ঢাকা ০৩:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

যশোরে ভারতীয় নাগরিকসহ আটক – ৯ পণ‍্য জব্দ

  • যশোর প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় ০৪:৪৩:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৩
  • ১১৭ বার পড়া হয়েছে

ঈদকে সামনে রেখে যশোর সীমান্তবর্তী বেনাপোল দিয়ে চোরাকারবারিরা ভারতীয় মালামাল আনার সময় যশোর জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অভিযানে ৯ লাখ টাকা মূল্যের ভারতীয় অবৈধ কাপড় ও কসমেটিকস উদ্ধার ও এক নাগরিকসহ আটজন চোরাকারবারিকে আটক করেছে

।যশোর ডিবি পুলিশ সীমান্তবর্তী,বেনাপোলের বড় আঁচড়া এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। এই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা দেয়া হয়েছে। মভারতের পেট্রাপোল এলাকার ফকির চাঁদ হালদারের ছেলে সমির হালদার, ঢাকার হাজারীবাগ বটতলা মাজার এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে মোস্তাকিম আরাফাত সালেহীন, মোহাম্মদপুর থানার বসিলা এলাকার ইদু মিয়ার ছেলে তানভীর আক্তার, চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহাতলী গ্রামের আব্দুর রব চৌধুরীর ছেলে ইসহাক চৌধুরী, মতলব উপজেলার পাঁচআনি গ্রামের মৃত আবেদ আলীর ছেলে সেলিম হোসেন, বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার পূর্বশুলতানি গ্রামের নান্নু তালুকদারের ছেলে সুমন তালুকদার, গোপালগঞ্জে কাশিয়ানি উপজেলার কুসুমদিয়া গ্রামের মৃত রহিম উদ্দিনের ছেলে এনামুল হক ও কা ন আলী খানের ছেলে খবির উদ্দিন খান।

ডিবি পুলিশ জানিয়েছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঐদিন বিকেল ৫টার দিকে বেনাপোলের বড়আঁচড়া এলাকায় অবৈধ চোরাচালানি পণ্য উদ্ধার অভিযান চালায়। এসময় সেখান থেকে ওই আটজনকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ভারতীয় ৫৫ পিস দামি শাড়ী, ১২৫ পিস লেহেঙ্গা, ৫৫১ পিস থ্রি-পিস, ১২ বান্ডিল চুড়ি ও দুই বান্ডিল ইমিটেশন গহনা উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ৯ লাখ ১৩ হাজার একশ’ টাকা। এই ব্যাপারে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা মামলা দেওয়া হয়েছে বলে ডিবি পুলিশের ওসি রূপণ কুমার সরকার জানিয়েছেন।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

যশোরে ভারতীয় নাগরিকসহ আটক – ৯ পণ‍্য জব্দ

আপডেট সময় ০৪:৪৩:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৩

ঈদকে সামনে রেখে যশোর সীমান্তবর্তী বেনাপোল দিয়ে চোরাকারবারিরা ভারতীয় মালামাল আনার সময় যশোর জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অভিযানে ৯ লাখ টাকা মূল্যের ভারতীয় অবৈধ কাপড় ও কসমেটিকস উদ্ধার ও এক নাগরিকসহ আটজন চোরাকারবারিকে আটক করেছে

।যশোর ডিবি পুলিশ সীমান্তবর্তী,বেনাপোলের বড় আঁচড়া এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। এই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা দেয়া হয়েছে। মভারতের পেট্রাপোল এলাকার ফকির চাঁদ হালদারের ছেলে সমির হালদার, ঢাকার হাজারীবাগ বটতলা মাজার এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে মোস্তাকিম আরাফাত সালেহীন, মোহাম্মদপুর থানার বসিলা এলাকার ইদু মিয়ার ছেলে তানভীর আক্তার, চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহাতলী গ্রামের আব্দুর রব চৌধুরীর ছেলে ইসহাক চৌধুরী, মতলব উপজেলার পাঁচআনি গ্রামের মৃত আবেদ আলীর ছেলে সেলিম হোসেন, বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার পূর্বশুলতানি গ্রামের নান্নু তালুকদারের ছেলে সুমন তালুকদার, গোপালগঞ্জে কাশিয়ানি উপজেলার কুসুমদিয়া গ্রামের মৃত রহিম উদ্দিনের ছেলে এনামুল হক ও কা ন আলী খানের ছেলে খবির উদ্দিন খান।

ডিবি পুলিশ জানিয়েছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঐদিন বিকেল ৫টার দিকে বেনাপোলের বড়আঁচড়া এলাকায় অবৈধ চোরাচালানি পণ্য উদ্ধার অভিযান চালায়। এসময় সেখান থেকে ওই আটজনকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ভারতীয় ৫৫ পিস দামি শাড়ী, ১২৫ পিস লেহেঙ্গা, ৫৫১ পিস থ্রি-পিস, ১২ বান্ডিল চুড়ি ও দুই বান্ডিল ইমিটেশন গহনা উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ৯ লাখ ১৩ হাজার একশ’ টাকা। এই ব্যাপারে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা মামলা দেওয়া হয়েছে বলে ডিবি পুলিশের ওসি রূপণ কুমার সরকার জানিয়েছেন।