিক্ষিত লোকজনে করোনা নিয়ে হেলা করে, জানার লোক কিছু বললে তার উপর রাগ করে করোনা রোগী বাজারে করোনার কথা গোপন রাখে, অন্যজন কে আক্রান্ত করে চায়ের দোকানে আড্ডা মা...
(আগরতলা ২৪/০৭/২০২১) প্রণমি তোমায় আমি ওগো মা জন্মভূমি এসেছি অনেকদূরে তোমারে ছাড়িয়া, এখন প্রমাদ গুনি কতো কথা মিছে শুনি দুর্ভাগারে যেওনা মাগো কখনো ভুলিয়া  | তোমার সেই শান্ত ছেলে এখন শুধুই ভাসে জলে যা কিছু হাতে পাই ভিজে বালুচর, থাকেনা পায়ের নিচে অহেতুক ধরি মিছে জীবনটাই দেখি আজ যেনো খেলাঘর  | আলো দেখে হাসি তবু ভরসা ত্যাগিনা কভু ...
আজ চাঁদের অন্ধকার কেটে গেল, সূর্যের আলো এসে চাঁদের আধার কাটিয়ে দিলো নিমিষেই। শুক্রবার ছিলো চাঁদের সূর্য স্নান, চাঁদ সেদিন সূর্যকে আলিঙ্গন করে সূর্য স্নান সেরে ফেললো। সবরকম বাধা পেরিয়ে চাঁদ সূর্যের আলো ছড়িয়ে পড়লো চারদিকে। আর অন্ধকার সেই চিরচেনা আধারেই পরে রইলো। এতে অন্ধকারের কোন কষ্ট নেই ক্ষোভ নেই অভিযোগ নেই। অন্ধকার সারাজীবন আধারেই পরে রইবে সে ...
এ তুমি কেমন তুমি লাশ দিয়ে পাহাড় গড়ো, এ তুমি কেমন তুমি জীবন নিয়ে খেলা করো। এ তুমি কেমন তুমি মুখের খাবার নিচ্ছো কেড়ে, এ তুমি কেমন তুমি আগুন জ্বালাও ঘরে ঘরে। এ তুমি কেমন তুমি শান্তির মূলে আঘাত করো, এ তুমি কেমন তুমি ভাইয়ে ভাইয়ে বিভেদ গড়ো। এ তুমি কেমন তুমি ধর্মের ঢোলে কাঠি দিয়ে, এ তুমি কেমন তুমি জুয়া খেলাও পূঁজি দিয়ে। এ...
ইব্রাহীম নবীর সুন্নত কোরবানি বছরে শেষে ফিরে আসে বারে বারে জিলহজ্জ মাসের দশ তারিখে মনের আনন্দে দিবে কোরবানি। কোরবানি করা ওয়াজিব আল্লাহ তায়ালার ঘোষণা নেসাব পরিমান সম্পদ থাকিলে কোরবানি তোমার ওয়াজিব হবে। পঞ্চান্ন হাজার টাকা থাকিলে কোরবানি তোমাকে দিতে হবে কোন রকম বায়না না ধরে কোরবানি তুমি দিয়ে দিবে। গরু উট সাত ভাগে বকরী দি...
প্রিয়, 'চাঁদ' ভালো বাসা এক অজানা পথ। কখনো কখনো সেই পথে পৌছা যায় না, আর যদিও পৌছা যায় সেইটা হাতে গুনা কজন, সবার ভাগ্যে হয় না। চাঁদকে ভালো বাসতো খুব অন্ধকার, এখনো ভালো বাসে। বাকি জীবনটাও ভালো বেসে যাবে দূর থেকে। যদিও সেইটা চাঁদের কাছে মূল্যহীন। কিন্তু চাঁদের মনে অন্ধকারের জন্য আর কোন যায়গাই অবশিষ্ট নেই। তবুও সারাজীবন চাঁদকে ভালো বেসে যেতে চায় অন...
(আগরতলা ১৬/০৭/২০২১) আমি যুদ্ধ দেখেছি আমি মানবিকতা আর মনুষত্বের মরণ দেখেছি, নির্মমতা কাকে বলে তাও দেখেছি আমি, বুটের নিচে ফেলে কি করে শিশুদের পিষেছে উর্দি গায়ে পাগলা কুকুরের দল। মানুষ হত্যার রকমফের আমি ঠাঁই দাঁড়িয়ে অবাক চোখে দেখেছি, গুলি নয়, বেওনেট নয় জ্বলন্ত আগুনে জীবন্ত মানুষকে পুড়ে ছাই করে দিতে দেখেছি আমি। সম্ভ্রমহানী করে ...
দান করো মন থেকে যেমন করে মন চায়ে দান করো সৎ পথে রাতে আর দিনে। দান বড় শক্তিশালী নবী সাঃ এর মুখের বানী পানি যেমনী আগুন নিবায় দান তেমনি পাপ মোচায়। সৎ পথের আয় থেকে দান তোমার করতে হবে এক টাকা দান করিলে বহু গুনে ফিরে আসবে। পবিত্র কুরআনে ঘোষনা সুরা বাকারা পড়ে দেখোনা দান করিলে বিপদ কাটে দান করে দেখোনা। দানে তোমায় শান্তি দিবে ...
(আগরতলা ১৪/০৭/২০২১) চরম সত্যের কাছে মাথা নুয়ে আছি কখন যে রাত শেষ হলো ! কখনযে আমার জানালার ফাঁকে এক টুকুরো সোনালী আলো বিছানা ছুঁয়ে গেলো আমি এতটুকুও টের পাইনি | তপস্বীর মতো নিমগ্ন ধ্যানে আমার অন্তরটা অন্য কোনো জায়গায় কি জানি হন্যে হয়ে খুঁজছিলো, কখনযে শিশিরের সব কয়টা ফোঁটা ভুলুন্ঠিত হয়ে গেছে অভিমানে মোটেও আঁচ করতে পারিনি | কল্...
(আগরতলা ১০/০৭/২০২১) বিশ্বকাপে বিশ্ব গরম করোনা কয় থাম, আমার খেলায় ভুলিয়ে দেবো চৌদ্দগুষ্টির নাম। অন্য রোগে দল বেধে কয় আমরাও আছি সাথে, গোলের পরে গোল হবে সারা দিবস রাতে। মুচকি হেসে করোনা কয় খেলবো কতো আর, ভাল্লাগেনা একচেটিয়া বলবো কিযে তার। গোলের পরে গোল দিয়ে যাই টার্গেট ছিলো কোটি, হিসাবটাও অংকের ঘরে আছে মোটামুটি। কাপটা এব...
তোমারা যারা সুখে আছো গান গাও আরো সুখে, আমি নিশিদিন গুনি আর লিখি বড় বিষ জ্বালা এই বুকে  | তোমারা যারা নিরুদের হয়ে বাজাও বাঁশের বাঁশি, আমি হাটু গেড়ে নোনা জলে ঢেউ গুনি রাশি রাশি  | তোমাদের মনে ফুলের সুবাস চারদিকে করে মৌ মৌ, আমি বসে শুধু ঝরা পাতা কুড়াই দেখেছো কি তোমারা কেউ ? সূর্য্যের প্রখর অগ্নি ঝলকে আমি পুড়ে হই ছাই, বিলাসী মানু...
মার দেশের মাটি সবার চেয়ে খাঁটি যেখানে পড়বে বিচি সেখানে গাছ গাছালী। সোনার সাথে তুুলনা কথাটা মিথ্যা না সোনার চেয়ে দামী বলা ভুল তোমার হবে না। ভিন দেশে গেলে নজর তোমার আসবে গাছ গাছালী করতে অনেক কষ্ট করে। সোনার দেশের মাটি এতো যে খাটি যে ফলনে ফলাইবি উপচে পড়া হবি। সামান্য মাটি পেলে অনেক ফল ফলাদি হবে ঘরের চাঁদে মাটির টবে চোখ খুলে দেখিব...
আমার দেশের মাটি সবার চেয়ে খাঁটি যেখানে পড়বে বিচি সেখানে গাছ গাছালী। সোনার সাথে তুুলনা কথাটা মিথ্যা না সোনার চেয়ে দামী বলা ভুল তোমার হবে না। ভিন দেশে গেলে নজর তোমার আসবে গাছ গাছালী করতে অনেক কষ্ট করে। সোনার দেশের মাটি এতো যে খাটি যে ফলনে ফলাইবি উপচে পড়া হবি। সামান্য মাটি পেলে অনেক ফল ফলাদি হবে ঘরের চাঁদে মাটির টবে চোখ খু...
(আগরতলা ০৭/০৭/২০২১) রক্ত ঝড়াবোই হাতে নিয়েছি তাই শহিদী মৃত্যুর ছাড়পত্র, মাথায় বিদ্রোহের লেলীহান শিখা জ্বলে আগ্নেয়গিরির মতো দিবারাত্র। বুকে আমার সূর্য্যের উত্তাপ ঘৃণার গ্রেনেড হাতে, ছুড়বোই আমি অত্যাচারীর বুকে রয়েছি অপেক্ষাতে। মুক্তির মহামন্ত্র হৃদয়ে আমার সমুদ্রের ঢেউ খেলে, এপার অপার সব একাকার ভাসাবোই প্লাবনের জলে। ন...
ছড়িয়েছে চারিদিকে আতঙ্ক, মহামারি করোনা। এত কিছু করেও কোন উপায় যে মেলে না। ডাক্তার, বিশেষজ্ঞ সবে মিলে, করছে হাজার চেষ্টা। রাখতে দূরে করোনা,উপায় শুধু নিজেদের সচেতনতা। ছড়িয়েছে যে চারিদিকে- আতঙ্কের আগুন। বন্দী হয়েছি নিজেরাই আজি; করোনায় লকডাউন। রাস্তাগুলো ফাঁকা আজি; পুলিশের টহল। জনতার নিরাপত্তায় নিয়োজিত; সেনাবাহিনী সকল। হাসপাতালে রোগীর...
(আগরতলা ০৪/০৭/২০২১) রাস্তা কাঁপিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে এম্বুলেন্স চিৎকার দিয়ে ছুটে যায়, জনমানবহীন রাজপথে এখন তার ভীষণ আধিপত্য ঠিক কোনো এক সম্রাটের মতো  | আমি জানালার ফাঁকে প্রায়শই তাকিয়ে দেখি হলুদ কিংবা নীল বাতির অসনি সংকেত, ইশারায় জানান দিয়ে যায় শ্মশানে ও কবরে পরাজিত মানুষের পাহাড় হয়ে আছে  | হাসপাতালের করিডোর আর মেঝ উবছে গেছে অস...
বৃষ্টি ভেজা মন তাকিয়ে ছিল ঐ নিবিড় আকাশে, নিরবতায় মানুষ ঘুমিয়ে ছিল এক মিষ্টি বাতাসে। হঠাৎ ঘুম ভেঙে যায় চিত্র তুলে ধরে এই কবিতায়, কত ইশারা দেয়নি সাহারা হয়েছি এই আমি সবিতা। চন্দ্র অট্টহাসি মুখ পাইনি ছিল যে তিমির রাত, চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে নিভৃতে ঐ মিষ্টি হাওয়া স্বাধ। দরজার সামনে পাতার ফাঁকে ঐ ঝিরিঝিরি শব্দ, আমি দিশেহারা মুক্তিব...
বরুড়া, কুমিল্লা। কত আপন যে হারিয়ে গেল সেই শ্যামল ডাঙ্গার পথে, পাখিরে তুই বাসা বাঁধলি এসে আমার এ ছোট্ট বেলকনিতে। বৃষ্টির পানি অঝোরে পড়ছে স্বপ্নের ছাউনিতে গড়া নীড়ে, অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকি তুলতুলে ছানা গুলোযে ভিজে ! পাখিরে তুই ভুল বুঝিসনা আমিতো নই কোনো স্বার্থপর, আমাতে আমি স্থির ছিলামনা নিদারুণ ঔ কষ্ট দেখার পর! ...
ডাক্তার এক জনমন সচেতন কারী, সমাজ সেবায়, রোগীর সেবায়, দক্ষতার সাথে রোগ নিরূপণকারী। সামাজিক বন্ধনে দায়বদ্ধতার সৈনিক, মানসিক প্রভায়, মানবিক প্রভায়, ঝুঁকির অঙ্গনে উপলব্ধতার প্রতীক। পরিকল্পনামাফিক এক স্বাস্থ্যসফরক, দায়িত্ব কঠোর, কর্তব্য জঠর, অঙ্গীকার নিরিখে এক রোগসফরক। অগ্রাধিকার ধারণার এক প্রায়োগিক, দিন রাত কাটা...
(আগরতলা ২৭/০৬/২০২১ বন্ধু মমতাজের অকাল প্রয়ানে) কথা ছিলো দেখা হবে অকস্মাৎ কোনো একদিন তোমাদের গাঁয়, সে আর হলো কই অপেক্ষার রাত পোহাবার আগেই বন্ধু নিয়েছো বিদায়। সেই কবে বছর বিশেক হবে তোমার বাড়ির উঠুনের এক কোনে দাঁড়িয়ে, কতো কথা গেছি যে মাড়িয়ে তখন কি জানতাম তুমি যাবে অজান্তে সহসাই হারিয়ে? মনে হয় এইতো সেদিন সদাহাস্য আলাপন ছ...
স্বাধীনতা তুমি আমার অহংকার। স্বাধীনতা তুমি আমার অস্তিত্ব। স্বাধীনতা তুমি আমার ঠিকানা। স্বাধীনতা তুমি আমার মানচিত্র। স্বাধীনতা তুমি আমার নিজস্ব ভূখন্ড। স্বাধীনতা তুমি আমার অধিকার। স্বাধীনতা তুমি আমার মুক্তিযোদ্ব। স্বাধীনতা তুমি আমার সোনালী ফসল। স্বাধীনতা তুমি আমার নয় মাসের যুদ্ব। স্বাধীনতা তুমি আমার লাল সবুজ পত...
(আগরতলা ২৭/০৬/২০২১) আকাশের মেঘ দেখে অভুক্ত শিশুদের বড় কষ্ট হয়, মনে আতংক নামে, অসহায় উপোষ করা মানুষের কাছে বৃষ্টি হলো অভিশপ্ত কাল। ভেন্না পাতার ছাউনিতে বৃষ্টিরা নাচেনা, বরং টুপটাপ করে সেঁতসেঁতে মেঝেতে বেদনা হয়ে গড়াগড়ি করে, আমরা সুখ সন্ধানী বলে অন্যের কষ্টে ব্যাথিত হইনা, বরং অন্যের কষ্ট দেখে অনেকেই তৃপ্ত হই। অসুবিধা কি? র...
