ঢাকা ১২:১৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কালীগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সুমনসহ তিন জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর অভিযোগ

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের কালীগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমনসহ তিন জনের বিরুদ্ধে ২৫ লাখ টাকার চাঁদাবাজীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। দাবিকৃত টাকা না দিয়ে কাজ করলে হত্যার হুমকিও দিয়েছেন আনিসুর রহমান, রনি হায়দার সুমন ও সাদিকুর রহমান।
এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে প্রজেক্টের পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখ কালীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। শনিবার দুপুরে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের অভিযোগ করেন প্রজেক্টের পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখ। অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কালীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মো. সোহেল রানা।
মো. আনিসুর রহমান ঢাকা উত্তরার মৃত ওয়াজেদ আলী আহমেদ এর ছেলে। রনি হায়দার সুমন সংগঠন বিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ থেকে সোকজ খাওয়া নেতা ও তুমলিয়া ইউনিয়নের বোয়ালী গ্রামের রবিউল আউয়াল এর ছেলে। সাদিকুর রহমান এর বাড়ী উপজেলার মোক্তারপুর।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শিমুলিয়া এলাকায় নর্থ সাউথ গ্রুপের ইন্ডাষ্ট্রিরিয়াল সিটি নামের একটি প্রজেক্টের স্থাপনা নির্মাণ সহ বিভিন্ন ধরনের কাজ করার বিভিন্ন সময়ে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমনসহ বেশ কয়েকজন ২৫ লাখ টাকা চাঁদাদাবী করে তাদের কাজে বাধা প্রদান করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ১৭ নভেম্বর দুপুরে মো. আনিসুর রহমান, রনি হায়দার সুমন ও সাদিকুর রহমান সহ অজ্ঞাত ৩০/৩৫ জনলোক প্রজেক্টের ভিতর প্রবেশ করিয়া প্রথমে সিকিউরিটি গার্ডদের অতর্কিত মারপিট করিয়া আতঙ্ক সৃষ্ঠি করে। পরে প্রজেক্টের সাইড অফিস, অফিসে থাকা ৪০টি চেয়ার, ২টি খাট ভাংচুর ও প্লাষ্টিকের কয়েকটি পাইপে আগুন দিয়ে আনুমানিক ২ লক্ষ ৮৬ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন করেন। ঐ সময় সিকিউরিটি গার্ডগণ ডাক চিৎকার করলেও রাস্তায় চলাচলরত লোকজন ঘটনা দেখিয়া তাদের ভয়ে ঘটনাস্থলে আসতে সাহস পায় নাই। পরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমন সহ তারা চলে যাওয়ার সময় প্রকাশ্যে বলে যান, প্রজেক্টে কোন কাজ করতে হলে আমাদের ২৫ লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে। দাবীকৃত চাঁদা পরিশোধ না করা পর্যন্ত প্রজেক্টের কাজ বন্ধ থাকবে। আর যদি পূনরায় কাজ করার চেষ্টা করে তাহলে প্লাষ্টিকের পাইপের মত আগুন দিয়া জ্বালাইয়া প্রজেক্টের সিমানা ছিন্নবিচ্ছিন্ন করাসহ প্রজেক্টের ডেভেলপমেন্ট পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখকে দেখামাত্র হত্যার হুমকি দেন।
নর্থ সাউথ গ্রুপের ডেভেলপমেন্ট পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখ বলেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমন, উত্তরার আনিসুর রহমান ও সাদিকুর রহমান অজ্ঞাত ৩০/৩৫ জনলোক নিয়ে ১৭ নভেম্বর দুপুরে আমাদের প্রজেক্টে আসিয়া সিকিউরিটি গার্ডদের মারপিট করিয়া আতঙ্ক সৃষ্ঠি করে। পরে আমাদের সাইড অফিস, অফিসে থাকা ৪০টি চেয়ার ও ২টি খাট ভাংচুর এবং প্লাষ্টিকের কয়েকটি পাইপে আগুন দিয়ে আনুমানিক ২ লক্ষ ৮৬ হাজার টাকার ক্ষতি করেন। এ বিষয়ে আমি বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।
এ বিষয়ে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমন বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সঠিক নয়। আমি নর্থ সাউথ গ্রুপের ইন্ডাষ্ট্রিরিয়াল সিটি নামের প্রজেক্টে কোন দিন যাইনি। এবং প্রজেক্টের ডেভেলপমেন্ট পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখকে আমি চিনিনা।
এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. সাদেকুর রহমান বলেন, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ মিথ্যা। আমি নর্থ সাউথ গ্রুপের ইন্ডাষ্ট্রিরিয়াল সিটি নামের প্রজেক্টে কোন দিন যাইনি। তবে এ প্রজেক্টের ডেভেলপমেন্ট পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখকে আমি চিনি।
ওসি (তদন্ত) মো. সোহেল রানা বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কালীগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সুমনসহ তিন জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর অভিযোগ

