ঢাকা ০২:০৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo সাংবাদিকতা নিয়ে পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের বিবৃতি ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান Logo রূপসায় ৮ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত Logo আমতলীতে বৌ-ভাতের অনুষ্ঠানে আসার পথে ব্রীজ ভেঙ্গে ৯জন নিহত Logo বরুড়ায় আ.লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত Logo চাঁপাই নবাবগঞ্জে ১৫০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার সহ দুইজন গ্রেফতার Logo সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে কালীগঞ্জে মানববন্ধন Logo গলাচিপায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন Logo তোমাকে যে ধরতে আমি চাই Logo নওগাঁ থেকে বিপুল পরিমান গাঁজাসহ তিন মাদক কারবারি গ্রেফতার Logo মুরাদনগরে রোহিঙ্গাকে জন্ম নিবন্ধন করে দেওয়ায় ইউপি সচিব গ্রেফতার

অভিনেত্রী প্রভাকে লিগ্যাল নোটিশ

একই সাথে দুই আলোচিত ব্যক্তিকে লিগ্যাল নোটিশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি জয়নাল আবেদীন মাযহারী।
বৃহস্পতিবার সকালে এমনই একটি ইমেইল পাঠিয়েছেন দৈনিক মুক্তির লড়াই পত্রিকার অফিসে।