মুক্ত কেশে, হাওয়ায় ভেসে, চলছি উড়ে, শহর ছেড়ে। অচিন দেশে, পাখির বেশে, নীড়ের খোঁজে, বনের মাঝে, বুনবো বাসা, দিয়ে আশা। বাঁধবো সুর, বাজবে নুপুর, থাকবো একা, মিলবে দেখা, অচেনা পথিক, ভুলবে দিক। হবে সাথী, কাটাবে রাতি, গুনবো প্রহর, একলা শহর। হারিয়ে আমায়, কাঁদবে সবাই। ভাবনা আজব, মিলিয়ে সব।
(আগরতলা ২৫/০৬/২০২১) অর্থনীতির শরীরে এখন রক্তক্ষরণ মাংসাসি নেকড়ের নখরে ক্ষতবিক্ষত দেখে মনে হয় অর্থ মানেই শুকুনের ভাগাড়, শেয়ালেরাও ওৎ পেতে বসে আছে সামান্য ভগ্নাংশ যদি নিতে পারে জনগন তাকিয়ে দেখে চারদিকে হাড্ডির পাহাড়। এতো খায় যতো পায় অরুচি হয়না হজমেও নেই কোনো ক্ষতি রাজ প্রাসাদে এখন উৎসব আরতি, শুকুনেরা দল বেঁধে ঘিরেছে আকাশ রক্ষার নে...
(আগরতলা ২৩/০৬/২০২১) পতাকা তোমাকে পেতে গিয়ে এক নদী রক্ত বয়ে গেলো, তোমার পরম স্পর্শ পেতে গিয়ে আমেনার ঘর ভাঙ্গলো পাশের বাড়ির বাসনার কপালও চূর্ণ হলো | পতাকা তোমাকে পেতে গিয়ে গ্রামকে গ্রাম আগুনে ভস্ম হলো শশ্মানে পরিণত হলো পুরোটা মানচিত্র, তোমাকে পেতে গিয়ে সিঁথির সিঁদুর হাতের শঙ্খজোড়া নিমিষেই উধাও পুরুটা দেশই হলো শশ্মান রণক্ষেত্র...
(আগরতলা ২১/০৬/২০২১) আমাদের পাড়ায় এলো করোনার ডাক্তার, ভাব দেখে মনে হয় জানা আছে সবতার | রুগি এলে বলে তারে করোনাতো রোগ নয়, ওটা হলো সাধারণ লোকে মিছে পায় ভয় | ঠিক আছে ঠিক আছে করি আমি চেষ্টা, আধাঘন্টা উঠবস, বুকডন দশটা | গলা থেকে হাতে নেয় ধরে সেটি কপালে, বলে বেটা ধুর ছাই করোনা তোর কে বলে ? রুগি বলে তা না হলে আসে কেনো কাশট...
বেলুড় মঠের দুর্গা প্রতিমা দশমীর দিনই ভাসান হয়। সেই ভাসান দেখতে হাজার হাজার মানুষ ভিড় করেন। ভিড় সামাল দেওয়ার জন্য বাঁশ দিয়ে পুরো চত্বর ঘিরে দেওয়া হয়। লাগানো হয় প্রচুর ফ্লাড লাইট। মোতায়েন থাকে সাদা পোশাকের অজস্র পুলিশ। যেতে একটু দেরি হয়ে যাওয়ায় সেই ভিড়ের একেবারে পেছনে গিয়ে দাঁড়াল রিচা, প্রসিত আর তাদের দশ বছরের একমাত্র মেয়ে চিকি। প্রসিত ছবি...
মিঠুর চপের দোকানে বেশ ভিড় বিকেল বেলায়। ওর দোকানের চপের খদ্দের আট থেকে আশি। বিশেষতঃ ক্যাপসিকামের চপের চাহিদা খুব। ষ্টেশনের পাশেই দোকান।বেশ ব্যস্ত জায়গা। সন্ধ্যায় নিত্যযাত্রীরা ট্রেন থেকে নেমে টিফিনের উপকরণ মিঠুর দোকান থেকেই নিয়ে যায়।নিজেই উৎপাদক, নিজেই বিক্রেতা। ভালো জিনিসের আশায় খদ্দেরদেরও বিরক্তি নেই। সন্ধে আটটায় দোকান বন্ধ করে বাড়ি যা...
মুছাফির জাগো কান পেতে শুনো মুয়াজ্জিন হাকিছে ওই ভুলে কি গেছো মৃত্যু ভয়, ঘুমে অচেতন কতো রবে আর শিয়রে তোমার জানো কে জেগে রয় ? বন্দেগী যাহার করবে বলে এসেছো এখানে দুই দিনের কথা বলে হে ক্ষনিকের অথিতি, সে কথা কি তোমার মনে নেই মোটেও বেলা যে গেলো ভেবেছো কি হবে তোমার গতি ? পথ যে ক্রমে ঘনায়ে এলো সামনে যে ঘোর অন্ধকার, ওরে পপিস্...
(আগরতলা ১৯/০৬/২০২১) মায়ের কাছে সকল সন্তান খোকা হয়েই থাকে, হউক যতই জ্বজ বেরিস্টার খোকা বলেই ডাকে | মা মানে একটা আকাশ নানান রঙে আঁকা, মা মানেই পৃথিবীটা বুক জুড়িয়ে থাকা | মা মানেই শান্ত নদী মৃদু মৃদু ঢেউ, মা মানে আসতে আনা বিপদ নামের কেউ | মা হলো একটাই চাঁদ দেয় ছড়িয়ে আলো, মায়ের কাছে সব কিছু এক ফর্সা কিবা কালো | ...
বাবা তুমি আমার পরিচয় তোমার বড় হয়েছি আমি। তোমায় ছাড়া পরিচয় হীন আমি। তুমি বিনে অন্ধকার জগতে আমি। তুমি ভরসা তুমি আমার আশা তুমি আমার ঠিকানা। তুমি না থাকিলে মেনে নিবেনা জগতে। আমার অস্তিত্বে তুমি অহংকার তোমারই। মিথ্যার মরি চিকা নাচানাচি করি আমি। বাবা আমার তোমার পরিচয়ে বড় হয়েছি এ ধরায় আমি। তুমি বিনে আমি নেই পৃথিবীর ঠ...
১. আগাধ সম্ভ্রম আর গভীর লজ্জা বিচারকক্ষ হাতুড়ির শ্বাসাঘাতে সংবিধান ছেড়ে হাইফেন দরজায় দিনের মাঝে শপথ দুই হাতে। ২. আদালত! তুমি তো বড়ো সময় হাসি, কান্নার রচনা পটভূমি ছেদ, যতির অভিনব আয়োজন আলাপচারিতা বেকসুর আসামী। ৩. ভিন্ন স্বাদ আনে খবর পাতা পুরস্কার মেলে উলঙ্গ ধারায় বিচার হয়; নির্দোষী প্রমাণিত সময় ঘুরে নোটিশ ওরা ধরায়। ৪. কবি...
(আগরতলা ১৯/০৬/২০২১) বৃষ্টি পরে টাপুর টুপুর ঠিক যেনোরে খুকির নুপুর বাজে টিনের চালে, গুনগুনিয়ে কে যেনোরে ছড়া কাটে পড়ার ঘরে নাচের তালে তালে  | তাকিয়ে দেখি খুকুমনি জানলা খুলে একটুখানি মাঠের দিকে চেয়ে, অবাক চোখে তাকিয়ে দেখে হলদে পাখি বৃষ্টি মেখে ব্যস্ত ডানায় যাচ্ছে উড়ে ধেয়ে  | ফিঙে দুটি ডালে বসে নানান সুরে গায় আর হাসে আপন মনে ভ...
গাজীপুরের সোনার ছেলে, তিনি আমার বাবা তাঁর কথায়, চিন্তায়- চেতনায় কেবল অগ্রযাত্রা। পেশায় তিনি শিক্ষক, তবে লেখক ও কবি তিনি সাংবাদিক, সংগঠক, গাজীপুরের রবি। তিনি সমাজসেবক, নানা সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা তিনি কবিসংসদ বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা। তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন, মসজিদ, স্কুল, মাদ্রাসা আজীবন মানবসেবা করা তাঁর প্রত্যাশা। তাঁকে ভালোবাসে...
ঢাকা থেকে কিছু দূরে, জন্ম তাঁর গাজীপুরে, ঋণী আমি তাঁরই তরে। তিনি আমার বাবা, ঢাকায় তাঁর বাসা, আমার জীবনের আশা। পেশা তাঁর শিক্ষকতা নীতি তাঁর সততা, তিনি আমার কবিতা। নাম তাঁর গনি, ভাল মানুষ তিনি, উত্তম তাঁর স্বভাবখানি। কবিতাঃ ডা. মোঃ মিজানুর রহমান চিকিৎসক, পপুলর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ঢাকা।
কি করে মানুষেরা রং বদলায়, আবুলের মাথা ব্যাথা সেই চিন্তায় | পাশে বসে কালু বলে সেটা তো সহজ, এতো বড় হলি তুই নাই কিরে মগজ ? একা একা ঘরে বসে দিবি রিহারসেল, তুইও দেখিস পারবি ভালো হবিনাতো ফেল | চোখের চামড়া নিবি উপরের দিকে, যাচ্ছে তাই বলে নিবি আসে যাই মুখে | এর পরে দেখিস তোর বেড়ে গেছে দাম, পত্রিকার পাতায় তোর উঠে গেছে ...
(আগরতলা ১৩/০৬/২০২১) জামাইবাবুর কামাই ভালো শশুরবাড়ি গেলে, এক প্রণামে হাজার টাকা হরহামেশাই মিলে। সাথে আরো কতো কিযে জানেনা সে কভুও নিজে, ওই দিকে যে শশুর মশাইর ঘামে কপাল ভিজে। আসলে জামাই মুরগি খাসি জানে ওদের হবে ফাঁসি বাঁচার পথ বন্ধ হবে সাথে, জামাই মানে যম রাজার ভাই খুশি রাখতে খোয়ার সাফাই হাস মুরগি ধরে এনে বিচার করে রাতে। থা...
আমি বাংলাদেশের মেয়ে তাঁরাই তাঁরাই ভরিয়ে রাখি বাংলার আকাশ ছেয়ে গন্ধে আমি পুষ্প কানন মিষ্টি সবার চেয়ে। ভোরের আলোয় সুলে ঢেলে দিই পাখির কন্ঠে গেয়ে আমি বাংলাদেশের মেয়ে স্বপ্ন কুড়িয়ে সংগে আসি সংগতি সম পেয়ে। নিরঝরা আমি শ্রাবণের বারি কখনোই নয় থেমে ঝর ঝর ঝর আশ্বিণে আসি নেমে আমি এই বাংলার মেয়ে লাল সবুজে মাতিয়ে রাখি। উনার আকাশ বে...
সুদ আর ঘুষের টাকায় হালাল খাবার করি খোঁজ। পরের বাড়ি দখল করে স্বর্গের স্বপ্ন দেখি রোজ। সৎকর্মের ধার ধারি না অন্যকে দেই উপদেশ। কাজে না হোক কথার বেলা আমি বাবু হলাম বেশ। বোকাসোকা ভাবটা আমার আগে পিছে কারো নাই। সরল ভেবে পরের মাথায় কাঁঠাল ভেঙ্গে আমি খাই। সাদা সিদে ভাবটা আমার নেই কো বাবু কোন গুন। জন্ম থেকেই শিখছি শুধু কাটা ঘাঁয়ে দিতে নুন...
(আগরতলা ১০/০৬/২০২১) আচ্ছা বলুন রাগ না করে বুকের মাঝে হাতটি ধরে ঘুষ কি খাবার জিনিস? ছাগল ও যা নেয়না মুখে হয়না রুচি যতই ভুখে মানুষ পেলেই ফিনিস| তাইলে ঘুষখোরেরা ছাগল চেয়েও খারাপ বলতে কেনো দ্বিধা এতো লাগে? ছাগল চাইতেও হীন প্রাণী যারা মানুষ বললে ছাগলই লজ্জা পাবে| ঘুষের টাকায় বাড়ি গাড়ি যখন তখন বিদেশ পাড়ি এই সমাজে অনেক...
(আগরতলা ০৯/০৬/২০২১) পূঁজি তোমার অনেক ক্ষমতা, পৃথিবীতে তোমারই পিছু ধরে বন্দনা করে কোটি কোটি মানুষ দেবী ও দেবতা | রাজা উজির নাজির এক পায়ে সব থাকে খাড়া ঠোকে তোমাকে হাজারো সেলাম , পূঁজি সারা পৃথিটাই আজ হয়ে আছে তোমার গোলাম| পূঁজি তুমি বড়োর চাইতেও অনেক বড়ো তোমার ভয়ে বিশ্ব জড়োসড়ো তোমার ছোঁয়ায় চোর বনে যায় সাধু, তোমার গন্...
জানিনা কি লিখবো বা কি বা বলবো, এই ভাবে ভেবে ভেবে আর কি ই বা করবো? স্বপ্ন নাকি গল্প সুর নাকি ছন্দ, কল্পনা জল্পনা নাকি কোনো রম্যতা? সত্য কি মিথ্যা না কি কোনো অভিজ্ঞতা, সুখ (ক) রতা, মুখরতা কি আনন্দ কি বেদনা, তাতো আমি জানিনা, ভুল নাকি সঠিকতা নাকি কোনো ধারণা, ভালোবাসা ভালোলাগা সব ই যেনো ভ্রান্তিতা। লিখতে আমি পারি না নই আমি লেখি...
(আগরতলা ০৮/০৬/২০২১) তোমার চোখের নোনা জলে আমার স্বপ্ন ভাসিয়ে দিলে অনেক দূরের গহীন সাগর পানে, বন্ধুগো তুই সর্বনাশা আমার মনের সকল আশা ভেসে গেছে কেউনা সেটি জানে | এমন করে এ অবেলায় গাইলে ভাসান নিজের গলায় সে সুর তোমার আজো শুনি আমি, রাগ অনুরাগ মিশিয়ে তাতে কানে আসে রাতবিরাতে পাথর চাপা কষ্ট ভীষণ দামি | ওহে নিঠুর করলে একি কথা তোমা...
(আগরতলা ০৭/০৬/২০২১) ডাকাত বলে ওই চোর বেটা চুরি করিস তুই মনটা এতো রাখিস কেনো নিচু ? চোর বলে ওহে গুরু করবো কি আর লাগলে খুদা থাকেনা মনে কিছু | আমরা শুধুই চুরি করি ভয়ে ও মরি পরলে ধরা প্রাণ বাঁচানো দায়, আপনারাতো দিনদুপুরে সব কিছুই নেন ঝেড়েঝুরে সকল সময় জ্ঞাতসারে সব কেড়ে নেন এক কলমের ঘায় | কর্মফেরে পরলে ধরা আমার হবে জীবন ...
