ঢাকা ০৯:১০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রামুতে যুবককে কুপিয়ে হত্যা

কক্সবাজার রামুর উপজেলাতে উপূর্যপুরি কুপিয়ে এক যুবককে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। রামু থানা পুলিশ ক্ষতবিক্ষত যুবকের মরদেহটি উদ্ধার করেছে। নিহতের নাম হাবিব উল্লাহ (২৫) তিনি রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের উখিয়ারঘোনা লামারপাড়া এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (৩ মার্চ) সকাল ৭ টার দিকে কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের কাঁনা রাজার গুহার সামনে ক্ষতবিক্ষত রক্তাক্ত মৃতদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আজিজুল হক দৈনিক মুক্তির লড়াই কে জানান, নিহত হাবিব উল্লাহর মাথা, পেট, বুকসহ বিভিন্ন স্থানে ৬টি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। হত্যাকান্ড পরিকল্পিতভাবে হয়েছে মনে হচ্ছে। তবে কি কারণে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।

নিহত হাবিব উল্লাহর পিতা নুরুল ইসলাম ও বড় ভাই মো: আবদুল্লাহ জানিয়েছে, পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকান্ড সংগঠিত হয়েছে।
এখন মৃতদেহ নিয়ে ব্যস্ত আছেন। পরে এ ব্যাপারে আইনী ব্যবস্থা নেবেন তারা। স্থানীয় একটি সূত্রে জানা গেছে, নিহত হাবিব উল্লাহ ২০১৮ সালে সংগঠিত একটি হত্যা মামলার আসামী ছিলেন। এ মামলায় ২ মাস কারাভোগ শেষে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি, বৃহষ্পতিবার জামিনে মুক্তি পান তিনি।

রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল হোসাইন জানিয়েছেন, এটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড, এতে কোন সন্দেহ নেই। নির্মমভাবে কুপিয়ে এ যুবককে হত্যা করা হয়েছে। কারা এ হত্যাকান্ডে জড়িত, তা উদঘাটনে পুলিশ কাজ করছে। তিনি আরো জানান, মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে এবং ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হচ্ছে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

রামুতে যুবককে কুপিয়ে হত্যা

আপডেট সময় ১০:৩৫:৪১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মার্চ ২০২৩

কক্সবাজার রামুর উপজেলাতে উপূর্যপুরি কুপিয়ে এক যুবককে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। রামু থানা পুলিশ ক্ষতবিক্ষত যুবকের মরদেহটি উদ্ধার করেছে। নিহতের নাম হাবিব উল্লাহ (২৫) তিনি রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের উখিয়ারঘোনা লামারপাড়া এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (৩ মার্চ) সকাল ৭ টার দিকে কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের কাঁনা রাজার গুহার সামনে ক্ষতবিক্ষত রক্তাক্ত মৃতদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আজিজুল হক দৈনিক মুক্তির লড়াই কে জানান, নিহত হাবিব উল্লাহর মাথা, পেট, বুকসহ বিভিন্ন স্থানে ৬টি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। হত্যাকান্ড পরিকল্পিতভাবে হয়েছে মনে হচ্ছে। তবে কি কারণে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।

নিহত হাবিব উল্লাহর পিতা নুরুল ইসলাম ও বড় ভাই মো: আবদুল্লাহ জানিয়েছে, পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকান্ড সংগঠিত হয়েছে।
এখন মৃতদেহ নিয়ে ব্যস্ত আছেন। পরে এ ব্যাপারে আইনী ব্যবস্থা নেবেন তারা। স্থানীয় একটি সূত্রে জানা গেছে, নিহত হাবিব উল্লাহ ২০১৮ সালে সংগঠিত একটি হত্যা মামলার আসামী ছিলেন। এ মামলায় ২ মাস কারাভোগ শেষে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি, বৃহষ্পতিবার জামিনে মুক্তি পান তিনি।

রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল হোসাইন জানিয়েছেন, এটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড, এতে কোন সন্দেহ নেই। নির্মমভাবে কুপিয়ে এ যুবককে হত্যা করা হয়েছে। কারা এ হত্যাকান্ডে জড়িত, তা উদঘাটনে পুলিশ কাজ করছে। তিনি আরো জানান, মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে এবং ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হচ্ছে।