আপডেট সময় ১১:১১:২৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২১ নভেম্বর ২০২২

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের কালীগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমনসহ তিন জনের বিরুদ্ধে ২৫ লাখ টাকার চাঁদাবাজীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। দাবিকৃত টাকা না দিয়ে কাজ করলে হত্যার হুমকিও দিয়েছেন আনিসুর রহমান, রনি হায়দার সুমন ও সাদিকুর রহমান।
এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে প্রজেক্টের পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখ কালীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। শনিবার দুপুরে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের অভিযোগ করেন প্রজেক্টের পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখ। অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কালীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মো. সোহেল রানা।
মো. আনিসুর রহমান ঢাকা উত্তরার মৃত ওয়াজেদ আলী আহমেদ এর ছেলে। রনি হায়দার সুমন সংগঠন বিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ থেকে সোকজ খাওয়া নেতা ও তুমলিয়া ইউনিয়নের বোয়ালী গ্রামের রবিউল আউয়াল এর ছেলে। সাদিকুর রহমান এর বাড়ী উপজেলার মোক্তারপুর।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শিমুলিয়া এলাকায় নর্থ সাউথ গ্রুপের ইন্ডাষ্ট্রিরিয়াল সিটি নামের একটি প্রজেক্টের স্থাপনা নির্মাণ সহ বিভিন্ন ধরনের কাজ করার বিভিন্ন সময়ে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমনসহ বেশ কয়েকজন ২৫ লাখ টাকা চাঁদাদাবী করে তাদের কাজে বাধা প্রদান করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ১৭ নভেম্বর দুপুরে মো. আনিসুর রহমান, রনি হায়দার সুমন ও সাদিকুর রহমান সহ অজ্ঞাত ৩০/৩৫ জনলোক প্রজেক্টের ভিতর প্রবেশ করিয়া প্রথমে সিকিউরিটি গার্ডদের অতর্কিত মারপিট করিয়া আতঙ্ক সৃষ্ঠি করে। পরে প্রজেক্টের সাইড অফিস, অফিসে থাকা ৪০টি চেয়ার, ২টি খাট ভাংচুর ও প্লাষ্টিকের কয়েকটি পাইপে আগুন দিয়ে আনুমানিক ২ লক্ষ ৮৬ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন করেন। ঐ সময় সিকিউরিটি গার্ডগণ ডাক চিৎকার করলেও রাস্তায় চলাচলরত লোকজন ঘটনা দেখিয়া তাদের ভয়ে ঘটনাস্থলে আসতে সাহস পায় নাই। পরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমন সহ তারা চলে যাওয়ার সময় প্রকাশ্যে বলে যান, প্রজেক্টে কোন কাজ করতে হলে আমাদের ২৫ লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে। দাবীকৃত চাঁদা পরিশোধ না করা পর্যন্ত প্রজেক্টের কাজ বন্ধ থাকবে। আর যদি পূনরায় কাজ করার চেষ্টা করে তাহলে প্লাষ্টিকের পাইপের মত আগুন দিয়া জ্বালাইয়া প্রজেক্টের সিমানা ছিন্নবিচ্ছিন্ন করাসহ প্রজেক্টের ডেভেলপমেন্ট পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখকে দেখামাত্র হত্যার হুমকি দেন।
নর্থ সাউথ গ্রুপের ডেভেলপমেন্ট পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখ বলেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমন, উত্তরার আনিসুর রহমান ও সাদিকুর রহমান অজ্ঞাত ৩০/৩৫ জনলোক নিয়ে ১৭ নভেম্বর দুপুরে আমাদের প্রজেক্টে আসিয়া সিকিউরিটি গার্ডদের মারপিট করিয়া আতঙ্ক সৃষ্ঠি করে। পরে আমাদের সাইড অফিস, অফিসে থাকা ৪০টি চেয়ার ও ২টি খাট ভাংচুর এবং প্লাষ্টিকের কয়েকটি পাইপে আগুন দিয়ে আনুমানিক ২ লক্ষ ৮৬ হাজার টাকার ক্ষতি করেন। এ বিষয়ে আমি বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।
এ বিষয়ে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রনি হায়দার সুমন বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সঠিক নয়। আমি নর্থ সাউথ গ্রুপের ইন্ডাষ্ট্রিরিয়াল সিটি নামের প্রজেক্টে কোন দিন যাইনি। এবং প্রজেক্টের ডেভেলপমেন্ট পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখকে আমি চিনিনা।
এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. সাদেকুর রহমান বলেন, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ মিথ্যা। আমি নর্থ সাউথ গ্রুপের ইন্ডাষ্ট্রিরিয়াল সিটি নামের প্রজেক্টে কোন দিন যাইনি। তবে এ প্রজেক্টের ডেভেলপমেন্ট পরিচালক মো. ওয়াদুদ শেখকে আমি চিনি।
ওসি (তদন্ত) মো. সোহেল রানা বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।