বাংলা মানে রক্ত ঝড়া মুক্ত বলা সহজ ভাবে বুঝতে পারা বাঙালির সুর। বাংলা মানে নব উদ্ভব সংগ্রাম করা জীবন দানে নাম না জানা বায়ান্নর ধড়। বাংলা মানে বিশ্ব জানা রক্ত মাখা অজস্র প্রাণের বিনিময় অর্জিত নাম। বাংলা মানে স্বয়ংক্রিয় ভাবে বলা দ্বিধাহীন ভাবে পথ চলা সবার সুনাম। বাংলা মানে মার্চের ভাষণ মুক্তির সংগ্রাম প্রতিবাদী জনগণের ...
(আগরতলা ০৬/০৬/২০২১) তুমি সাধু আমি আজ চোর বটে, তুমি দেশ খাও আমি খাই কাজ শেষে যদি একটা রুটি জোটে | তোমার আছে বেংক আছে ট্যাঙ্ক গোলাবারুদ কতো, আমার আছে লাঠি বেশ পরিপাটি খেটে খাওয়া মানুষের হাত অগণিত | তুমি খাও দেশ তোমারে পাহারা দেয় কুকুর, আমার আছে মুগুর আমি রাজপথ চিনি প্রাণ দিতে জানি আমার নেই ভগবান কিংবা মাটি ও কাঠের ঠ...
(আগরতলা ০৫/০৬/২০২১) তোমার অপেক্ষায় থেকে থেকে আমাদের দরজার কাঠের চৌকাঠে ধরেছে ঘুনে, তোমার মায়াবী কোমল স্পর্শ পেতে বহুদিন ধরে চলেছি প্রতীক্ষার দিন গুনে| তুমি আসবে বলে টইটুম্বুর বর্ষার জল পশ্চিমের মাঠে দৌড়েছিল ছলছল, তুমি আসবে বলে আছিনু পথ চেয়ে গুলুই এ বসে মাঝি গেছে গান গেয়ে| তুমি আসবে বলে ছাদে অনেক গুলি টবে আপন মাধুরী দিয়ে সেজেছি...
রাজনীতি হলো ক্ষেতের মূলা জনগণে নিজেই করে চাষ, লোভ দেখিয়ে ঘুরিয়ে পরে নেতা এসে হাতে ধরে সময়মতো দেয় সবারে বাঁশ  | সবাই বলে পেলাম পেলাম ওহঃ আহারে গেলাম গেলাম কয়না কারো কাছে, পরান টা তো গেলো বুঝি মূলা পেলাম সোজাসুজি মুখের বদল মূলা গেছে পাছে  | কয়দিন পরে মুরগি যেমন রাতকানা রোগ হলে তেমন ঝিমিয়ে ঝিমিয়ে চলে, হঠাৎ একদিন খবর আসে জনগ...
সাধুর নগরে বেশ্যা মরেছে পাপের হয়েছে শেষ, বেশ্যার লাশ হবে না দাফন এইটা সাধুর দেশ। জীবিত বেশ্যা ভোগে তো আচ্ছা মরিলেই যত দোষ, দাফন কাফন হবে না এখান সবে করে ফোঁসফোঁস। বেশ্যা সে তো ছিল খাস মাল, তোদের রাতের রানী, দিনের বেলায় ভুরু কোচকাও মরিলে দাও না পানি। সাধু সুনামের ভেক ধরিয়া দেখালি দারুন খেলা, মুখোশ তোদের খুলবে অচিরে, আসবে তোদের বেলা। রাত...
(আগরতলা ০১/০৬/২০২১) এখন আর লাইট পোস্টের কি দরকার আলো আর আঁধার সবকিছুইতো একাকার হয়ে গেছে, পথচারীহীন এ রাজপথ নিস্তব্ধ গাড়ির হর্ন কিংবা রিক্সার বেল কিছুই তো শুনছিনা এখন| হকার দেবদাস এখন আর গেইটে এসে কলিং বেল টিপেনা সময়টা ভীষণ ছন্দহীন গদ্যময় হয়ে আছে, ছাদে বসে রোজকার চায়ের আড্ডা এখন আর জমে উঠেনা গল্পে কেমন জানি নিরানন্দ দিন এসেছে আম...
কারো ঘরে দুঃখে ভরা কারো ঘরে হাসি কারো ঘরে ধনে ভরা কারো ঘরে বাসি। নিজের খাবার পরের দিয়ে অনেকে রয় সুখে কেউবা আবার লুটে নিয়ে সাহস যোগায় বুকে। দিনে-রাতে কর্ম করে জোটে নাতো খাবার শীতাতপে বসে থাকে পৃথিবী হয় তাহার। সারাদিনের কর্মে আনা দুমুঠো ডাল খাবার সেখানেও তৃপ্তি পায় না কতজন দেয় দাবাড়। চলে বলে কয় না কিছু নিজের ক...
(আগরতলা ২৯/০৫/২০২১) এই মহামারী যাবেই একদিন শুধুই রয়ে যাবে ক্ষত আর ক্ষতি, রয়ে যাবে স্বজন হারানোর শোকগাঁথা কষ্টের আগুনে দগ্ধ স্মৃতি। খড়ের বেড়ার এক কোনে রয়ে যাবে স্বজনের ছবি অনেকটাই অস্পষ্ট ছিন্নভিন্ন, ভাঙ্গা তানপুরার তার মাঝে মাঝে কেঁদে উঠবে নীরবে হৃদয়ে থেকে যাবে এ সময়ের কথা অনেকটাই বিবর্ণ। এই মহামারী কঠিন কুঠারের আঘাত হেনেছ...
আমরা সবাই মিলেমিশে সবার বাড়ী যাই সবার সাথে মিলেমিশে সবাই সাথে খাই। আমার বাড়ীর পিঠে পায়েস পাশের বাড়ীর দই দাদীর কাছে মুড়ি ছিল চাচীর ছিল খই। মায়ের হাতের মিষ্টি রান্না ভিন্ন রকম স্বাদ সবাই মিলে ধুয়ে খেয়ে কেউ থাকেনা বাদ। হরেক রকম খাবার খেয়ে সবাই মজা পায় খেজুর গুড়ে চিড়া ভিজে দাদু চিবায় খায়। পারাপরশি আত্মীয় স্বজ...
(আগরতলা ২৭/০৫/২০২১) তোমার সাথে আমার যদি আবার কভু হয়গো দেখা, দেখবো চেয়ে সেই সে তুমি মনমানসীর রূপটি আঁকা | আবার যদি দীঘির ঘাটে কলসি কাকে আসো তুমি, দৌড়ে এসে চুপটি করে যাবো তোমার ললাট চুমি | হয়তো তখন আলতো করে ঘোমটা খুলে ঈষৎ ফাঁকে, থাকবে চেয়ে সেই কি আমি কাছে নিতে চাইতে যাকে | দু চোখ বেয়ে অশ্রু ধারা হয়তো তখন পরবে লুটে, তৃষি...
সবি মিলে ধরা চলে রবে করে দান মানুষ শুধু কর্ম করে চলে বহমান। চাহিলে পারে না কিছু আছে যা তকদির যত তুমি খাবে ভরে হবে নাতো বীর। গায়ের জোরে সাহস করে বীরের দর্পে চলে সফলতা তারি হাতে উপস্থাপন হলে। আলস্যে পাবে না কিছু সেও সবার জানা কর্মে এগিয়ে তবে সে পাওয়ার সম্ভাবনা।। ফুলবাড়ী, কুড়িগ্রাম।
তোমার হাতের বাজুতে বিশ্ব দাঁড়িয়ে, দাঁড়িয়ে সভ্যতা, তুমি শ্রমিক, তুমি সাহসী, তুমিই মহাবিশ্বের বিজয়ী বীর জনতা। তোমার ঘামেই অট্টালিকা, তোমার ঘামেতেই সকল নির্মাণ, তোমার শরীরের রক্ত ঘামেই বিশ্ব অর্থনীতির চাকা চলমান। নতজানু হয়ে কুর্নিশ করি সালাম তোমায় হে শ্রমদেব, তোমাদের শ্রম বিলিয়ে দিয়েই সদা আমাদেরে করো মহাদেব। তোমাদের রক্ত শুষে খায় বুর্জোয়া...
যুদ্ধে পিতামাতাহীন সকল শিশুদের জন্য (আগরতলা ২৬/০৫/২০২১) মানুষের বিরুদ্ধে মানুষের এমন নির্মমতা ভাবতেও অবাক লাগে, মাঝে মাঝে মনে হয় কালের স্রোতে আমরা হয়তো হিংস্র প্রাণীতে রূপান্তরিত হয়ে গেছি  | নিরপরাধ শিশুরা যখন মাতাপিতার লাশের পাশে বসে কাঁদে, তখনো কি আমাদের বিবেক তাড়িত হয়না ? অসহায় এ অবুঝদের কি দিয়ে সান্তনা দেবে ? কারো কাছে কি ...
জেগে দেখি সবই মিথ্যা ব্যার্থতাকে করেছি হত্যা আমরা বলি স্বপ্ন তারে, আলোকিত সবই সাচ্ছন্দ্য আধারে তারই মাঝে পাই যে ভয় বাস্তবে যদি কিছু হয়। খোলা চোখে স্বপ্নের ঝাকে রঙ্গিন এই জীবনটা আঁকে নির্ঘুম স্বপ্নের সাথে সাফল্য ফাঁদটি পাতে দিবা স্বপ্নকে আঁকড়ে ধরে গড়বো জীবন ব্যার্থতাকে জয় -করে।
কিছু প্রণয়ে শীর্ষে তোলে বিফলতা নাই কোন ব্যার্থে হৃদয় নিংড়ানো অন্তিম আশা সবে করে শুধু নিজ স্বার্থে। মুখ পানে আর নাহি রয় চেয়ে আত্মীয়তার বন্ধনে বাঁধা হাসিল করে শুধু নিজ তৃপ্তি সকলের মুখে হয়ে ধাঁধা। প্রতিদিন করে একই ভাবনা নিজের চেহারা নিজেই দেখে কারো দুঃখে তো মন গলে না নিজ ভাবনা থাকবে মহাসুখে। প্রতিবেশী আর পারাপরশি ক...
(আগরতলা ১৯/০৫/২০২১ বাংলাদেশ এর প্রথম শ্রেণীর দৈনিক প্রথম আলোর বরিষ্ঠ সাংবাদিক রুজিনাকে নিবেদিত) আপনারা কি একজন রুজিনার কথা শুনেছেন? কালভদ্রে তো নয়ই হয়তো কষ্মিন কালেও না। রাজভান্ডার লুট করার জানান দিতে গিয়ে লুটেরার রক্ত চক্ষুর রুদ্ররোষে এখন লোহার খাঁচায় বন্দীনি, একজন নির্ভীক নির্লোভ সংবাদকর্মী সাহসিকতার পরিচয় দিতে গিয়ে লাঞ্চিত হলো...
(আগরতলা ১৯/০৫/২০২১) এখানে এখন আর সুখ নাই আগের মতো, শুধুই অবিরত কষ্টের কঠিন হাতুড়ি হানে আঘাত, এখানে মৃত্যুরা এখন হাত ছানি দেয় অকস্মাৎ। এখানে এখন  প্রাণের উচ্ছাস নেই ভেসে গেছে সবি নোনা জলে থেমে গেছে কোলাহল কলরব, এখানে এখন মৃত্যু মেতে রয় চারদিকে মৃত্যুর উৎসব। মানুষ এখানে হয়ে গেছে শোকে কঠিন পাথরের মতো, এখানে এখন মৃত্যুর ছোবল...
প্রজাপতির ইচ্ছে হলো মেললো রঙ্গিন ডানা, উড়ে গিয়ে বসবে কোথায় নেই যে তার জানা এখানে ওখানে বসতে পারে যখন যেখানে ইচ্ছে। রঙ্গিন পাখা ঝাপটে চলে আনন্দে দিন কাটছে, পাপড়ির মতো দেখতে সে যে ফুলের উপর বসে গায়ের উপরেও বসতে পারে যদি কখনো ভালোবাসে। রুপান্তরে গাইবে তারা নানান রকম নতি, দিনটি সবার কাটবে ভালো যদ...
(আগরতলা ১৬/০৫/২০২১) ডেঙ্গু হাসিয়া কয় আহারে করোনা, জমিদারি ছিলো আমার সেটি তোর জানা | আমার ভয়ে ডোবা নালা হলো প্রায় শেষ, ভেবে স্থির করেছিলাম যাবো অন্য দেশ | এর ফাঁকে তুই এসে লাগালি ধামাকা, মান সন্মান সব গেলো কপালের লেখা | করোনা মুচকি হাসে বলে ডেঙ্গু ভাই, আমাদের ভয়ে কাঁপে সারা জগৎটাই | আসো আমরা দুই জনে থাকি চিরকাল, ...
সত্যের জোড়ে হাসতে পারি সততায় বেশ চলি ন্যায়ের পথে হাটতে পারি সত্য কথা বলি। সকলের মাঝে সরল ভাবে আপন হয়ে থাকি নিজের যত সাধ্য আছে বিলিয়ে দিয়ে রাখি। পরের ধনে না জুড়ায় মন নিজের মতো গড়ি আলস্য নয় কারো কাজে মিলেমিশে করি। সবার মাঝে সবকিছুতে হয়না সাহস শক্তি নিজের মতো থাকলে সবাই বাড়ে সাহস ভক্তি।
(আগরতলা ০৭/০৫/২০২১) সহসাই ক্ষান্ত হবে খেলা ওরে রাখাল বাজিয়ে বাঁশি হাসি খুশি আর কাটাসনে বেলা | একটু পরেই বিকেল হবে গোঁধুলীতে ছেয়ে যাবে আঁধার এসে হাত মেলাবে ডেকে নেবে ঘরে, ওরে অবোধ দেখনা চেয়ে ওই সেজেছে যমের মেয়ে আঁচল দিয়ে বাধবে তোরে হবি যখন কায়া | খেলার মাঠে বেঘোর খেলায় ভালোমন্দ হেলায় হেলায় হিসেব নিকেশ সব হয়েছে মাটি, ভাবি...
(আগরতলা ০৭/০৫/২০২১) গণতন্ত্রের অর্থ আমি বুঝিনা গণতন্ত্রের নামে আজ যে প্রাণের বিনাশ চলছে, কিশোরী ধর্ষণ, গুম, হত্যা প্রতিপক্ষের বাড়িঘর জ্বালিয়ে চিতা বানানোর যে ধংশাত্মক উৎসবে মেতে উঠেছে অমানুষেরা তাতে আমি সংকিত | আচ্ছা বলুনতো এর নাম কি গণতন্ত্র ? জিতে গেলে এতো শক্তি কোথা হতে আসে ? নারী সম্ভ্রম লুন্ঠনের সাথে ভোটের কি সম্পর্ক ? ...