দৈনিক মুক্তির লড়াই পাঠকদের জন্য সেটি হুবহু তুলে ধরা হলো।

১) সামাজিক অসংগতি নিরসনে কাজ করার অভিজ্ঞতা কম নয়। কিছু ক্ষেত্রে সরাসরি সফল হয়েছি। কিছু ক্ষেত্রে রেজাল্ট চর্ম চোখে না পেলেও বিশ্বাস করি কিছু কাজ অবশ্যই হয়েছে। ২০২২ সালের ১৫ই ফেব্রুয়ারি নায়িকা পরিমনিকে বিবাহের পূর্বে আমাদেরকে সন্তানের সংবাদ দেওয়ায় বিয়ে ছাড়া উক্ত সন্তান বিষয়ে প্রশ্ন উঠায় জনমনে সন্দেহ সৃষ্টি হলে তাকে এবং এবং শরীফুল রাজকে লিগ্যাল নোটিশ দেই। সেই নোটিশ পেয়ে তিনি ৪ দিন পর প্রথম আলোকে সাক্ষাৎকার দিয়ে ইনিয়ে বিনিয়ে ইনডাইরেক্টলি বলেছেন রাজকে বিয়ে ছাড়া তার কোন উপায় ছিলো না। নোটিশের বক্তব্যের চাহিদানুসারে পরবর্তীতে তাহার কোন বিতর্কিত সংবাদ আর চোখে পড়েনি। উক্ত নোটিশের বদৌলতে হিরু আলম সাহেব ও পরি মনিকে সাবধান করেছেন। আমি ধরে নিয়েছি তিনি সাবাধান হয়েছেন। এতে কিছু কাজ হলেও হয়েছে। তার উপর তিনি আবার সন্তান সম্ভবা ছিলেন। মানবিক কারনে সেবারের মত আর মামলা পর্যন্ত যাইনি।
২)ছাত্র জীবনে সংবাদ পেলাম ছোট পর্দার তুমুল জনপ্রিয় মডেল অভিনেত্রি সাদিয়া জাহান প্রভার স্ক্যান্ডাল পাবলিক হয়েছে! তখন এসব বিষয়ে তেমন কছিু না বুজলেও এটা বুজতে পেরেছিলাম যে খারাপ কিছু একটা হয়েছে। কিছু দিন আগে একটি পত্রিকায় এই মডেল এক সাক্ষাৎকারে উক্ত ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন! উক্ত বিষয়ে তার পার্টনারের অসততাকে তিনি দায়ী করেছেন। পড়ে দেখলাম এবং ভাবলাম! তিনি বিবাহ বর্হিভূত সম্পর্কে জড়িয়েছেন এবং ৯৫% মোসলমানের দেশে স্বীকৃতি ও দিয়েছেন! আমার ও কন্যা সন্তান আছে। তাহার এই বক্তব্য যদি আমার দেশের হাজার ও কন্যা, মা বোনের কাছে প্রযুক্তির বদৌলতে পৌছেঁ তাহলে তাহারা এসব সম্পর্ককে স্বাভাবিক হিসেবে ধরে নিয়ে জীবন যাপনে অভ্যস্ত হতে পারেন। কোন ব্যক্তি খারাপ হলে এটা সে পর্যন্ত সীমাবদ্ধ থাকলে এতে তৃতীয় ব্যক্তির স্বার্থের হানি ঘটে না। কিন্ত উক্ত ঘটনা নিজেই পাবলিক করলে আামর মত তৃতীয় ব্যক্তি বসে আঙ্গুল চুষতে পারি না।
৩)কিছু দিন আগে দেশের একজন প্রবীণ আলেমকে আল্লাহর রাসূল (দ:) এর ওহি লেখক ছাহাবি হযরত আমীরে মুয়াবিয়া (রা:) আনহু সসম্পর্কে নগ্নভাভে সমালোচনা করতে দেখে বিবেকে নাড়া দিলো। আল্লাহর রাসূল (দ:) এর ছাহাবিদের মর্তবা নিয়ে অনেক পড়েছি। পড়ে যা বুজেছি তা হলো আল্লহার রাসূল (দ:) এর ছাহাবিদের বিষয়ে কোন সমালোচনা করার বিন্দুমাত্র সুযোগ কোন পথ ভ্রষ্ট ব্যক্তি ব্যতিত কারও নেই। উক্ত আলেম একজন বয়োবৃদ্ধ লোক। ওনার স্লিপ অপ টাং হয়ে কথা গুলো বের হয়েছে কিনা নিশ্চিৎ হওয়ার জন্য ওনাকে ফোন করে বিস্তারিত জানতে চাইলাম। উনি আমার কোন কথা না শুনেই ১৫ মিনিট যাবৎ পূর্বের তুলনায় আরও কয়েকগুন সমালোচনা আমীরে মুয়াবিয়া (রা:) সম্পর্কে আমাকে শুনিয়ে দিয়ে ব্যস্ততার অযুহাতে ফোন কেটে দিলেন! ৯৫% মোসলমানের দেশে আল্লাহর রাসূল (দ:) এর ছাহাবী বিদ্দেশী বক্তব্য আমি হজম করতে পারিনি বিধায় বিবেকের তাড়নায় আজ উক্ত দু ব্যক্তির বিরুদ্ধে নোটিশ দিলাম। ঝড় ঝাপটা অনেক আসবে। সকলের দোয়া পেলে আল্লাহ নিশ্চয়ই আমাকে স্ব মহিমায় টিকিয়ে রাখবেন এই আশা করতেই পারি।
৪)আরও একটি কথা। আমার আইন পেশাকে মিথ্যার বিরদ্ধে যুদ্ধ করার সবচেয়ে বড় অস্ত্র হিসেবে আমি ব্যবহার করি এবং এই বিষয়টি আমি মনে প্রানে বিশ্বাস ও করি। প্রথিবীর অন্য কোন পেশায় এমন অস্ত্র আছে কিনা? আমার জানা নেই। যদিও সাম্প্রতিক সময়ে কিছু অসৎ লোক এই মহৎ পেশাকে কলুষিত করেছে। এই পেশাকে খাটো করে চ্যানেল আইতে আইনের মারপ্যাচ নামক একটি টেলিফিল্ম দুইবার দেখানোর পর নাকটকি আমর গোচরীভূত হয়েছে। দেখেছি একটি সম্মানিত পেশাকে অভিনয়ের মাধ্যমে একে বারে বাটপারি পেশায় রুপান্তরিত করেছে। অনেক কষ্ট করে চ্যানেল আই কতৃপক্ষের নাম্বার ও অভিনেতা আ,খ,ম হাসান সাহেবের নাম্বার সংগ্রহ করে উক্ত বিষয়ে ব্যাখ্যা চাইলে নাটকের পরিচালক একটি দায়সারা বক্তব্য দিয়ে দুই দিন তাদের চ্যানেলে নাটক বন্ধ রেখে নাটক এডিট করে পূনরায় চ্যানেলে পাবলিক করেছে। আমি বলেছি এতো বড় একটি চ্যানেলে নাটকটি দুইবার প্রদর্শন হয়েছে। এডিটের পূর্বে ইউটিউবে প্রায় দেড় লক্ষ লোক দেখেছে। যারা দেখেছে তাদেরকে একটি কৈফিয়ত বার্তা দিয়ে বিভ্রান্তি নিরসন করতে। পরিচালক আমাকে আশ্বাস দিয়ে অদ্যাবধি কোন অগ্রগতি দেখি নাই। তাদের বিষয়েও আইনী পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়ে অনেক দূর এগিয়েছি। ভালো কাজগুলো করে যেতে চাই। আল্লাহ ভরসা।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সাংবাদিকতা নিয়ে পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের বিবৃতি ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান

