ঢাকা ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কিশোরগঞ্জে ছেলেক ছুরিকাঘাতের অভিযোগে বাবা আটক

মোঃ ওয়াহিদ, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
কিশোরগঞ্জে বাবার ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছেলে।

রোববার (২৮ মে) সকাল সাড়ে নয়টায় সদর উপজেলার কোর্ট শোলাকিয়ার গাছ বাজার এলাকার আজরাদীতে এ ঘটনাটি ঘটে। গুরুতর আহত রাব্বি (২২) সদর উপজেলার বৌলাই ইউনিয়নের পাটধা গ্রামের দানিসের ছেলে। সদ্য বিবাহিত রাব্বি ইলেকট্রিক মিস্ত্রির কাজ করেন। অভিযুক্ত দানিস জেলা শহরের কোর্ট শোলাকিয়া এলাকায় বেশ কিছুদিন ধরে ছেলে রাব্বিসহ স্বপরিবারে মতিন মিয়ার বাসায় ভাড়ায় থাকেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, দীর্ঘদিন যাবৎ মাদক ও চরিত্রহীনতার কারণে বাবা ছেলের মাঝে পারিবারিক কলহ চলছিল। পারিবারিক কলহের জের ধরে শনিবার (২৭ মে) রাতে বাপছেলের মাঝে তর্কাতর্কি হয়। পরে রোববার (২৮ মে) সকালে দাঁড়ালো কিছু দিয়ে বাবা দানিস ছেলে রাব্বিকে গলায়, বুকে ও পিঠে মারাত্বক রক্তাক্ত আঘাত করে।

ঘটনার পরপর স্থানীয়রা রাব্বিকে গুরুতর আহত অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় এবং অভিযুক্ত পিতা দানিসকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত দানিসকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এলাকাবাসী আরও জানায়, অভিযুক্ত দানিস নেশাগ্রস্ত মানুষ। সার্বক্ষনিক সে নেশাগ্রস্থ থাকে। ছেলের কাছে নেশার টাকা চেয়ে না পাওয়ায় এ ঘটনার সুত্রপাত। অপরদিকে চরিত্র হীনতার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এর আগেও ছেলের কাছে নেশার টাকা চাওয়া নিয়ে ঝগড়াঝাঁটি হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দাউদ জানান, খবর পেয়ে আমি নিজে সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্তকে থানায় নিয়ে আসি। আহত রাব্বির খোঁজ নেওয়ার জন্য একজন এএসআইকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছি। স্বজনদের অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কিশোরগঞ্জে ছেলেক ছুরিকাঘাতের অভিযোগে বাবা আটক

আপডেট সময় ০১:৩৩:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মে ২০২৩

মোঃ ওয়াহিদ, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
কিশোরগঞ্জে বাবার ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছেলে।

রোববার (২৮ মে) সকাল সাড়ে নয়টায় সদর উপজেলার কোর্ট শোলাকিয়ার গাছ বাজার এলাকার আজরাদীতে এ ঘটনাটি ঘটে। গুরুতর আহত রাব্বি (২২) সদর উপজেলার বৌলাই ইউনিয়নের পাটধা গ্রামের দানিসের ছেলে। সদ্য বিবাহিত রাব্বি ইলেকট্রিক মিস্ত্রির কাজ করেন। অভিযুক্ত দানিস জেলা শহরের কোর্ট শোলাকিয়া এলাকায় বেশ কিছুদিন ধরে ছেলে রাব্বিসহ স্বপরিবারে মতিন মিয়ার বাসায় ভাড়ায় থাকেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, দীর্ঘদিন যাবৎ মাদক ও চরিত্রহীনতার কারণে বাবা ছেলের মাঝে পারিবারিক কলহ চলছিল। পারিবারিক কলহের জের ধরে শনিবার (২৭ মে) রাতে বাপছেলের মাঝে তর্কাতর্কি হয়। পরে রোববার (২৮ মে) সকালে দাঁড়ালো কিছু দিয়ে বাবা দানিস ছেলে রাব্বিকে গলায়, বুকে ও পিঠে মারাত্বক রক্তাক্ত আঘাত করে।

ঘটনার পরপর স্থানীয়রা রাব্বিকে গুরুতর আহত অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় এবং অভিযুক্ত পিতা দানিসকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত দানিসকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এলাকাবাসী আরও জানায়, অভিযুক্ত দানিস নেশাগ্রস্ত মানুষ। সার্বক্ষনিক সে নেশাগ্রস্থ থাকে। ছেলের কাছে নেশার টাকা চেয়ে না পাওয়ায় এ ঘটনার সুত্রপাত। অপরদিকে চরিত্র হীনতার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এর আগেও ছেলের কাছে নেশার টাকা চাওয়া নিয়ে ঝগড়াঝাঁটি হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দাউদ জানান, খবর পেয়ে আমি নিজে সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্তকে থানায় নিয়ে আসি। আহত রাব্বির খোঁজ নেওয়ার জন্য একজন এএসআইকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছি। স্বজনদের অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।