(আগরতলা ০৫/০৫/২০২১) জাত গেলো জাত গেলো বলে আজকে যারা আওয়াজ করো, জাত কি জিনিস খায় না মাখে তোমরা কি তা বলতে পারো ? জাতের নামে বজ্জাতি সব ভেলকি বাজি জাদুর কাঠি, জাতের কথায় বজ্জাতেরা ভাঙ্গলো ঘরের ঘটি বাটি | জাতের বড়াই করছে যারা তারাই অনেকে ব্যাশার ঘরে, মুখ লুকিয়ে দিবা রাতি খেয়েদেয়ে ফুর্তি করে | তখন কিন্তু যায়নাকো জাত এক হয়ে ...
(আগরতলা ০৪/০৫/২০২১) এ সমাজ গুঁড়িয়ে দিয়ে নতুন সমাজ গড়তে হবে, না হয় দেখো যখন তখন বেঘোরে মরবে তবে | বুঝতে কি পাও পূঁজিপতি সবই তোমার নিচ্ছে কেড়ে? হাতিয়ে সব করছে বেহাত সাধু সেজে ভর দুপুরে | তুমি শিশু খুশি থাকো হাতে পেলে মুড়কি মোয়া, ললিপপে তুষ্ট থেকে দু'হাত তুলে করছো দোয়া | তোমার পায়ে শিকল আঁটা কখনো কি দেখছো চেয়ে ? পা বাড়াল...
রমজান মাস শেষে ঈদ এসেছে ফিরে, করোনাকালে বিশ্ব জুড়ে লোকজন সব ঘরে। কাছে নেই আত্মীয়-স্বজন নেই কোন মহা-আয়োজন, নতুন জামা-জুতো হয়নি কেনা ঈদ যেন অজানা অচেনা। মাঠে নেই জামাতে নামাজ করোনার ভয়ে আতঙ্কিত সমাজ, দেশে দেশে করোনার যাতনা আকালের কালে ঈদ জমেনা। নেই কোলাকুলি মিষ্টিমধুর বুলি করোনা তুমি চলে যাও আজি, ঈদ আনন্দ ঘরে ঘরে বারবার আসুক ফিরে।...
ফুল বাগানে ফুলের উপর প্রজাপতি নাচে ফড়িং এসে নাচ দেখে চেয়ে চেয়ে আছে। মৌমাছিরা ফুলের মধু খাওয়ার আশায় ঘোরে প্রজাপতির নাচ দেখে আছে চুপটি করে। জোনাকিরা ঘুমে ছিল নাচ দেখতে উঠে ফুল বাগানে প্রজাপতি মনের তালে নাচে।
(আগরতলা ২৭/০৪/২০২১) কি এক অভিশপ্ত দিন এসেছে সম্প্রতি মানুষে মানুষে দূরত্ব বাড়িয়ে অতিক্রান্ত করে চলেছি কঠিন সময়, অভুক্ত মানুষেরাও গৃহবন্দী রাস্তাঘাট ফাঁকা সুনসান | প্রতিদিন প্রতিক্ষনে হারিয়ে যাচ্ছে চেনামুখ, মৃত্যুর ফরমান হাতে বদ্ধখাম নিয়ে ঘুরে নিষ্ঠুর নিয়তি, আতংকিত লোকালয় গ্রাম গঞ্জ বন্দর সমস্ত বসতি জুড়ে এখন সংকিত সময়ের ঘড়ি এ...
কাজ নেই, কর্ম নেই সারাবেলা ঘুরি, কানের কানের ছিদ্রে কংকন লাগাই, হাতে লাগাই চুড়ি। জনতার সাথে নেই যোগাযোগ, ব্যানারে ফেষ্টুনে সৌরভ, গাছের ডালে হাত নাড়িয়া বাড়াই নিজের গৌরব। চাল চুলো নেই ঘরে, শুধু ছেঁড়া কাঁথা, ঘুনে ধরা এ সমাজে আমিই যে নেতা। ধান্ধার টাকায় মোটর সাইকেল ভো ভৌ শব্দ সকাল থেকেই চলা শুরু নিশি রাত অব্দ। সমাজ পতিরা ঘুমিয়ে আছে, অলস ...
কামাল আতাতুর্ক মিসেলঃ একজন উপন্যাসিক চাইলে কি না করতে পারেন উপন্যাসের অভ্যন্তরে। তার প্রমাণ হৃদি’ফু উপন্যাস ও তানভীর আলাদিন। ঘটনার পর ঘটনা সাজিয়ে ঘটনার মধ্যে অঘটন বাঁধিয়ে; উপন্যাসের চরিত্রের মধ্যে মিলন ও বিচ্ছেদ এনে পাঠক মনে তিনি যে আলোড়ন তুলেছেন তা বিস্ময়ের সৃষ্টি করে। সামাজিক প্রথার বাইরে গিয়ে ভালোবাসাকে পুঁজি করে এ উপন্যাসের নির্মাণ নিখুঁত, ন...
(আগরতলা ২৩/০৪/২০২১) হে অতীত লহো বিদায় আজ এ রাতে, জীর্ণ বেদনার শীর্ণ জঞ্জাল নাও সাথে | আগামিটা সবার মঙ্গল করোহে পূর্ন করোহে আশা, অতীত ব্যাথা চূর্ণ করোহে ছিলো যতো সর্বনাশা | আজিকে প্রভাতে বরণ করিহে বন্দনা করি নতুনের, নিরানন্দ প্রাণে আনন্দ দাওহে কালিমা ঘুচাও সকলের |
ক‌রোনার ঐ আস্ফল‌নে দিনটা মো‌দের যা‌চ্ছে কেমন? ক‌রোনা ঐ কা‌ন্ডে মো‌দের দিনযাপ‌নে খা‌চ্ছি খা‌বি! মামুনুল হক গ্রেফতার হয় রাষ্ট্র তখন কর‌ছে টা কি? লকডাউন শ্রমজী‌বির ঘামশুকি‌য়ে, দমফু‌রি‌য়ে দি‌চ্ছে গা‌লি- ক‌রোনা নয় ভাত না খে‌য়েই দল‌বে‌ধে সব মর‌বো এবার। লকডাউ‌নের বা‌জি‌য়ে বা‌রো হাট-বাজা‌রে লু‌কোচু‌রি পশরা খোলে হরহা‌মেশা। ভার্চুয়া‌লে মজা ভারী...
থমথমে এক মেঘাছন্ন পরিবেশ থমকে আছে গোটা বাংলাদেশ হৃদয় থেকে হারিয়ে যাচ্ছে মায়া চলছে মানুষ চিনে না কায়া। নিজের জন্য নিজেই লড়ে বিপদ আসলে যায় সরে। পাশের জনে কতো আকুলতা। আছে মানুষ নাই মানবতা। সাহস পেয়ে করছে অন্যায় বলতে তো আর কেউই না চায়। প্রতিনিয়ত বাড়ছে দুর্নীতি আমরা বিপাকে নাই উন্নতি, অবিচার আর শোষণ শাসন চলছে অবিরাম হচ্ছে অনিয়ম...
(আগরতলা ১৩/০৪/২০২১) চিলের পিঠে কাক উঠেছে বিড়ালের পিঠে ইঁদুর, সাপের ভয়ে নেউল পালায় চোরের ভয়ে কুকুর | বাঘে মহিষে ভাব জমেছে এক ঘাটে খায় জল, চোর পুলিশে বসে বসে নাড়ে কাঠি কল | মন্দ লোকে চেয়ারে বসে শাসন করে দেশ, চামচারা সব কীর্তন করে বেশ কর্তা বেশ | বাদ বাকিরা আঙ্গুল চোষে খাবার নাই তার পেটে, বানরের হাতে পিঠার হিসাব ...
আমরা চলি সবাই চলে চলে বনের হাতি আকাশ ডাকে মেঘের ফাঁকে হাতে আমার ছাতি। বৃষ্টি এলে বনের পশু থাকবে কেমন করে আমার কাছে ছাতা আছে আছি এখন ঘরে। ঘুমায় তারা কেমন করে আমরা ঘুমাই খাটে ঠান্ডা এলে গায়ে দেয় কি কি গায় দিয়ে হাটে?
(আগরতলা ১২/০৪/২০২১) সিনেমাতে টান লেগেছে নাটক এখন মন্দা, রাজনীতিটা বেশ জমেছে , সকাল দুপুর সন্ধ্যা | টলি বলো বলি বলো পরকীয়ার হাট, সেলিব্রেটির নাচা গানা প্রেম পিরিতির পাঠ | এ সব এখন খায়না বাজার মানুষ গেছে বুঝে, অভিনেতা অভিনেত্রী অন্য পথ আজ খুঁজে | সকল পথের সহজ পথ রাজনীতির রাজপথে হাঁটা, আসতে পায় ফুলের মালা যাবার সময় ঝাঁ...
আমার কাছে সবই ভালো কাক, কোকিল আর চাঁদ আমরা সবাই মিলিয়ে রবো থাকবে না অপরাধ। হাতে হাতে হাত মিলিয়ে বন্ধু রবো চিরকাল আপন ভেবে চলব সবাই এই হোক মোর তালে তাল। আমার চলায় ভরিয়ে দিবো সবার মুখে হাসি আমায় দেখে বলবে সবাই বড্ড ভালোবাসি।
(আগরতলা ০৯/০৪/২০২১) বাপ দাদার ধন বেহেস্তটা স্বর্গটাও ছিলো দাদার, মূর্খরা তাই নিচ্ছে কিনে জ্ঞানটাও ঠিকই গাঁধার | পাপ করে পাপমোচন কেমন করে হয় ? ভন্ড যতো অংক বুঝায় নয়ের পরে ছয় | নয় ছয়ের গোলকধাঁধা গাঁধায় কি আর বুঝে ? ঘোলা জলে মুখ ডুবিয়ে তেষ্টা মিটায় নিজে | ভাবটা দেখে হয়যে মনে বেহেস্ত তার কেনা, দিনের বেলায় চাঁদ দেখে যেমন ...
(আগরতলা ০৯/০৪/২০২১) কাঁচের গ্লাস ভাঙছে শিশু বুড়ো ভাঙছে দেশ, ধর্ম দিয়ে ভাইয়ে ভাইয়ে লাগায় যুদ্ধ ক্লেশ | কতো টুকরা করলে ও ভাই একটু গুনে দেখো, কি লাভ তুমি হাতে পেলে খাতায় হিসেব লেখো | জমি জিরান টুকরো করে উঠুন জুড়ে বেড়া, পা বাড়ালেই যমের লাঠি মাথার উপর খাড়া | বাপের ভিটেয় ডাকছে ঘুঘু সব যে বেহাত হলো, ভাইয়ে ভাইয়ে গল...
(আগরতলা ০৭/০৪/2০২১ শুধু এতটুকু সুখের সন্ধানে অনেক হেটেছি আমি খুঁজেছি এতটুকু শীতল সুনিবিড় ছায়া, কখনো বৃক্ষের তলে কখনো নদীর তীরে খানিকটা থেমে দেখেছি কি মহিমায় প্রাণ ভরে বিলায় অকৃত্রিম মায়া | অনেক হেটেছি আমি অজানা অচেনা পথ ধরে সূর্যাস্তের বিষণ্ণ বিকেলে দেখেছি পাখিদের ঘরে ফেরার তাগাদা বনছায়, বালি হাঁস, পানকৌড়ির অস্তরাগ নিবেদনে...
(আগরতলা ০৭/০৪/২০২১) তপন কেরানি গাঁয়ের এক কোনে শতবর্ষি বট গাছের এক পাশে প্রকৃতিকে কাছে নিয়ে গড়েছে নিবিড় নিবাস, বুনো হাঁস, পানকৌড়ি আর ডাহুকেরা তার বড্ড আপন, হাজারো পাখির কণ্ঠ তার সমস্ত অভাব ভুলিয়ে রাখে আপন আদরে | খেয়ে না খেয়ে আছে নিকট বসতির কারো দৃষ্টি পরেনা তার দৈনন্দিন জীবনযাত্রার দিকে, ফুটফুটে দুই শিশু ছোট্ট উঠুনে খেলে জীর্ণ ব...
অনেক খানি বদলে যাবো নিজের মত করে, একলা হয়ে সবার থেকে যাবো নাহয় সরে। মানুষগুলোর বিবেক নেই শুধুই দোষ খোঁজে, নেইতো কেউ খুব যতনে আমায় একটু বোঝে। চলার পথে কতশত দিচ্ছি আমি ছাড়, অহেতুক এ মানিয়ে নেওয়া খুব কি দরকার? তাইতে এবার বদলে যাবো হবো যে স্বার্থপর, নিজের জন্যই বাঁচবো শুধু আমার শূণ্য ঘর।
(আগরতলা ০৩/০৪/২০২১) যেখান থেকে আসলে তুমি ওইটা তোমার বাবার, এখন তুমি যেথা এলে এইটা আমার বাবার, এখন আমার প্রশ্ন মাগো তোমার বাড়ি কই ? ছোট্টো খোকা জানতে চাওয়ায় অবাক হয়ে রই | একটুখানি চুপটি থেকে মায়ের চোখের জল, বয়ে গেলো ঝর্ণা অনর্গল , উত্তর কি আর আছে ? মায়ের বাড়ি হয়না কেনো জানো ! পার্বতীও বাধ্য হয়ে শিবের বাড়ি গেছে | এই পৃথি...
কেন এমন হয় তা জানা নাই, চির চেনা কিছুর অবতারণা হয়। যতই ভাবি ভুলে যেতে চাই ততই যেনো মনে জেগে রয়। চাই হারাইতে দিশা পারাইতে তবু যেনো না ই করি আর্তনাদে। স্রোতের অনুকুলে বাতাসের টানে, ভেসে যাই কোথা তা কে ই বা জানে। হয়তো কখোনো পাবো নাই ফিরে, সেই যে দৃশ্যের জলছবি ধরে। হারিয়ে ই যাবো কোন ঠিকানায়ে, কোন নদী পথে গাঙকুল ...
সূর্য গেছে মেঘের বাড়ী , ডুবে গেছে ঐ বেলা , একটু খবর নিলা না - যে আমায় ভুলে গেলা ।। আকাশের ওই নিরবতার - কোন জুড়ি নাই , মনে রেখ আমি তােমায়- আজো আমি ভুলি নাই ..... বন্ধু বলে ডাকো যারে , সে কি তােমায় ভুলতে পারে , যেমন ছিলাম তােমারপাশে , আজও আছি ভালােবেসে।। থাকবাে আমি তেমনি করে* বন্ধু হয়ে চির তরে , শুভ কামনা রইলো বন্ধু পবি...