অভিনেত্রী প্রভাকে লিগ্যাল নোটিশ

আপডেট সময় ১০:৩৮:০২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩

একই সাথে দুই আলোচিত ব্যক্তিকে লিগ্যাল নোটিশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি জয়নাল আবেদীন মাযহারী।
বৃহস্পতিবার সকালে এমনই একটি ইমেইল পাঠিয়েছেন দৈনিক মুক্তির লড়াই পত্রিকার অফিসে।

দৈনিক মুক্তির লড়াই পাঠকদের জন্য সেটি হুবহু তুলে ধরা হলো।

১) সামাজিক অসংগতি নিরসনে কাজ করার অভিজ্ঞতা কম নয়। কিছু ক্ষেত্রে সরাসরি সফল হয়েছি। কিছু ক্ষেত্রে রেজাল্ট চর্ম চোখে না পেলেও বিশ্বাস করি কিছু কাজ অবশ্যই হয়েছে। ২০২২ সালের ১৫ই ফেব্রুয়ারি নায়িকা পরিমনিকে বিবাহের পূর্বে আমাদেরকে সন্তানের সংবাদ দেওয়ায় বিয়ে ছাড়া উক্ত সন্তান বিষয়ে প্রশ্ন উঠায় জনমনে সন্দেহ সৃষ্টি হলে তাকে এবং এবং শরীফুল রাজকে লিগ্যাল নোটিশ দেই। সেই নোটিশ পেয়ে তিনি ৪ দিন পর প্রথম আলোকে সাক্ষাৎকার দিয়ে ইনিয়ে বিনিয়ে ইনডাইরেক্টলি বলেছেন রাজকে বিয়ে ছাড়া তার কোন উপায় ছিলো না। নোটিশের বক্তব্যের চাহিদানুসারে পরবর্তীতে তাহার কোন বিতর্কিত সংবাদ আর চোখে পড়েনি। উক্ত নোটিশের বদৌলতে হিরু আলম সাহেব ও পরি মনিকে সাবধান করেছেন। আমি ধরে নিয়েছি তিনি সাবাধান হয়েছেন। এতে কিছু কাজ হলেও হয়েছে। তার উপর তিনি আবার সন্তান সম্ভবা ছিলেন। মানবিক কারনে সেবারের মত আর মামলা পর্যন্ত যাইনি।
২)ছাত্র জীবনে সংবাদ পেলাম ছোট পর্দার তুমুল জনপ্রিয় মডেল অভিনেত্রি সাদিয়া জাহান প্রভার স্ক্যান্ডাল পাবলিক হয়েছে! তখন এসব বিষয়ে তেমন কছিু না বুজলেও এটা বুজতে পেরেছিলাম যে খারাপ কিছু একটা হয়েছে। কিছু দিন আগে একটি পত্রিকায় এই মডেল এক সাক্ষাৎকারে উক্ত ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন! উক্ত বিষয়ে তার পার্টনারের অসততাকে তিনি দায়ী করেছেন। পড়ে দেখলাম এবং ভাবলাম! তিনি বিবাহ বর্হিভূত সম্পর্কে জড়িয়েছেন এবং ৯৫% মোসলমানের দেশে স্বীকৃতি ও দিয়েছেন! আমার ও কন্যা সন্তান আছে। তাহার এই বক্তব্য যদি আমার দেশের হাজার ও কন্যা, মা বোনের কাছে প্রযুক্তির বদৌলতে পৌছেঁ তাহলে তাহারা এসব সম্পর্ককে স্বাভাবিক হিসেবে ধরে নিয়ে জীবন যাপনে অভ্যস্ত হতে পারেন। কোন ব্যক্তি খারাপ হলে এটা সে পর্যন্ত সীমাবদ্ধ থাকলে এতে তৃতীয় ব্যক্তির স্বার্থের হানি ঘটে না। কিন্ত উক্ত ঘটনা নিজেই পাবলিক করলে আামর মত তৃতীয় ব্যক্তি বসে আঙ্গুল চুষতে পারি না।
