ঢাকা ০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জাতিসংঘ ভবনে ‘যুদ্ধ ও নারী’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচিত

জাতিসংঘ ভবনে ‘যুদ্ধ ও নারী’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচিত হয়েছে।
ইউরোপে বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধারা এটি আয়োজন করেছিল। ফ্রাঙ্কফুর্ট থেকে আমিন খশরু, জুরিখ থেকে তাজুল ইসলাম এবং জেনেভা থেকে ডক্টর ইকবাল আহমেদ।
উপস্থিত ছিলেন এবং ১৯৭১ সালে গণহত্যা নিয়ে পাক বাহিনীর বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখেন।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জুরিখ নিবাসী বিডি মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইসলাম। তিনি বইটির তাৎপর্য সম্পর্কে কথা বলেছিলেন, যা ১৯৭১ সালের যুদ্ধের সময় পাকিস্তান সেনাবাহিনীর দ্বারা বাঙ্গালী নারীদের যৌন নির্যাতনের শিকার হওয়ার একটি সাক্ষ্য ছিল। এটিকে গণহত্যা হিসেবে আখ্যায়িত করে তাজুল ইসলাম জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলকে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান।
জাতিসংঘ ভবনের অভ্যন্তরে সার্পেন্টাইন ক্যাফেটেরিয়ায় অনুষ্ঠিত বইয়ের উদ্বোধনে আন্তর্জাতিক এনজিওর নির্বাহী সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।
বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে মোট ২৫-৩০ জন উপস্থিত ছিলেন। ঢাকা থেকে একটি ভিডিও উপস্থাপনায় বইটির লেখক ডঃ হাসান পাকিস্তানি সৈন্যদের দ্বারা সংঘটিত এই ধরনের নির্যাতনের বাস্তবতা ব্যাখ্যা করেছেন।
ল্যামিনো, জেনেভা থেকে একজন মানবাধিকার রক্ষক.বই উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন মানবাধিকার কাউন্সিলকে গণহত্যার অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য।

আপলোডকারীর তথ্য

জাতিসংঘ ভবনে ‘যুদ্ধ ও নারী’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচিত

আপডেট সময় ০৬:৫২:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩

জাতিসংঘ ভবনে ‘যুদ্ধ ও নারী’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচিত হয়েছে।
ইউরোপে বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধারা এটি আয়োজন করেছিল। ফ্রাঙ্কফুর্ট থেকে আমিন খশরু, জুরিখ থেকে তাজুল ইসলাম এবং জেনেভা থেকে ডক্টর ইকবাল আহমেদ।
উপস্থিত ছিলেন এবং ১৯৭১ সালে গণহত্যা নিয়ে পাক বাহিনীর বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখেন।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জুরিখ নিবাসী বিডি মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইসলাম। তিনি বইটির তাৎপর্য সম্পর্কে কথা বলেছিলেন, যা ১৯৭১ সালের যুদ্ধের সময় পাকিস্তান সেনাবাহিনীর দ্বারা বাঙ্গালী নারীদের যৌন নির্যাতনের শিকার হওয়ার একটি সাক্ষ্য ছিল। এটিকে গণহত্যা হিসেবে আখ্যায়িত করে তাজুল ইসলাম জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলকে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান।
জাতিসংঘ ভবনের অভ্যন্তরে সার্পেন্টাইন ক্যাফেটেরিয়ায় অনুষ্ঠিত বইয়ের উদ্বোধনে আন্তর্জাতিক এনজিওর নির্বাহী সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।
বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে মোট ২৫-৩০ জন উপস্থিত ছিলেন। ঢাকা থেকে একটি ভিডিও উপস্থাপনায় বইটির লেখক ডঃ হাসান পাকিস্তানি সৈন্যদের দ্বারা সংঘটিত এই ধরনের নির্যাতনের বাস্তবতা ব্যাখ্যা করেছেন।
ল্যামিনো, জেনেভা থেকে একজন মানবাধিকার রক্ষক.বই উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন মানবাধিকার কাউন্সিলকে গণহত্যার অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য।