ফুলবাড়ীত (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ধরলা তীরের কাশফুল সাহিত্য পাতার স্বাধীনতা দিবস সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। উপজেলার কবিরমামুদ গ্রামে ফুলবাড়ী উপজেলা সাহিত্য গ্রন্থাগারে মোড়ক উন্নোচন ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ধরলা তীরের কাশফুল সাহিত্য পাতার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কবি আজিজুল হাকিম মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভ...
ইউসুফ আলী চৌধুরী-রাজশাহী প্রতিনিধিঃ রাজশাহীতে আগামী ১ থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত মহানগরীর কালেক্টরেট মাঠে বইমেলা অনুষ্ঠিত হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে এই বইমেলার আয়োজন করছে রাজশাহী জেলা প্রশাসন। এতে পৃষ্ঠপোষকতা করছে জাতীয় গ্রন্থাগার ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়। আগামী বৃহস্পতিবার বিক...
ভূমি অফিস, থানা, ঘুষ দিতে মানা। কত বড় দূর্নীতিবাজ, গেলেই হবে জানা। দলিল করতে গেলে, কোন মায়ের ছেলে। ভূমি অফিস তাকে নিয়ে, কানামাছি খেলে। মামলা হবে পরে, বিকাশটা দাও করে। তোমার জীবন সাঙ্গ হবে, থানার দালাল ধরে। কিছু মানুষ ভয়ে, যাচ্ছে আঘাত সয়ে। তারপরেও যায়না থানায়, ঘুষ দেবার ভয়ে। ঘুষকে যারা ভুলে, তাদের দলিল ...
(আগরতলা ২৮/০৩/২০২১) সর্ষেতে ভূত ধরলে পরে তা দিয়ে আর হয়কি কাজ ? লুকিয়ে থাকা অশরীরী এমনটাই তো করছে আজ | এমন হলে কেমন হবে সর্ষে খেতে থাকলে ভূত, মরণ হাতে ঘুরেফিরে ফোকলা দাঁতের যমদূত | ভূত তো আর পায়না কো ভয় সর্ষে কিংবা নিম তেলে, আগুন দেখলে দৌড়ে পালায় ভূত ভূতি সব ফেলে | তাইতো এখন সবাই মিলে ঘৃণার আগুন জ্বালো ভাই, ভূত তাড়াতে আ...
হে প্রিয় স্বাধীনতা" তোমারই ভালোবাসি। হে প্রিয় স্বাধীনতা" সুখময় মুখ ভরা হাসি। হে প্রিয় স্বাধীনতা " তোমারই ভালোবাসি। স্বাধীনতা তুমি প্রিয় মাতৃভূমি। হে প্রিয় স্বাধীনতা" তোমারই ভালোবাসি। স্বাধীনতা তুমি নতুন সূর্য" তুমি নতুন অহংকার। স্বাধীনতা তুমি ফুলের পাপড়ি" রজনীগন্ধা" শিউলি,বকুল ফুল। হে স্বাধীনতা ভালোবাসতে করিনি কোন ভুল। স্বাধ...
(আগরতলা ২৫/০৩/২০২১) খেলা হবে খেলা হবে খেলা সারা দেশটায়, দর্শকেরা মাঠের বাইরে মরে জলের তেষ্টায় | বাড়ি গিয়ে হাঁড়ি দেখে ঠান্ডা রসইয়ের চুল্লি, পেটের ক্ষুধা পেটেই থাকে ঘুমে বিভোর বিল্লি | কপাল ঠুকে কি হলোরে আর যে পেটে সয়না, যেমন শুনি খেলার মাঠে তেমন কেনো হয়না | খেলা হবে খেলা হবে খেলার খবর পেলে, মাঠের দিকে অমনি ছু...
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার তালবাড়িয়া ইউনিয়নের রানাখড়িয়া গ্রামের মেয়ে ইসমত আরা প্রিয়ার লেখা তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে উপন্যাস ‘যাবজ্জীবন’ বাজারে আসছে। প্রায় অর্ধযুগ লেখালেখির পর বাজারে আসে ইসমত আরা প্রিয়ার প্রথম উপন্যাস। এখন লিখে যাচ্ছেন নিয়মিত। ‘যাবজ্জীবন’ লেখকের ৩য় উপন্যাস। বইটি তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে...
(আগরতলা ২৪/০৩/২০২১) প্যাচে প্যাচে রস শুধু মুখ ভরা মিষ্টি, নাম তার জিলেপি মানুষের সৃষ্টি | গরম গরম ভীষণ মজা নরম হলে ফেলনা, মুখে নিয়ে দেখো তা নয় কথা খেলনা | প্যাচ যতো মিষ্টি ততো রসে রসে রসিকে, যতো খাবে ততো মজা গ্রাম বাংলায় বৈশাখে | সব প্যাচ প্যাচ নয় জিলেপি তার সাক্ষী, যতো প্যাচ ততো মজা বলে রাজলক্ষ্মী | ...
(আগরতলা ২০/০৩/২০২১) এখন রৌদ্রদগ্ধ দিন বসন্ত বাতাস শেষে বৈশেখের হামাগুড়ি আমাদের গাঁয়, নতুন পাতার কণ্ঠে পূর্ণিমা রাতের আলোতে অচেনা সুরের আহ্বান এ যেনো কোনো এক কিশোরীর নাচ মৃদুকণ্ঠে নুপুর পায় | শান্ত প্রকৃতির গা ছুঁয়ে পরম বিশ্বাসে শুয়ে আছে নবযৌবনা, দখিনা বাতাস এসে প্রানভরে দুই ঠোঁটে চুমু খেয়ে গেছে অলক্ষে তারি তৃপ্তির রেশ এখনো উজ...
১৯/০৩/২০২১) সাপের মাথায় ব্যাঙ নাচে নেউলের মাথায় সাপ, বাঘে মোষে এক ঘাটে ওরে বাপরে বাপ ! কেউ কাউকে দেয়না বাঁধা দেয়না কাদা গায়, সবাই শুধু আবির মাখে একে অন্যের পায় | রাধা কৃষ্ণের প্রেম যেনোরে বৃন্দাবনের মাটি, গলায় গলায় ভালোবাসা মিষ্টি মধুর খাঁটি | বুঝাপরার ধরণ দেখে অবাক চেয়ে রই, পালিয়ে যেতে ভিন্ন গ্রহ খুঁজছি আমি মই |...
(আগরতলা ১৬/০৩/২০২১) ইঁদুর যদি ভাব জমায় হুলুর সাথে কভু , মাথা নুইয়ে হুলু সেদিন ইঁদুর মানবে প্রভু | ধানের গোলায় ধান রবেনা মাছের হাঁড়ি খোলা , ইঁদুর হুলু দুইয়ে মিলে করবে খালি গোলা | মালিক শুধুই ভাববে বসে খাতা কলম হাতে, মিলবেনা তার হিসাব নিকাশ দিনে কিংবা রাতে | কই গেলোরে কই গেলোরে আমার গোলার ধান, মুচকি হেসে মিও মিও...
(আগরতলা ১৪/০৩/২০২১) টোকাই ভাবে কি যে হবে আকাল সারা দেশটায়, রাস্তার বসে চিন্তা করে কি জানি হয় শেষটায় | রুটি ভাতের হয়না কথা ব্যস্ত সবাই খেলায়, টোকাইরা যে উপোষ মরে হেলা অবহেলায় | কেউ ভাবেনা তাদের কথা কেউ বুঝেনা দুখ, এই সমাজে তারাই রাজা যাদের পোড়া মুখ | হাজার রকম মিথ্যা কথা বাকির খাতায় বাকি, জাদু দিয়ে মন কেড়ে নে...
তোমার আকাশ দিও আমায় উড়বো আমি রোজ, সকাল সাঁজে কাজের মাঝে রাখবো তোমার খোঁজ। হবো আমি নাটাই তোমারো নয়তো সুতো কাটা ঘুড়ি, তোমার জন্য নিত্য দহন রোজই আমি পুড়ি।
স্টাফ রিপোর্টার: বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল বলেছেন, স্বাধীন বাংলাদেশ অর্জনে কবি-সাহিত্যিকদের অবদান অসামান্য। মহান মুক্তিযুদ্ধে কবি-সাহিত্যিকরা লেখনীর মাধ্যমে ও কণ্ঠশিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করে বাঙালিদের শক্তি ও সাহস যুগিয়েছিল। তিনি আরো বলেন, সাহিত্য মানুষের মানবিক গুণাবলি বিকশিত ও প্রসারিত করে। জ্ঞান নির্ভর ...
(আগরতলা ১২/০৩/২০২১) জিলেপিতে প্যাচ বেশি খেতে ভারি মিষ্টি, ভিতরে তার রস ভরা চিনি গুঁড়ে সৃষ্টি | জিলেপির প্যাচ বেশি কোনো দোষ নাই তার, মানুষেরা প্যাচ নিয়ে করে যতো দরবার | প্যাচ আছে তাই বলে কেউ তারে ফেলেনা, প্যাচ খেয়ে প্যাচ করে নাই যার তুলনা | জিলেপির প্যাচ আছে মানুষের কম কই, রাজা খায় প্রজা খায় দুঃখটা কারে কই | এতো প্যা...
(আগরতলা ১১/০৩/২০২১) বইয়ের বোঝা এতই ভারি যেনো ইট দশটা, লেখাপড়ার নামে যেনো মেরে ফেলার চেষ্টা | এতো বই পিঠে তার যেনো বড় শাস্তি, বই আর পড়াশোনায় প্রতিদিন কুস্তি | একদিকে বাবা মা অন্যদিকে মাস্টার, কেউ হাতে বেত নিয়ে কেউ আবার ডাস্টার | ভাব দেখে খোকা ভাবে পরেছি কি বিপদে, আপন আর নাই কেহ এই বড় আপদে | পালাবারো পথ নাই আহার...
ডেস্ক রিপোর্টঃ পাঠক সমাজে সমাদৃত ও কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার গর্ব তরুণ কবি মুহাম্মদ সবুজ হোসেন আজ ১৯তম জন্মদিন। কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার আড্ডা গ্রামে ২০০২ সালের ১২ মার্চ এক সম্ভ্রন্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মুহাম্মদ বিল্লাল হোসেন একজন ব্যবসায়ী ও মাতা তাছলিমা আক্তার একজন গৃহিণী। পরিবারে তিন বোন ও এক ভাই। আড্ডা তৈয়ব আলী স্মৃতি কিন...
(আগরতলা ০৭/০৩/২০২১) একটা বিশাল বৃক্ষ তার শীতল ছায়া ডাল পালা বাহু যেনো অনন্ত কাল ধরে বিলায় মায়া তার নাম নারী, কাহারো ভগ্নি হয়ে কাহারো সঙ্গী হয়ে অনাদিকাল হতে সকলের ফুরায় মনোস্কাম বহুরূপ ধরি | শয়নে সঙ্গী হয় অমৃত সুধা লয়ে অকৃপণ সমর্পনে তৃপ্ত থাকে এ যে বিশাল দান, নারী সেকি শুধুই নারি বিপদে উদ্ধার করে যেমন করে ভগবান | দে...
(আগরতলা ০৮/০৩/২০২১) গণতন্ত্রের নামে নরবলি হয় উৎসবের নামে ধর্ষণ, সংসদ যেনো বাঈজী বাড়ি আজ নাচে গানে ভরা কীর্তন | গণতন্ত্র কথা কতটুকু হয় ষড়যন্ত্রে মত্ত চাটুকার, জলে ও তেলে মিশায়ে কাড়ে মানুষের মৌলিক অধিকার | সংবিধান কথা কে আর শুনে মানেই বা কোন জন ? সুবিধা মতো বুলি আওড়ায় নীতি নৈতিকতা দেয় বিসর্জন | কিংবা কখনো উপন্যাস...
বন্ধু তোমায় দাওয়াত করি, রসমালাই এর দেশে। গোমতী নদীর রূপ দেখে যাও, কুমিল্লাতে এসে। ময়নামতির মানুষ তোমায়, দেবে স্নেহ প্রীতি। দৌলতপুর পাবে বন্ধু, নজরুলের স্মৃতি। লাকসামের নবাব বাড়ি, তোমায় নিয়ে যাবো। ছন্দু মিয়ার হোটেল গিয়ে, গরম খাবার খাবো। রাজেশপুরের পার্কে গিয়ে, ভরবে তোমার মন। কোটবাড়িতে আছে বন্ধু, অপূর্ব শালব...
আমি হারিয়ে গেছি, কোন এক কুয়াশা ঘেরা অন্ধকারে। আমি হারিয়ে গেছি, কোন এক কূলহীন সাগরের তীরে। আমি হারিয়ে গেছি, হাজারো ঝরে পড়া শুকনো পাতার মাঝে। আমি হারিয়ে গেছি, হাজারো ব্যাথা আর অপবাদের লাজে। আমি হারিয়ে গেছি, কোন এক ফেলে আশা অতীতে। আমি হারিয়ে গেছি, কোন এক সুর হারা সংগীতে। আমি নিজেই নিজেকে হারিয়ে, সীমাহীন বিষাদের বর্ষ পেরিয়ে...
মৃন্ময়ী আমি আকাশ পাঠাবো, তুমি সেই আকাশের নিচে বসে আমায় দুটো কবিতা শুনিও। মৃন্ময়ী আমি ভোরের কুয়াশা এনে দিব, তুমি নূপূরের ঝংকার তুলে কুয়াশার সাথে মিশে যেও। আমি তোমার জন্য এক আকাশ জোছনা পাঠাবো, তুমি সেই জোছনায় আমাকে নিয়ে জোছনা স্নানে যেও। আমি তোমার জন্য একগুচ্ছ ফুল আনব, তুমি সেখান থেকে একটা ফুল তোমার খোপায় গুজে দেয়ার অনুমতি দিও। আমি হ...
(আগরতলা ০৬/০৩/২০২১) গোলাপ যদি ছুঁইবে তবে কাঁটার কেনো পাচ্ছো ভয় ? কাঁটার আঘাত না পাও যদি সে সুখ তোমার সুখতো নয় | ফুলের যদি গন্ধ নেবে পাঁপড়ি কেনো নিচ্ছো হাতে, ফুলেরা যে কান্না করে শুনতে পাও কি গভীর রাতে ? ফুলের রূপে পাগল হয়ে ডাল ধরে তার টানছো বুঝি , লুপে নিয়ে সব কিছু তার তৃপ্তি তোমার নিলে খুঁজি | এমন করে নিজের সুখে...
(আগরতলা ০৫/০৩/২০২১) বুকে অনেক ব্যাথা বন্ধু মুখে অনেক কথা, পাহাড় সমান কষ্ট চাপা পাথরের নীরবতা | অত্যাচার সয়ে নির্বোধ হয়ে গেছি ঠিক অনেকটাই গন্ডার, অনুভব অনুভূতি হারিয়ে এখন অসহায় নির্বিকার | বিচার ও বিবেচনা নির্বাসনে গেছে সত্য ও ন্যায় কাঁদে, এ সমাজ সমাজ নয়কো পরিণত হয়েছে মরণ ফাঁদে | কার যে কখন কি গতি হয় কখন কার যে হবে সর্ব...
