ঢাকা ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজি প্রেসের কর্মকর্তারা রয়েছেন গোয়েন্দা নজরদারিতে

আগামী ৩০ এপ্রিল শুরু হতে যাচ্ছে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা। এ উপলক্ষে প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে বিজি প্রেসের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে গোয়েন্দা নজরদারিতে রাখা হবে। পাশাপাশি যেকোনো ধরনের গুজব প্রতিরোধে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মনিটরিং করা হবে।

মঙ্গলবার আসন্ন এসএসসি পরীক্ষা নিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে জাতীয় মনিটরিং ও আইনশৃঙ্খলাসংক্রান্ত কমিটির সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর তপন কুমার সরকার বলেন, পরীক্ষা চলাকালে ফেসবুকে প্রশ্নফাঁস নিয়ে গুজব এবং মোবাইল ব্যাংকিংয়ে সন্দেহজনক লেনদেন নজরদারি রাখা হবে। যদি কোনো মোবাইল নম্বরে একাধিকবার একই অংকের অর্থ লেনদেন হয়, তাহলে সংশ্লিষ্ট এজেন্টকে নিকটস্থ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করতে হবে। এ ছাড়াও প্রশ্ন ছাপানোর সঙ্গে সম্পৃক্ত বিজি প্রেসের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে গোয়েন্দা নজরদারিতে রাখা হবে।

পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্দেশে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি বলেন, প্রশ্নফাঁসের গুজবে কেউ কান দেবেন না। প্রশ্নফাঁস রোধে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। প্রশ্নফাঁসের কোনো সুযোগ নেই। যারা এসব গুজব বা অপপ্রচার চালাবে তাদের চিহ্নিত করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সোপর্দ করবেন।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

বিজি প্রেসের কর্মকর্তারা রয়েছেন গোয়েন্দা নজরদারিতে

আপডেট সময় ০৪:৩৯:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৩

আগামী ৩০ এপ্রিল শুরু হতে যাচ্ছে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা। এ উপলক্ষে প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে বিজি প্রেসের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে গোয়েন্দা নজরদারিতে রাখা হবে। পাশাপাশি যেকোনো ধরনের গুজব প্রতিরোধে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মনিটরিং করা হবে।

মঙ্গলবার আসন্ন এসএসসি পরীক্ষা নিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে জাতীয় মনিটরিং ও আইনশৃঙ্খলাসংক্রান্ত কমিটির সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর তপন কুমার সরকার বলেন, পরীক্ষা চলাকালে ফেসবুকে প্রশ্নফাঁস নিয়ে গুজব এবং মোবাইল ব্যাংকিংয়ে সন্দেহজনক লেনদেন নজরদারি রাখা হবে। যদি কোনো মোবাইল নম্বরে একাধিকবার একই অংকের অর্থ লেনদেন হয়, তাহলে সংশ্লিষ্ট এজেন্টকে নিকটস্থ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করতে হবে। এ ছাড়াও প্রশ্ন ছাপানোর সঙ্গে সম্পৃক্ত বিজি প্রেসের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে গোয়েন্দা নজরদারিতে রাখা হবে।

পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্দেশে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি বলেন, প্রশ্নফাঁসের গুজবে কেউ কান দেবেন না। প্রশ্নফাঁস রোধে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। প্রশ্নফাঁসের কোনো সুযোগ নেই। যারা এসব গুজব বা অপপ্রচার চালাবে তাদের চিহ্নিত করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সোপর্দ করবেন।