ঢাকা ০১:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo সাংবাদিকতা নিয়ে পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের বিবৃতি ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান Logo রূপসায় ৮ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত Logo আমতলীতে বৌ-ভাতের অনুষ্ঠানে আসার পথে ব্রীজ ভেঙ্গে ৯জন নিহত Logo বরুড়ায় আ.লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত Logo চাঁপাই নবাবগঞ্জে ১৫০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার সহ দুইজন গ্রেফতার Logo সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে কালীগঞ্জে মানববন্ধন Logo গলাচিপায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন Logo তোমাকে যে ধরতে আমি চাই Logo নওগাঁ থেকে বিপুল পরিমান গাঁজাসহ তিন মাদক কারবারি গ্রেফতার Logo মুরাদনগরে রোহিঙ্গাকে জন্ম নিবন্ধন করে দেওয়ায় ইউপি সচিব গ্রেফতার

ঝালকাঠিতে বিএনপির ১০৬ জনের নামে বিস্ফোরক আইনে মামলা

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুর থানায় বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীকে আসামি করে বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২৯ নভেম্বর উপজেলা আওয়ামিলীগের দপ্তর সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম ইলিয়াস ফরাজি বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় উপজেলা বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ ২৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত সহ ১০৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলা নং-৯

মামলার বিবরন থেকে জানা যায়, ২৮ নভেম্বর রাত ১১ টার দিকে মামলার বাদি ও রাজাপুর উপজেলা আওয়ামিলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী শুক্তাগর ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন হাওলাদারের বাড়ীতে শীত উপলক্ষে দাওয়াত খেয়ে রওয়ানা দিয়ে রাত ১১ টা ৩৫ মিনিটে পিংড়ী মাধ্যমিক বিদ্যালয় অতিক্রম করার সময় শতাধিক বিএনপির নেতাকর্মী বিদ্যালয়ের পুরাতন টিনসেট ভবনের সামনের বারান্দায় গোপন শলাপরামর্শ করতে দেখে বিষয়টি জানতে টর্চলাইট নিয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হলে উপস্থিত বিএনপির নেতাকর্মী তাদেরকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট করা সহ ৬ থেকে ৭ টি বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। এ ঘটনায় বাদী সহ ৩ জন স্বাক্ষী আহত হলে স্থানীয় ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা গ্রহণ করেন।

এ বিষয়ে মামলার প্রধান আসামি উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. তালুকদার আবুল কালাম আজাদ বলেন, ঘটনাস্থল পিংড়ীর মানুষের কাছে খোঁজ নিলেই জানা যাবে এমন কোন ঘটনা ঘটেছে কিনা। ঘটনা স্থলের মানুষ জানলোইনা অথচ আমাদের হয়রানির উদ্দেশ্যে মামলা হয়ে গেল। মুলত অবৈধ সরকার পতনে বিএনপির দেশব্যাপী চলমান আন্দোলন সংগ্রামে আমরা রাজাপুর উপজেলা বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ব্যারিস্টার এম শাহজাহান ওমর বীর উত্তমের নেতৃত্বে মাঠে রয়েছি। আমাদের মাঝে ভীতি তৈরি করে আন্দোলনে বাধা প্রদানের জন্য এই গায়েবী মামলা করা হয়েছে। সাধারন মানুষ বোঝে ৬/৭ টা বোমা মারলে শুধু প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েই সুস্থ হয়ে যায় কিভাবে? কোনো চক্রান্তই আমাদের দমাতে পারবেনা। এই স্বৈরাচারী সরকার পতনের আগ পর্যন্ত আমরা ঘরে উঠবনা।

এ বিষয়ে রাজাপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পুলক চন্দ্র রায় বলেন, এখন পর্যন্ত কোনো আসামি গ্রেপ্তার হয় নাই। আসামি গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সাংবাদিকতা নিয়ে পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের বিবৃতি ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান

ঝালকাঠিতে বিএনপির ১০৬ জনের নামে বিস্ফোরক আইনে মামলা

আপডেট সময় ১২:৩৩:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুর থানায় বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীকে আসামি করে বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২৯ নভেম্বর উপজেলা আওয়ামিলীগের দপ্তর সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম ইলিয়াস ফরাজি বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় উপজেলা বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ ২৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত সহ ১০৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলা নং-৯

মামলার বিবরন থেকে জানা যায়, ২৮ নভেম্বর রাত ১১ টার দিকে মামলার বাদি ও রাজাপুর উপজেলা আওয়ামিলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী শুক্তাগর ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন হাওলাদারের বাড়ীতে শীত উপলক্ষে দাওয়াত খেয়ে রওয়ানা দিয়ে রাত ১১ টা ৩৫ মিনিটে পিংড়ী মাধ্যমিক বিদ্যালয় অতিক্রম করার সময় শতাধিক বিএনপির নেতাকর্মী বিদ্যালয়ের পুরাতন টিনসেট ভবনের সামনের বারান্দায় গোপন শলাপরামর্শ করতে দেখে বিষয়টি জানতে টর্চলাইট নিয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হলে উপস্থিত বিএনপির নেতাকর্মী তাদেরকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট করা সহ ৬ থেকে ৭ টি বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। এ ঘটনায় বাদী সহ ৩ জন স্বাক্ষী আহত হলে স্থানীয় ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা গ্রহণ করেন।

এ বিষয়ে মামলার প্রধান আসামি উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. তালুকদার আবুল কালাম আজাদ বলেন, ঘটনাস্থল পিংড়ীর মানুষের কাছে খোঁজ নিলেই জানা যাবে এমন কোন ঘটনা ঘটেছে কিনা। ঘটনা স্থলের মানুষ জানলোইনা অথচ আমাদের হয়রানির উদ্দেশ্যে মামলা হয়ে গেল। মুলত অবৈধ সরকার পতনে বিএনপির দেশব্যাপী চলমান আন্দোলন সংগ্রামে আমরা রাজাপুর উপজেলা বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ব্যারিস্টার এম শাহজাহান ওমর বীর উত্তমের নেতৃত্বে মাঠে রয়েছি। আমাদের মাঝে ভীতি তৈরি করে আন্দোলনে বাধা প্রদানের জন্য এই গায়েবী মামলা করা হয়েছে। সাধারন মানুষ বোঝে ৬/৭ টা বোমা মারলে শুধু প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েই সুস্থ হয়ে যায় কিভাবে? কোনো চক্রান্তই আমাদের দমাতে পারবেনা। এই স্বৈরাচারী সরকার পতনের আগ পর্যন্ত আমরা ঘরে উঠবনা।

এ বিষয়ে রাজাপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পুলক চন্দ্র রায় বলেন, এখন পর্যন্ত কোনো আসামি গ্রেপ্তার হয় নাই। আসামি গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।