বরুড়া প্রতিনিধিঃ বরুড়া সাহিত্য সংসদ এর আহবায়ক, দৈনিক বরুড়া কন্ঠের নির্বাহী সম্পাদক, কবি ও সাংবাদিক মুহাম্মদ জামাল হোসেন শাহজী রচিত ৫ম গ্রন্থ "বর্ণ জেতার আন্দোলন"। বরুড়া উপজেলার ঝলম হক কাবাব হাউজ এন্ড কমিউনিটি সেন্টারে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ শনিবার বিকাল ৫টায় গ্রন্থটির মোড়ক উম্মোচন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন দৈনিক বরুড়া কন্ঠের সম্প...
(আগরতলা ২৮/০২/২০২১) রাজনীতি কি পাটিগণিত নাকি যোগ বিয়োগের খেলা, নাকি বানরের হাতে পিঠা ভাগ সকাল সন্ধ্যাবেলা ? না কিরে পূরণ ভাগে ভেলকি বাজির তুড়ি, নাকি খোয়ার থেকে দিনদুপুরে মুরগি ধরে চুরি | না কিরে পুতুল নাচ নাটের গুরুর কাছে, আঙ্গুল দিয়ে চিকন সুতা যেমন নাচায় নাচে | না কিরে শুকুন যেমন উড়ে আকাশ জুড়ে ? লাশ বানিয়ে ভ...
মানুষ খুঁজি মানুষ নামের অমানুষের ভীরে নানান রঙের মানুষ আছে নানান সভাব ঘিরে রং বেরঙের পোশাক পরে হরেক রঙের বাহার ধরে। কাল হতে কাল মহাকালে মানুষ খুঁজে বেড়াই রক্ত মাংসের আবরণে মানুষ নামে ফানুস তাড়াই ভিবেগ বুদ্ধিতে অতি চালাক ভালোবাসা নাই মোটে সার্থেভরা হৃদয় তাদের, প্রণয় যত সবাই শুধু মুখে আসলে কাচকলা সব, জ্ঞানের পাহাড় দেখায় ভারী এরাই ...
(আগরতলা ২৬/০২/২০২১) নির্বাচন আহারে নির্বাচন ! চোরকে সাধু আর সাধুকে চোর বানাইবার এই ঐতিহাসিক খেলা যিনি খেলেন তিনি হলফ করিয়া কি বলিতে পারিবেন আমি মিথ্যা বলিয়াছি ? সারা গায়ে কৃতকর্মের দুর্গন্ধে বমি আসিবার উপক্রম হইলেও দল বাঁধিয়া যখন ফুলের মতো পবিত্র বলিয়া চিৎকার করে তখন একা একা ভাবি আমাদের কতটুকু অবনতি ঘটিয়াছে | বয়জ্যোষ্ঠ হরিপদ একবেলা বটব...
(আগরতলা ২৫/০২/২০২১) এখন আর মানুষ আগের মতো হাসিতে পারেনা। বহুবিধ যন্ত্রনায় প্রাণ ওষ্ঠাগত। চারদিকে প্রাণ সংশয়ের আতঙ্কের জালে কখন কে যে আটকাইয়া যায় তা ঠাওর করার ও সুযোগ ক্ষীণ। ধর্মস্থান, অফিস আদালত, হাট বাজার এমনকি নিজ গৃহেও আজকাল যম রাজের অবাধ যাতায়াত। একদিকে সত্যের নির্বাসন, অন্যদিকে মিথ্যার জয়জয়কার। চারদিকে ত্রাহি অবস্থা। নবাব সিরাজ মীরজ...
নিজের ভুলে ফাঁসিত ঝুলে, মরবে কেন ভাই? ধরণী যার জীবনটা তার, তা কি জানা নাই? ,, কষ্ট লাগে কিসের রাগে, বিষের বড়ি খাও? প্রভুর কাছে হিসাব আছে, একটু ভেবে চাও। ,, বছর খেটে নিলেন পেটে, তোমার দুখী মায়। অচেনা কোন হয় প্রিয়জন, ভাবলে পরাণ যায়। ,, তোমার বাপে হাজার চাপে, জ্বলে পুড়ে ছাঁই। মরার আগে অনুরাগে, তাকেও মনে নাই? ,...
আমি তোমাদের কাছে ভালোবাসা চেয়েছিলাম। ভালোবাসা মানে বুঝ তোমারা? কিছু তোমরা দেবে আর কিছু আমি! কিছু তোমরা নেবে আর কিছু আমি! তোমরা ঝটপট ঠিক করে নিলে কে কি নিবে, আমি তাড়াতাড়ি বেঁধে ছেঁধে দিলাম যা যা দিতে হবে। সব পেয়ে তোমরা স্বার্থপর হয়ে গেলে, সব পেয়েও কেন হিংস্রতা শুরু করে দেলে? তারি সাথে শুরু করে দিলে হিসেব নিকেশ, কে কত...
শেখ শহীদুল্লাহ্ আল আজাদ. খুলনাঃ একুশ আমার অমর হোক, একুশ স্বাধীনতা। একুশ আমার অহংকার, একুশ জাতীয় পতাকা। একুশ আমার বাংলাদেশ, একুশ রূপের নেই তো শেষ, একুশ স্বাধীনতা। একুশ আমার লাল সবুজের একটা খেলা মাঠ, একুশ আমার সূর্য নতুন, সাত সাগর ও তের নদীর ঘাট, একুশ আমার রফিক, শফিক, সালাম ও বরকত, একুশ আমার অমর হোক। একুশ পিতা শেখ মুজিব...
চোখের হাসি সবাই দেখে জল দেখেনা কেউ, দেখেনা কেউ চোখের ভিতর চাঁপা কান্নার ঢেউ। খানি হেসে চোখ দুটি যে আড়ালে ঝরায় জল, কেউবা জলের মূল্য বোঝে আবার কেউবা ভাবে ছল। ঝরছে অঝোরে দিবানিশি থামছে না যে আর, মনে হচ্ছে চোখগুলোতে করছে কেউ অদৃশ্য প্রহার। জানিনা এই চোখে হাসি আসবে আবার কবে, সেদিন হয়তো কষ্টগুলোর কবর দেওয়া হবে।
চন্দনাইশ, চট্টগ্রাম। দেশের মাটি জীবন সাথী পাহাড় গিরি ঘেরা, সাগর নদী সাথে গাঁথা নিত্য জোয়ার ভাটা। নদীর পানি মিষ্টি মধুর মাঠে সোনার ধান মহান জাতির আহার যোগায় বাচাঁয় জীবন প্রাণ। ছায়া নিবিড় সবুজবাগে পাখির কলতান দোয়েল শ্যামা গাছের ডালে শুনায় মধুর গান। সন্ধ্যা সাজে জাগায় ধ্বনি মিনার ছুঁড়ে আযান বসত করে একসাথে মুসলি...
একুশে ফেব্রুয়ারি বাঙালি জাতির জাগরণ বাংলাকে রাষ্ট্রভাষার দাবীতে স্পর্ধিত উচ্চারণ, ধর্মান্ধতা ও সাম্প্রদায়িকতার অপসারণ অন্যায়ের বিরুদ্ধে ছাত্র-জনতার বিস্ফোরণ। বিশ্বে সবচেয়ে বড় ঐতিহাসিক ঘটনা বাঙালির স্বাধীনতা সংগ্রামের সূচনা, শহীদের রক্ত ¯্রােত নয় কোন রটনা সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের প্রেরণা। স্বাধীনতার ডাক, জাতির মুক্তি মোদের অহং...
একুশ মানে ফাগুনের বসন্তী রং মুফতী মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ী একুশ মানে এক সাগর রক্ত একুশ মানে পাকিস্তানি হায়নার তা-ব একুশ মানে ভাষার সংগ্রাম একুশ মানে বাংলা বর্ণমালার যুদ্ধ একুশ মানে হিং¯্র গোষ্ঠীর আতঙ্ক একুশ মানে ভাষার অধিকার একুশ মানে ছাত্রজনতার বজ্রকণ্ঠ একুশ মানে রক্তাক্ত বর্ণমালা একুশ মানে খোকা থেকে বঙ্গবন্ধু এক...
(আগরতলা ১৮/০২/২০২১) ঠিক আছে ঠিক আছে গলায় দড়ি দিয়ে নাচাও বানর যেমন নাচে, লাঠি দেখাও কাঠি দেখাও যেমন খুশি তেমন নাচাও জেনে রাখো নাচানাচির শেষ কিন্ত আছে | ভাবছো তোমরা আমরা ছাগল কিংবা রাঁচি থেকে আসছি পাগল যা খুশি তাই ভাবো, যা খুশি তাই করো তুমি আমরা কি আর বুঝি জেনে রেখো ছাগল পাগল বুঝে সোজাসুজি |
(আগরতলা ১৭/০২/২০২১) আজকে দিন বদলের পালা, বন্ধু এই দেখোনা অত্যাচারে তোমার আমার জীবন ঝালাপালা | আর কতদিন এমনি করে দন্ড নেবে তোমার ঘাড়ে আসো বদলে দেবো দিন, তোমার আমার সন্তানেরে রেখে যাবোনা অন্ধকারে শোষকের চোখ যতই রাঙাক জানো তারা আসলে অর্বাচীন | আমরা মানুষ সোনার মানুষ নাটাই হাতে উড়ায় যারা নীল আকাশে ঘুড়ি, আজকে তাদের বিদ...
(আগরতলা ১৪/০২/২০২১) বেশ ভালো বেশ ভালো কর্তা মশাই যা ই বলেন মেনে নেবো আজ , কর্তা হলেন কল্পতরু আমরা যতো পোষাগরু সকাল বিকাল দুধ দেওয়া আমাদের গুরু কাজ | ভর দুপুরে কর্তা যদি ভুলেও বলেন এখন গভীর রাত, আমরা সবাই বাড়িয়ে বলবো এতোই বেশি অন্ধকার যে যায়না দেখা হাত | সাথে সাথে বলবো আরো কর্তা মশাই ঠিক বলেছেন ঠিক , আপনি যেমন ...
(আগরতলা ১৪/০২/২০২১) এই পৃথিবী টাকার গোলাম টাকা তোমায় জানায় সেলাম রাজা -প্রজা,উজির- নাজির সবে, তোমার কাছে সবাই ধরা ধনী- গরীব,সর্বহারা আমি -তুমি, আমরা সবাই তবে | তোমার চিপা মাইনকা চিপা হাত তুলে চায় তোমার কৃপা চিপার সেরা তুমি, সাধু -সন্যাস, তোমার কাছে হাটু গেড়ে দয়া যাছে তোমার পরশ চায়না এমন পাইনি খুঁজে আমি | তোমার গরম ভীষণ গ...
মন্তব্য প্রতিবেদনঃ কী বিশেষণে বিষায়িত করবেন এই মেয়েকে। অদম্য, গুণী, মেধাবী, ফ্যাশন ডিজাইনার, নাকি সব মিলিয়ে অলরাউন্ডার। বর্তমান প্রজন্মে যে মেয়েটি সকল স্থানে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন তিনি হলেন অরাউন্ডার তুলতুল। তিনি বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক।একাধারে একজন লেখক, ঔপন্যাসিক, শিশুসাহিত্যিক, আবৃত্তিকার, সমাজসেবক, রেডিও অনুষ্ঠান পরিচালক, নজরুল অন...
বউ সেজেছি ফাগুনে রঙ মেখেছি আগুনে। নিয়ে যাও পাল্কী চড়ে, হাত বাড়িয়ে আমার হাতে। বলবো কথা কানে কানে, তোমার শুষ্ক ঠোঁটে ঠোঁট রেখে। দেখবো তোমার হাসির মাঝে আমার হাসির মুক্ত ঝেরে। থাকবে নাকো দুঃখ মোদের কথা দিলাম এই ধরাতে।
আজোকি সেই বাদাম গাছের তলায় তাজুলের চা দোকান চলে ? ফেলে আসা দিনগুলি আজো সময়ে অসময়ে সে কথাই বলে | নিউ ষ্টার হোটেলে আজো কি ছেলেটা পরোটা ভাজে তেলে ? আমিও আতিক বিকেলের চা দিতো একদম কোনার টেবিলে গেলে | গান শিখতে গিয়ে অফিস পাড়াতে খেয়েছিলাম লাজ সরমের মাথা, আতিক আর আমি হারমুনিয়ামে গেয়েছি তুমি যে আমার কবিতা | বেরসিক বাহাদুর হঠাৎ একদিন ...
স্টাফ রিপোর্টারঃ দেননগরের কবি সোহেল রানার 'ঐতিহ্য' বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। শনিবার ১৩ ফেব্রুয়ারী কুমিল্লার বরুড়ায় ডকটরস কমিউনিটি হসপিটালের তৃতীয় তলা ডাঃ আনিস উল হাসান হল রুমে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন বরুড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আনিসুল ইসলাম। ওরাই আপনজন সামাজিক সংগঠনের ব্যাবস্হাপনায় সংগঠনের সভাপতি মোঃ ইলিয়াছ আহমদ এর সভাপতিত্বে অন...
দুর্নীতির সংক্রামক রোগে সাধারণ জনতা ভোগে, যারা দুর্নীতি করে তারা থাকে সুখে! দেশ ধ্বংসের পথে। সত্য অবনত বেশে মিথ্যা চলে এগিয়ে, দুর্নীতির ছলে বলে দুর্ভোগ যাচ্ছে বেড়ে। শহর কিংবা গ্রামে দুর্নীতি ব্যাধির জ্বরে মানুষ মরছে ধীরে আমরা বাঁচব কি করে দুর্নীতি দূর না হলে? দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে প্রত্যেকে জনে জনে এসো এক পতাকাতলে। ...
(আগরতলা ১১/০২/২০২১) রাজনীতি কি পুতুল খেলা নাকি জাদুর কাঠি ? ঘুম পারানি মাসি পিসি সাথে নেশার ঘটি | সুতার টানে নানান ঢঙে যেমন নাচায় নাচে, কৌশল করে আঙুল নাড়ে জাদু খেলার ধাছে | পুতুল নাচে পুতুল নাচে আহারে কতই ঢং, ব্যাশ্যা বাড়ির বাইজি নাচন রাজনীতির নানান রং | নেতার হাতে নিরুর বাঁশি বাজায় মধুর সুরে, দিকে দিকে তুষে...
