ঢাকা ১০:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আখাউড়ায় ইসলামি বক্তার জিহ্বা কাটার ঘটনায় চারজন গ্রেপ্তার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ইসলামি বক্তা শরীফুল ইসলাম ভূইয়ার জিহ্বা কেটে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র্যব-৯। বুধবার (৮ মার্চ) দুপুরে শহরের পৈরতলায় অস্থায়ী ক্যাম্পে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান র্যব-৯ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার মুমিনুল হক।

এর আগে মঙ্গলবার (৭ মার্চ) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে অভিযান চালিয়ে মামলার এজাহারভুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার শ্রীপুর গ্রামের মৃত হেলিম ভূইয়ার ছেলে জাকির হোসেন জাক্কু (৪৮), একই গ্রামের আমির আলী ভূইয়ার ছেলে মাহবুবুল আল শিমুল (৩৩), একই উপজেলার দৌলতবাড়ি চাওড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে সুমন (৩৫), কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার বিংলা বাড়ির গ্রামের মৃত শেবু মিয়ার ছেলে আমিরুল ইসলাম রিমন (২০)।

র্যব-৯ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার মুমিনুল হক জানান, গত ৫ মার্চ ইসলামি বক্তা মাওলানা শরীফুল ইসলাম ভূইয়া বিজয়নগর উপজেলার দৌলতবাড়ি দরবার শরীফের মাহফিল থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে আখাউড়ার রামধননগর এলাকার রেলক্রসিং উত্তর পাশে মামলার আসামিসহ অজ্ঞাতনামা অন্যরা তাকে আটক করে হত্যার উদ্দেশ্যে তার ওপর আক্রমণ করে তার জিহ্বা কেটে দেয়। এ ঘটনায় তার চাচা বাদী হয়ে আখাউড়ায় থানায় মামলা করেন। ঘটনাটি দেশব্যাপী ব্যাপক আলোচিত হয়। এর পেক্ষিতে র্যব-৯ ঘটনাটির ছায়া তদন্ত শুরু করে তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় চারজনকে গ্রেপ্তার করে। তাদেরকে আখাউড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানান, গত ৫ মার্চ একটি মাহফিলে দেওয়া শরীফুল ইসলাম ভূইয়ার বক্তব্যের কিছু অংশ তাদের কাছে গ্রহণযোগ্য মনে হয়নি। সেই বক্তব্যের কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা হামলা চালিয়ে জিহ্বা কেটে দেয় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম করে। তার সঙ্গে থাকা সহযোগীকেও আহত করে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

আখাউড়ায় ইসলামি বক্তার জিহ্বা কাটার ঘটনায় চারজন গ্রেপ্তার

আপডেট সময় ১২:৪৮:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ মার্চ ২০২৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ইসলামি বক্তা শরীফুল ইসলাম ভূইয়ার জিহ্বা কেটে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র্যব-৯। বুধবার (৮ মার্চ) দুপুরে শহরের পৈরতলায় অস্থায়ী ক্যাম্পে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান র্যব-৯ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার মুমিনুল হক।

এর আগে মঙ্গলবার (৭ মার্চ) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে অভিযান চালিয়ে মামলার এজাহারভুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার শ্রীপুর গ্রামের মৃত হেলিম ভূইয়ার ছেলে জাকির হোসেন জাক্কু (৪৮), একই গ্রামের আমির আলী ভূইয়ার ছেলে মাহবুবুল আল শিমুল (৩৩), একই উপজেলার দৌলতবাড়ি চাওড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে সুমন (৩৫), কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার বিংলা বাড়ির গ্রামের মৃত শেবু মিয়ার ছেলে আমিরুল ইসলাম রিমন (২০)।

র্যব-৯ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার মুমিনুল হক জানান, গত ৫ মার্চ ইসলামি বক্তা মাওলানা শরীফুল ইসলাম ভূইয়া বিজয়নগর উপজেলার দৌলতবাড়ি দরবার শরীফের মাহফিল থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে আখাউড়ার রামধননগর এলাকার রেলক্রসিং উত্তর পাশে মামলার আসামিসহ অজ্ঞাতনামা অন্যরা তাকে আটক করে হত্যার উদ্দেশ্যে তার ওপর আক্রমণ করে তার জিহ্বা কেটে দেয়। এ ঘটনায় তার চাচা বাদী হয়ে আখাউড়ায় থানায় মামলা করেন। ঘটনাটি দেশব্যাপী ব্যাপক আলোচিত হয়। এর পেক্ষিতে র্যব-৯ ঘটনাটির ছায়া তদন্ত শুরু করে তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় চারজনকে গ্রেপ্তার করে। তাদেরকে আখাউড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানান, গত ৫ মার্চ একটি মাহফিলে দেওয়া শরীফুল ইসলাম ভূইয়ার বক্তব্যের কিছু অংশ তাদের কাছে গ্রহণযোগ্য মনে হয়নি। সেই বক্তব্যের কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা হামলা চালিয়ে জিহ্বা কেটে দেয় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম করে। তার সঙ্গে থাকা সহযোগীকেও আহত করে।