ঢাকা ০৩:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২৩ বছর পর গণধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

ফেনী প্রতিনিধি : ফেনীর সোনাগাজীতে ২৩ বছর পর গণধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আজিজুর রহমান প্রকাশ আনিছুল হক আনিছ (৪৫) কে আজ সোমবার ভোরে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে ফেনীর সোনাগাজী থানার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের ভাদাদিয়া গ্রামের বাদশা ফকির বাড়ির জয়নাল আবেদীনের ছেলে।

পুলিশ জানায়, ২০০০ সালে আনিছুল হক আনিছসহ সাতজন মিলে এক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করেন।
ওই নারী বাদী হয়ে তৎকালীণ সময়ে সাত জনের বিরুদ্ধে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর -১১, তাং-২৭-০২-২০০০খ্রিস্টাব্দ।
অতিরিক্ত দায়রা জজ ও বিশেষ ট্রাইব্যুনাল ফেনী-২ এর তৎকালীণ বিচারক ২০০২ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি সাতজন আসামির যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দেন। এর মধ্যে তিনজন আসামি দীর্ঘদিন কারাভোগের পর হাইকোট থেকে জামিন নিয়ে কারামুক্ত হয়েছেন। পলাতক চার আসামির মধ্য আনিছও একজন। মামলার পর থেকেই গ্রেফতার এড়াতে আনিছুল হক পলাতক ছিলেন। ইতোমধ্যে সৌদি আরব সহ কেয়েকটি দেশে আত্মগোপনে ছিলেন তিনি। উক্ত মামলায় দন্ডিত আরো তিন আসামি এখনো পলাতক রয়েছেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই সায়েদুর রহমান বিপিএম’র নেতৃত্বে পুলিশদল তাকে গ্রেফতার করেন।

সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ খালেদ হোসেন দাইয়্যান তাকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

২৩ বছর পর গণধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

আপডেট সময় ০৪:৩৬:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মে ২০২৩

ফেনী প্রতিনিধি : ফেনীর সোনাগাজীতে ২৩ বছর পর গণধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আজিজুর রহমান প্রকাশ আনিছুল হক আনিছ (৪৫) কে আজ সোমবার ভোরে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে ফেনীর সোনাগাজী থানার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের ভাদাদিয়া গ্রামের বাদশা ফকির বাড়ির জয়নাল আবেদীনের ছেলে।

পুলিশ জানায়, ২০০০ সালে আনিছুল হক আনিছসহ সাতজন মিলে এক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করেন।
ওই নারী বাদী হয়ে তৎকালীণ সময়ে সাত জনের বিরুদ্ধে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর -১১, তাং-২৭-০২-২০০০খ্রিস্টাব্দ।
অতিরিক্ত দায়রা জজ ও বিশেষ ট্রাইব্যুনাল ফেনী-২ এর তৎকালীণ বিচারক ২০০২ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি সাতজন আসামির যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দেন। এর মধ্যে তিনজন আসামি দীর্ঘদিন কারাভোগের পর হাইকোট থেকে জামিন নিয়ে কারামুক্ত হয়েছেন। পলাতক চার আসামির মধ্য আনিছও একজন। মামলার পর থেকেই গ্রেফতার এড়াতে আনিছুল হক পলাতক ছিলেন। ইতোমধ্যে সৌদি আরব সহ কেয়েকটি দেশে আত্মগোপনে ছিলেন তিনি। উক্ত মামলায় দন্ডিত আরো তিন আসামি এখনো পলাতক রয়েছেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই সায়েদুর রহমান বিপিএম’র নেতৃত্বে পুলিশদল তাকে গ্রেফতার করেন।

সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ খালেদ হোসেন দাইয়্যান তাকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।