আমার দেশের শিক্ষকেরা, ছাত্রদের কে কয় না। বিড়ি সিগারেট খেয়ে কভু, মানুষ হওয়া যায় না। ছোট বেলায় স্যারে যদি, এই কথাটি বলতো। মানুষ হবার ইচ্ছে যাদের, স্যারের কথায় চলতো। আমার দেশের ইমাম সাব, বিড়ির কূফল বলেনা। তাইত মানুষ বিড়ি খায়, খোদার পথে চলেনা। মক্তবে আর মসজিদে, হুজুর যদি কইতো। বিড়ি সিগারেট ফেলে সবাই, আল্লা ওয়ালা হইতো। আমা...
(আগরতলা ০৯/০২/২০২১) এক যে বোকা একা একা আপন মনে খেয়ালে, মুরগি এঁকে হাড্ডি চুষে রান্নাঘরের দেয়ালে | মা এসে তা দেখে অবাক এতই বোকা তার ছেলে! হাত তুলে কয় হায় ভগবান এই কি লিখন কপালে ? অন্যদিকে আরেক বোকা ডেকে ডেকে বলছে ওই, চাঁদের বুড়ি আমার খুড়ি তাকে আনতে বানাই মই | আরেক বোকার কান্ড দেখে হাসি কি আর রাখা যায় ? বিয়ের...
স্টাফ রিপোর্টারঃ কবি সংসদ বাংলাদেশের সাধারণ সভা ৫ ফেব্রুয়ারি বিকেলে ঢাকার বাংলাবাজারস্থ বিউটি বর্ডিং প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে কবি সংসদ বাংলাদেশের সাবেক সভাপতি লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুলকে চেয়ারম্যান ও প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক কবি তৌহিদুল ইসলাম কনককে সদস্য সচিব করে ৯ সদস্য বিশিষ্ট স্থায়ী পরিষদ গঠিত ও অনুমোদিত হয়। স্থায়ী পরিষদে...
একুশ কি ভাই তাদের? কথায় কথায় গালি দেয়ার, স্বভাব আছে যাদের। একুশ কি ভাই তাদের? ভাষার প্রতি শ্রদ্ধাবোধ, একটুও নেই যাদের। একুশ কি ভাই তাদের? দেশের খেয়ে দেশের পড়ে, বিদেশে টান যাদের। একুশ কি ভাই তাদের? বাংলা নয় ইংরেজিতে, মনটা বাঁধা যাদের। একুশ কি ভাই তাদের? বর্ণমালার রক্ত দেখে, প্রাণ কাঁদেনা যাদের। একুশ কি ...
দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে- একটা তেজস্বী কলম চাই, যে কলমের কালো কালির লেখনীতে দূর্নীতিবাজদের গত হবে না কিছু;সন্ধ্যায় সন্ধ্যামালতির মতন ফুটবে বর্ণ-অক্ষরে প্রতিটা লাইনে,গল্প-কবিতা কিংবা উপন্যাসে দূর্নীতিবাজদের আপাদমস্তক। একটা কলম চাই- যে কলম সবুজ-লাল-নীল রংধনুর সাত রঙে রঙিন কখনো অস্ত্র,কখনোবা ধারালো তলোয়ার দা-বটী রূপে- ন্যায়ের জন্য ন্যায়, অ...
কুমিল্লা তোর কপাল খারাপ, বিভাগ হতে পারলি না। বাংলাদেশের উন্নয়নের, পথটাও তুই ছাড়লি না। ,, কুমিল্লা তোর প্রবাসীরা, পাঠায় কত টাকারে। সেই টাকাতে উন্নত হয়, চট্রগ্রাম আর ঢাকারে। ,, কুমিল্লা তোর মাঝেই আছে, সবচে প্রাচীন বিদ্যালয়। খেলাধূলায় সবার সেরা, ক্রিকেটেও বাংলা জয়। ,, কুমিল্লা তোর নিজের লোক, গ্যাসের জন্য কষ্ট পায়। ...
বিশ্বরোডে যাইবানি, নূরজাহানে খাইবানি? কুমিল্লার রসমালাই, আর কোথাও পাইবানি? ,, কোটবাড়িতে আইবানি, জাদুঘর টা চাইবানি? শালবনে ঘুরে ঘুরে, আসিফের গান গাইবানি? ,, খদ্দর চাদর কিনবানি, খাদি কাপড় পিনবানি? বাংলাদেশের মানচিত্রে, কুমিল্লা টা চিনবানি? ,, গোমতী পাড়ে ঘুরবানি, পাখির মত উড়বানি? কুমিল্লাকে ভালোবেসে, জানটা দেব ...
এবার বিড়ি ছাড়, টানিস নারে আর৷ আজকে তুই মরে গেলে, ফিরবি নাতো আর৷ ,, সকল নেশার বাপ, পাবি না তুই মাপ৷ সারা জীবন করে গেলি, হারাম খেয়ে পাপ৷ ,, এবার বিবেক খুল, করিস না আর ভুল৷ নিদান কালে নইলে তুই, ছিঁড়বি মাথার চুল৷ ,, ঠোঁট হয়েছে কালো, ছেড়ে দিলেই ভালো৷ অন্তরে তোর জ্বলে উঠুক, অক্সিজেনের আলো৷ ,, এবার মুক্ত হবি, সত্য কথা কবি৷ ম...
#২৩.০১.২০২১# এই তো জীবন, যেন এক বিশাল গগন। সুখ-দুঃখ, যেন মেঘের ভেলা, কে জানে? একটু পরেই হয়তো আমার যাবার পালা। তাইতো একলা বসে ভাবি, জীবন্ত সব কিছুর মাঝে কখন বা হয়ে যাবো ছবি। কিসের দম্ভ, কিসের ভয়, ভালোবাসাটুকুই শুধু সঞ্চয়। জীবনের সাথে এসেছে মরন, ওপারে গেলে জানি না কেউ করবে কিনা স্মরণ? এই দুনিয়ার সবই মায়া, মিথ্যে সব, সত্য শুধু...
লালমাই আমার পাহাড় ও ভাই, গোমতী আমার নদী। কোটবাড়িতে দাওয়াত করি, ঘুরতে আসো যদি। ,, সচীন দেব শিল্পী আমার, নজরুল আমার কবি। রূপবান মূড়া গেলে পাবে, ইতিহাসের ছবি। ,, লাকসাম আমার জংশন ও ভাই, বরুড়াতে বাড়ি। বিশ্বরোডের গাড়ি দিয়ে, ঢাকা যেতে পারি। ,, চান্দিনাতে খদ্দর আমার, চৌদ্দগ্রামের দই। রসমালাই এর গুণের কথা, কাহার কাছে ক...
(আগরতলা ২১/০১/২১) ক্ষমতা তোমার মরীচিকা যেনো উত্তাল সমুদ্র পারে, রাজদন্ড যতো করো উদ্ধত সকলি ক্ষনিকের তরে | তোমার দম্ভ ক্ষমতার স্তম্ভ কেবলি চোরাবালি খেলা, জোয়ার ভাটা ভাসিয়ে নিতে পারে অকস্মাৎ স্বপ্নের ভেলা | আলো আঁধারের ঘনঘটা শুধুই ক্ষমতা নয়কো কিছু, অলীক বায়ু জানো কি তুমি ঘুরেযে তোমার পিছুপিছু | ক্ষমতা যত খণ্ডিত হবে ...
বিশ জানুয়ারি প্রিয়তম স্ত্রীর জন্মদিন তেত্রিশ বছর ধরে জীবন সঙ্গী কতো স্মৃতি অমলিন, কিশোর বয়স থেকে সুখে-দুঃখে এক সাথে প্রতিদিন এগিয়ে যাচ্ছি স্বপ্ন পূরণের পথে। গর্ভে ধারণ করেছে রতেœর মতো তিন সন্তান সে দুই ছেলে এক মেয়ে চিকিৎসক প্রত্যেকে, দেশকে দিয়েছে ত্রিরতœ উপহার তাঁর প্রতি আমি কৃতজ্ঞ বারবার। চলমান মোদের প্রেম প্রীতি ভালবাসা তনু মনে হৃদয়...
(আগরতলা ২০/০১/২১) রক্তচোষা রাক্ষস যতো ভেকধারী সাধু আজ তারা, মাংস খেকো হায়েনারা সব লোকালয়ে করে ঘোরাফেরা | ভন্ডরা যতো নামাবলী গায়ে মসজিদ মন্দির দখল করে, স্বর্গে যাবার মন্ত্র বিলায় উপোষ করাদের ঘরে | ক্ষুধার কাছে স্বর্গ নরক কিবা আছে তার দাম, ধর্ম দিয়ে ভন্ডরা এখন নগদে ফুরায় মনস্কাম | ভাত রুটি কথা তারা বলেনাকো সকলি বিলায় বাকি,...
আজকে যারা নির্বাচনে, মার্কা নিয়ে নাচে। এই জনতা বিপদ কালে, পায়নি তাদের কাছে। ,, কত টাকা উড়ায় তারা, নির্বাচনের নামে। সেই টাকা যে সিক্ত থাকে, গরীব দুখীর ঘামে। ,, মাইকে নেতার নামটি শুনে, কর্মীরা দেয় ফাল। সুযোগ পেলে একে অন্যের, তুলে পীঠের ছাল। ,, ভোটের আগে নেতায় দেখি, ধরে সবার পায়। পাশ করলে সেই নেতার, দেখা পাওয়া দায়। ...
ডেস্ক রিপোর্টঃ নওশাদ কবীর ১৯৬২ সালের ৮ আগস্ট বুধবার সকাল আটটায় কুমিল্লা জেলার বুড়িচং থানার ইতিহাসখ্যাত ময়নামতি অঞ্চলে সিন্দুরিয়া পাড়া গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম হুমায়ুন কবীর, মাতা নাজমুন নেছা ।নওশাদ কবীর ঐতিহ্যবাহী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পারিবারিক ঐতিহ্য সম্পর্কে হুমায়ুন কবীর লিখেছেন; দেওয়ান মজলি...
(আগরতলা ১১/০১/২০২১) প্রচন্ড ঝড়ের শেষে এই জনপদ আবার জেগে উঠবে, মারি ও মড়ক অন্যায় অত্যাচার শোষণের দুর্বিপাক কাটিয়ে মানুষ আবারো কাস্তেতে সান দেবে | এই গ্রাম এই নগর ও জনপদ আবার উৎসব কোলাহলে মেতে উঠবে, আবার রাখালের বাঁশি বাজবে পাবনা শাড়ির ঘোমটার ফাঁকে কৃষানীর হাসি আবারো সবুজ শস্যে ঝলকাবে | মাঝিমাল্লারা বৈঠা হাতে আবার মেতে উঠবে...
(আগরতলা ০৭/০১/২০২০) আমি মানুষের কথা বলি কবিতা লিখিনা, আমার লেখায় কোনো ছন্দ নেই আছে লোহা পিটিয়ে কাস্তে হাতুড়ি বানাবার অনবদ্য শব্দের আর্তনাদ | আমি কবিতা লিখিনা নিপিড়িত,নির্যাতিত ও শোষিত মানুষের হাত ধরে ভাতৃত্বের গান গাই, আমার লেখায় সবুজ শস্যেরা মাটি ভেদ করে মুক্ত আকাশের দিকে উঁকি দেয় | আমি কবিতা লিখিনা প্রতিক্ষনে আমি শুধুই ঘুম...
(আগরতলা ০৬/০১/২০২১) কখন উঁকি দেবে সোনালী সূর্য্য অকৃপণ আলো আর উত্তাপ হাতে হামাগুড়ি দেবে তাল পাতার ছাউনিতে, সে অপেক্ষায় কাটে টোকাইদের রাত | বাবুরা অট্টালিকায় অনেক সুরক্ষিত তাদের কাছে শীত মানেই বিলাসী সময় উবছে পরা আনন্দের মৌসুম, সুখ ও উপভোগের উৎসবে জীবন রঙিন করে তুলে বাহারি মানুষেরা | জানালার ঈষৎ ফাঁক দিয়ে খানিকটা তাকাল...
(আগরতলা ০১/০১/২০২০) দেশটা এখন নেশা মুক্ত বুঝলে বোকা হরি ? করজোড়ে দাঁড়িয়ে কহে কর্তা বুঝতে নাহি পারি | আমি হলাম আপনার কথায় হর্দমর্দ বোকা, আমার মাথায় নাইকো ঘিলু সব খেয়েছে পোকা | মদ গাঁজা ফেনসি টেনসি কিংবা বলুন সরস, এসব ছোঁয়া কিংবা ধরার হয়না আমার সাহস | হুজুর যতই বলেন নেশার কিন্তু এখন বাজার গরম, মদ গাঁজার ব্যব...
(আগরতলা ৩০/১২/২০২০) ঠিক যেনোরে ঈদের গরু অনেক দামে কেনা, ভোটের সময় ভোটার এখন এমন করেই চেনা | ভোটের সময় ভোটার নাচে নেতাও নাচে সাথে, দু'চার পাঁচশো পেলেই খুশি চামচিকারা হাতে | বেশ কিছুদিন ভালোই কাটে চায়ের দোকান গরম, গল্প গুজব অনেক চলে ভুলে লজ্জা সরম | হায়রে ভোটার তোমাদের দেখে আমার লাগে ভয়, ভোটের পরে জানতে পাবে নেত...
(আগরতলা ২৯/১২/২০২০) গণতন্ত্রের অর্থ কিযে প্রশ্ন আমার মাথায়, কে বুঝাবে কে জানাবে সহজ সহজ কথায় ? আমার ভোট আমি দেবো যারে খুশি তারে দেবো জানি, তাইলে কেনো ভোটের দিনে সকাল থেকেই বাক্স টানাটানি ? মাইক বাজে বাইক ঘুরে ঘুরে কলের চাকা, কাকের মুখে কুকিলের ডাক শোনায় কালো টাকা | টাকার গন্ধ লাগলে নাকে আর কি থাকা যায়, বাদ্যযন্ত্রের তাল...
স্টাফ রিপোর্টারঃ পাঠক সমাজে সমাদৃত ও বরুড়া উপজেলার আড্ডা গ্রামের কৃতিসন্তান, তরুণ কবি মুহাম্মদ সবুজ হোসেন এর রচিত ৬ষ্ট গ্রন্থ “করোনার বিশ্ব ভ্রমণ” কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। আজ ২৮ ডিসেম্বর সোমবার বিকাল ৩টায় বরুড়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন বরুড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আনি...
(আগরতলা ২৬/১২/২০২০) দুয়ারে নাকি থাকবেন সরকার থাকবেন আপনার সাথে, হাত বুলিয়ে আদর করবেন স্বপ্ন দেখাবেন রাতে | রাতের আকাশে যতো তারা আছে গুনবেন দুইজনে মিলে, একের মাথায় অন্যে দেবে তেল থাকবেন দুইজনেই তেলতেলে | সকালে উঠে স্বপ্নভঙ্গ হবে থাকবে বালিশ শুধু, যেদিকে তাকাবেন দেখতে পাবেন মরীচিকা ধূধূ | আপনি আছেন সরকার নাই থেকে ...