৩)কিছু দিন আগে দেশের একজন প্রবীণ আলেমকে আল্লাহর রাসূল (দ:) এর ওহি লেখক ছাহাবি হযরত আমীরে মুয়াবিয়া (রা:) আনহু সসম্পর্কে নগ্নভাভে সমালোচনা করতে দেখে বিবেকে নাড়া দিলো। আল্লাহর রাসূল (দ:) এর ছাহাবিদের মর্তবা নিয়ে অনেক পড়েছি। পড়ে যা বুজেছি তা হলো আল্লহার রাসূল (দ:) এর ছাহাবিদের বিষয়ে কোন সমালোচনা করার বিন্দুমাত্র সুযোগ কোন পথ ভ্রষ্ট ব্যক্তি ব্যতিত কারও নেই। উক্ত আলেম একজন বয়োবৃদ্ধ লোক। ওনার স্লিপ অপ টাং হয়ে কথা গুলো বের হয়েছে কিনা নিশ্চিৎ হওয়ার জন্য ওনাকে ফোন করে বিস্তারিত জানতে চাইলাম। উনি আমার কোন কথা না শুনেই ১৫ মিনিট যাবৎ পূর্বের তুলনায় আরও কয়েকগুন সমালোচনা আমীরে মুয়াবিয়া (রা:) সম্পর্কে আমাকে শুনিয়ে দিয়ে ব্যস্ততার অযুহাতে ফোন কেটে দিলেন! ৯৫% মোসলমানের দেশে আল্লাহর রাসূল (দ:) এর ছাহাবী বিদ্দেশী বক্তব্য আমি হজম করতে পারিনি বিধায় বিবেকের তাড়নায় আজ উক্ত দু ব্যক্তির বিরুদ্ধে নোটিশ দিলাম। ঝড় ঝাপটা অনেক আসবে। সকলের দোয়া পেলে আল্লাহ নিশ্চয়ই আমাকে স্ব মহিমায় টিকিয়ে রাখবেন এই আশা করতেই পারি।
৪)আরও একটি কথা। আমার আইন পেশাকে মিথ্যার বিরদ্ধে যুদ্ধ করার সবচেয়ে বড় অস্ত্র হিসেবে আমি ব্যবহার করি এবং এই বিষয়টি আমি মনে প্রানে বিশ্বাস ও করি। প্রথিবীর অন্য কোন পেশায় এমন অস্ত্র আছে কিনা? আমার জানা নেই। যদিও সাম্প্রতিক সময়ে কিছু অসৎ লোক এই মহৎ পেশাকে কলুষিত করেছে। এই পেশাকে খাটো করে চ্যানেল আইতে আইনের মারপ্যাচ নামক একটি টেলিফিল্ম দুইবার দেখানোর পর নাকটকি আমর গোচরীভূত হয়েছে। দেখেছি একটি সম্মানিত পেশাকে অভিনয়ের মাধ্যমে একে বারে বাটপারি পেশায় রুপান্তরিত করেছে। অনেক কষ্ট করে চ্যানেল আই কতৃপক্ষের নাম্বার ও অভিনেতা আ,খ,ম হাসান সাহেবের নাম্বার সংগ্রহ করে উক্ত বিষয়ে ব্যাখ্যা চাইলে নাটকের পরিচালক একটি দায়সারা বক্তব্য দিয়ে দুই দিন তাদের চ্যানেলে নাটক বন্ধ রেখে নাটক এডিট করে পূনরায় চ্যানেলে পাবলিক করেছে। আমি বলেছি এতো বড় একটি চ্যানেলে নাটকটি দুইবার প্রদর্শন হয়েছে। এডিটের পূর্বে ইউটিউবে প্রায় দেড় লক্ষ লোক দেখেছে। যারা দেখেছে তাদেরকে একটি কৈফিয়ত বার্তা দিয়ে বিভ্রান্তি নিরসন করতে। পরিচালক আমাকে আশ্বাস দিয়ে অদ্যাবধি কোন অগ্রগতি দেখি নাই। তাদের বিষয়েও আইনী পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়ে অনেক দূর এগিয়েছি। ভালো কাজগুলো করে যেতে চাই। আল্লাহ ভরসা।