ঢাকা ০৫:২১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লোহাগড়ায় আগুনে পুড়ে ৬ পরিবারের ২০ লক্ষ টাকার ক্ষতি

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার শামুকখোলা গ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

আগুনে ৬টি পরিবারের মোট ছোট-বড় ১০ টি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে করে, প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়।

ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সদস্য ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রবিবার (১০ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে লোহাগড়া উপজেলার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের শামুকখোলা গ্রামের শহিদ মোল্যার রান্নাঘরের চুলার পাশে থাকা গ্যাস লাইট বিস্ফোরিত হয়ে সৃষ্ট অগ্নিকান্ডে শফিক মোল্যার বসতঘরসহ ৩টি ঘর, শহিদ মোল্যার ২টি ঘর, তবিবর মোল্যার ২টি ঘর, নাজমুল কাজীর ১টি ঘর ও শরিফুল কাজীর ২টি ঘরসহ নগদ ৩ লক্ষ টাকা ও আসবাবপত্র পুড়ে গেছে।

এ সময় আগুনে শফিক মোল্যার ২টি গরু পুড়ে গেছে। আগুন নেভানোর সময় তবিবর মোল্যা(৩৭) ও রোজিনা বেগম (৩১) আহত হয়। তাদেরকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এলাকাবাসী প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরে খবর পেয়ে লোহাগড়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পর পুরোপুরি আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের টিম লিডার অমল কৃষ্ণ বসু ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের অক্লান্ত পরিশ্রমে মাত্র ১ ঘণ্টার মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

লোহাগড়ায় আগুনে পুড়ে ৬ পরিবারের ২০ লক্ষ টাকার ক্ষতি

আপডেট সময় ০২:৪৫:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ এপ্রিল ২০২৩

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার শামুকখোলা গ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

আগুনে ৬টি পরিবারের মোট ছোট-বড় ১০ টি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে করে, প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়।

ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সদস্য ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রবিবার (১০ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে লোহাগড়া উপজেলার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের শামুকখোলা গ্রামের শহিদ মোল্যার রান্নাঘরের চুলার পাশে থাকা গ্যাস লাইট বিস্ফোরিত হয়ে সৃষ্ট অগ্নিকান্ডে শফিক মোল্যার বসতঘরসহ ৩টি ঘর, শহিদ মোল্যার ২টি ঘর, তবিবর মোল্যার ২টি ঘর, নাজমুল কাজীর ১টি ঘর ও শরিফুল কাজীর ২টি ঘরসহ নগদ ৩ লক্ষ টাকা ও আসবাবপত্র পুড়ে গেছে।

এ সময় আগুনে শফিক মোল্যার ২টি গরু পুড়ে গেছে। আগুন নেভানোর সময় তবিবর মোল্যা(৩৭) ও রোজিনা বেগম (৩১) আহত হয়। তাদেরকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এলাকাবাসী প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরে খবর পেয়ে লোহাগড়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পর পুরোপুরি আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের টিম লিডার অমল কৃষ্ণ বসু ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের অক্লান্ত পরিশ্রমে মাত্র ১ ঘণ্টার মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।