(আগরতলা ২৬/১২/২০২০) নির্বাচনে প্রার্থী কালু মার্কা দোয়াত কলম, বাজারে সে বেচতো আগে গা চুলকানির মলম | এখন একটু ভাব ধরেছে বাজার নাকি ভালো, এই কারণে ভরসা বেশি স্বপ্নে দেখে আলো | ভোটের দিনে ঠিক সকালে গিন্নি ডেকে কয়, তুমি নাকি মেম্বার হবে আমার লাগে ভয় | কথা শুনে কালু এবার গোঁপে লাগায় তেল, ঠিক বারোটায় শুরু হলো নির্বাচনী খেল...
(আগরতলা ২৫/১২/২০২০) কৃষকের মাথায় লাঠির আঘাত দিচ্ছ গায়ে গরম জল, ফসল ফলায় সবার জন্য তাই বলে এই কর্মফল ! রাজপথে কাঁদছে তারা আইনের জালে আটকা আজ, আহারে দেশ করলি অবাক একটুও কি নাইরে লাজ ? গামছা পরা নাঙ্গা ভূকা কাদামাটি তার পায়ে , এই জন্যই কি দিচ্ছনা দাম ঘামের গন্ধ তার গায়ে | অন্যের পেটের খাবার যোগায় নিজের বেলায় উপবাস, ...
এলেই যদি বর্ষা হয়ে চৈত্র মাস শেষে কদম নিয়ে বসে আছি পরিয়ে দেবো কেশে। বৃষ্টি হবার একটু আগে মেঘ হয়ে এলে ঝরার যখন এতোই ইচ্ছে যাচ্চো কেন খেলে। মিছে আশায় বাঁধি বুক বৃষ্টি ভেজা নিয়ে মগডালে দেখছি সেথা বসেছে এক টিয়ে। আকাশ ভরা রোদের খেলা এই বৈশাখ মাসে জানালা ভেদে কড়া রোদ ঘামে শরীর ভাসে। প্রকৃতি আজ ছলনাময়ী পড়ছে ধরা চোখে নিয়ম ন...
(আগরতলা ২৪/১২/২০২০) খেজুরের রস মুড়ির মোয়া বিন্নি ধানের খৈ, উঠুন ভরা শীতের সকাল শিশুদের হৈ চৈ | পিঠে পুলি ঢেঁকির চিরে ঠাকুরমায়ের পান, দাদুর হাতে বেতের লাঠি গুনগুনিয়ে গান | দেখতে কিংবা শুনতে হলে কিংবা খেতে হলে, আমাদের গাওয়ে এসো বন্ধু পউষের শীত সকালে | আসো যদি তোমায় দেবো পায়েস ভরা বাটি, অনাবিল শান্তি দেবো দারু...
(আগরতলা ২১/১২/২০২০) ঘাস ফড়িং এ খাচ্ছে ফসল রাজনীতি খাচ্ছে দেশ, উদরচন্ডী ভুধুর ঘাড়ে করছে সবই শেষ | কান্ড দেখে আঁৎকে উঠি লাগছে ভীষণ ভয়, রাজাপ্রজা কেউ সুখে নাই কখন কিযে হয় ! ঝুলছে কৃষক গাছের ডালে জমি জিরান ধূধূ, কৃষানীর চোখে বন্যা বহে বিষাদ বুকে শুধু |
(আগরতলা 17/12/2020) দুঃখ নহে চিরসাথী থাকবে সাথে সাথে, রাতের কালো যায় হারিয়ে সূর্য্য উঠা প্রাতে | সময় সেতো কালের সাক্ষী নীরবে চেয়ে রয়, কালবৈশাখী আসে আসুক তাতে কিসের ভয় ? আকাশ কিরে চিরতরে ঢাকতে পারে মেঘে, কেউ কিরে স্বপ্ন দেখে পূর্ণিমা রাত জেগে ? সবাই কিরে হয়রে আপন আপন ভাবো যারে, সাথে কি সে যাবে তোমার যেদিন যাবে চিরতরে ? ...
স্বাধীন স্বত্তা ছিল না এ দেশে শিকলেই ছিল বন্দি নির্মম ছিল ইতিহাস আর পাকিস্তানির ফন্দি। যুদ্ধ দেখিনি দেখেছি বিজয়, দেখেছি মায়ের হাসি মুক্তিযুদ্ধা দেখেছি আরও দেখেছি ক্লান্ত চাষী। মুটে-মজুরের যুদ্ধে যাওয়ার গল্প-কাহিনী শুনে নির্বাক হয়ে বেদনাশ্রুতে কত কথা গেছি বুনে লক্ষ জননী হারিয়েছে ছেলে হারিয়েছে সম্ভ্রম গগন বিদারী অট্টহাসিতে দোসরের মতিভ্র...
উনিশে মার্চের ঘটনা আজো অনেকের অজানা, সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের সূচনা মহান স্বাধীনতার প্রেরণা। বিজয়ের অমর চেতনা গাজীপুরে তার ঠিকানা, আ ক ম মোজাম্মেল হক এই সশস্ত্র যুদ্ধের মহানায়ক। হুরমত, নিয়ামত খাঁটি সোনা স্বাধীনতা ছিল যাদের কামনা, তাঁরা বীর মুক্তিসেনা এদেশ তাঁদের রক্তে কেনা, বিজয় নিশান উর্ধ্বে ধরি তাঁদের মোরা স্মরণ করি।
(আগরতলা 12/12/2020) বাংলা ভাষায় নাইকো রুচি লজ্জ্যা লাগে বাংলায়, পঠন পাঠন চলা বলা ইংলিশে সে সামলায় | হিন্দি হলে মন্দ হয়না রামচরণের এক ছেলে, উর্দু হলে খুব ভালো তার অনর্গল সব যায় বলে | রুই বোয়ালে নাইকো রুচি হালকা রুচি ইলিশে, শীতে ঘুমায় ভিজা কাঁথায় দেয়না মাথা বালিশে | কৈ মাগুরে হয়না খাওয়া টোনা খোঁজে জাপানে, কোর্মা পো...
(আগরতলা 11/12/2020) কৃষক আজ রাস্তা ঘাটে প্রহর কাটে উপুষে, তাদের নিয়ে রাজনীতি করে দুষ্ট যতো মানুষে ? আইন বানায় ফাইন করে কৃষকের গলায় লাগায় ফাঁস, আমলা গুনে কয়টা গেছে এতদিনে শুকনো বাঁশ | হাতে নিয়ে তেলের বাটি মহাজনে গুনছে দিন, মন্ত্রী তন্ত্রী বাজায় বসে অর্থনীতির বাঁশের বীন |
(আগরতলা 04/12/2020) পিঁপড়ে বলে ও হাতিভাই দেমাগ দেখাও কেনো ? আমরা ক্ষুদ্র তাই বলেকি ভাবছো ভীষণ হেনো ? তোমার অনেক শক্তি আছে শরীরটাও খুব বড়, তোমার ভয়ে সব প্রাণীরাই থাকে জড়োসড়ো | তোমার দেহ দেখলে সবাই করে পালাই পালাই, জেনে রাখো আমাদের কিন্তু নাইকো এমন বালাই | তোমার দাঁত ভীষণ বড় সাথে আছে শুর, দুইখানা কান কুলার মতো দেখ...
পোকায় যে ভাই নষ্ট করে, কৃষক ভাইয়ের ধান। দেন্নাগরের কবি দেখে, জ্বলছে যে তার প্রাণ। ,, খাজনা নিল যারা এসে, পাশে থাকবে বলে। তারা এখন ঘুমায় কি ভাই, লেপ কাঁথার তলে? ,, আজকে কৃষক কেঁদে মরে, মাথায় তাদের হাত। কেমন করে বাঁচবে তারা, কে খাওয়াবে ভাত? ,, চাষার টাকা জলে গেল, বিপদের এই দিনে। গলা জলে ডুববে এবার, কিস্তি ওয়াল...
(আগরতলা 02/12/2020) দেশটারে কি ভূতে পাইছে নাকি ধরছে জীনে, রাতবিরাতে কোমর ধইরা খাদের পারে টানে | টানে টানুক কি আসে যায় পরলেই কিবা ক্ষতি? খাদের পারে নাচানাচি পাগলের ভীমরতি | না কি তারে আলগায় পাইছে আবোলতাবোল সার, বেশ্যার মুখে সতীর গল্প শুনবো কতো আর | ভাবছি বসে কেমনে বাঁচি কানার হাতে কুড়াল, বাঘের ভয়ে কাঁটা গাছে উঠলো না হ...
(আগরতলা 28/11/2020) বনের রাজা শুয়োর হলে গন্ডার হলে রানী, কালো ছাগলের গলায় দড়ি চলে টানাটানি | বাঘ ভাল্লুক হাতি ঘোড়া বিড়াল হয়ে চলে, ইঁদুর এসে সিঁদুর মেখে কৃষ্ণকথা বলে | শিয়াল শুধু সুযোগ বুঝে মুরগি ধরে খায়, বাদ বাকিরা পাগলা কুকুর কামড় মারে পায় | হুতুমপ্যাঁচা মুচকি হাসে টুনটুনি গায় গান, ফিঙ্গি হঠাৎ ছোঁ মেরে নেয় ঘাস...
কে তুমি ভাই ? বাংলার জামাই। বলি কোথা গেছিলে ? শ্বশুরালয়ে। তাই বলো, তা কি কি খেলে? খেলাম আর কোথায় হারিয়ে গেছিলাম মাছের তলে। সে আবার কেমন ব্যাপার ? শুনলে পাগল হবে সে যে ছিল শুধু মাছের পদের সমাহার। বলো কি ভায়া? দেখি শোনাও, প্রথমে এলো ইলিশ পোলাও তোপসে ভাজা, চিংড়ির মালাইকারি টাকি ভর্তা, বেলে মাছের চচড়ি শিঙের ঝোল, পাবদার ...
(আগরতলা ২৬/১১/২০২০) রাজনীতি যদি ব্যবসার মতো হয় মানুষ যদি হয় পণ্য, কখন কে যে মহাজন সেজে হয়ে যায় স্বনামধন্য | রাজনীতি আর ধর্ম মিশিয়ে খিচুড়ি বানায় যদি, অখাদ্য হবে খাবে কে তবে ফেলনাই হবে সবি | ছাগলের যদি তিন বাচ্ছা হয় দুইটায় দুধ খায়, একটা শুধুই পিছে পিছে নাচে আনন্দে মিছে লাফায় | ডালে ও চালে মিশিয়ে যদি বউ শাশুড়ি থাকে ব্...
(আগরতলা ২৬/১১/২০২০) ধর্মের কালো চাদরে শুয়ে আছে সভ্যতার লাশ, ডোমেড় ব্যবচ্ছেদ প্রক্রিয়ায় যে নিষ্ঠুরতা দেখতে পাচ্ছি প্রতিদিন সৃষ্টির ইতিহাসে পৃথিবীতে আসেনি কখনো এমন কালোকাল, বিংশ শতাব্দীর শেষপ্রান্তে এসে সামনের দিকে তাকিয়ে আমার বড্ড ভয় হয় । ধর্ম দিয়ে অনেক অধর্মকে প্রতিষ্ঠিত করতে একদল ভন্ডের কুটকৌশল আমাকে বিব্রত করে, সখিনা মর্...
(আগরতলা 25/11/2020) সভ্যতার মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ আসন্ন মৃত্যুর ঘনঘটায় আমরা শঙ্কিত, বর্বরদের মানবতাহীন নিয়ন্তর আঘাতে ক্ষতবিক্ষত অবয়ব খুবড়ে নোনতা স্বাদ নিয়ে হায়েনারা মেতেছে উলঙ্ঘন উৎসবে | প্রতিটা দেশেই মানববিধ্বংসী অস্রের বাজেট মানুষের খাবারের থালায় বসিয়ে চলেছে অংশীদারিত্বের বিষাক্ত থাবা, নিরুপায় সভ্যতা গুনছে অপ্রাপ্য পারিতোষিক আর ...
(আগরতলা 18/11/2020) দাদা ভীষণ ব্যস্ত সদাই হাজার হাজার কাজে, অনেক কিছু করতে গিয়ে ঠিক বারোটা বাজে | ঘড়ির কাটায় নয় বারোটা দেহের কাটায় জ্যাম, তাইনা দেখে মুখ লুকিয়ে হাসে ঘনশ্যাম | যখন যাবেন তখন পাবেন ব্যস্ত দাদা কাজে, কি যে করেন চাননা ফিরে আমি মরি লাজে | বিকেল হলে ঘরে ফিরে গিন্নি ডাকেন আহা, কি স্বামী তার কি হয়েছে যা...
এখনো কি দাঁড়িয়ে থাকো সেই রাস্তার মোড়ে সময়টা যে শেষ হয়েছে কালে ভাদ্রের চিন্তা করে । এখনো কি ঐ পথেই যাও এদিক সেদিক তাকিয়ে জানালাটা বন্ধ করা চোখ দুটো যায় ভিজিয়ে। আগের মতোই চশমা পরো ব্যাগটা কাঁধে ঝুলিয়ে কবিতার পশরা সাজাও ছন্দে ছন্দে মিলিয়ে। পাঞ্জাবিটা বড় রঙচটা মানায় না তোমার শরীরে ঘৃণায় আমার রাগ বাড়তো বের হতে যখন ওটা জড়ি...
(আগরতলা 15/11/2020) রাজনীতি যে দাবার গুটি খেলায় চালাক যারা, অন্য লোকে খেলতে গেলে যাবে প্রাণে মারা | গুন কিছু থাক বা না থাক থাকতে হবেই টাকা, তা হলে চিন্তা কিসের থাকবে টিকেট পাকা | রোজ সকালে নাস্তা হবে লাজ সরমের মাথা, মিথ্যা কথায় ডিগ্রী থাকলে থাকবে আসন পাতা | লিখতে গেলে ভাঙে কলম যায় আসে কি তাতে, হাজার লোকে খাড়া থ...
(আগরতলা 22/11/2020 কবি তননের হত্যার প্রতিবাদে) প্রতিবাদ করলেই নেড়ি কুকুরের মতো ক্ষেপে উঠো কলম ধরলেই রক্ত ঝড়াও, জানো ! আমরা কবিরা শেষ বিন্দু রক্ত দিয়েই অন্যায়ের বিরুদ্ধে কবিতা লিখি | যেনে রেখো পিচাশের দল কবিরা মরেনা কবিরা আজীবন বেঁচে থাকে নিপিড়িত মানুষের হৃদয়ে, তননের প্রাণ কেড়ে অনেক সুখ পেলে তাইনা? তনন যে মরেনি সে সংবাদ ত...
Translate »