ঢাকা ১২:১৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo রূপসায় ৮ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত Logo আমতলীতে বৌ-ভাতের অনুষ্ঠানে আসার পথে ব্রীজ ভেঙ্গে ৯জন নিহত Logo বরুড়ায় আ.লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত Logo চাঁপাই নবাবগঞ্জে ১৫০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার সহ দুইজন গ্রেফতার Logo সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে কালীগঞ্জে মানববন্ধন Logo গলাচিপায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন Logo তোমাকে যে ধরতে আমি চাই Logo নওগাঁ থেকে বিপুল পরিমান গাঁজাসহ তিন মাদক কারবারি গ্রেফতার Logo মুরাদনগরে রোহিঙ্গাকে জন্ম নিবন্ধন করে দেওয়ায় ইউপি সচিব গ্রেফতার Logo ছিংহাই-তিব্বত মালভূমির পরিবেশ রক্ষা ও উচ্চ-মানের উন্নয়নে জোর দিয়েছেন সি চিন পিং

ভূঞাপুরে বিয়ের দাবিতে দু’দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বিয়ের দাবিতে দু’দিন ধরে প্রেমিক আল-আমিনের (২৩) বাড়িতে অনশন করছেন প্রেমিকা আয়শা খাতুন (১৭) নামে এক তরুণী। এদিকে তরুণী ছেলের বাড়িতে এসে ঘরের প্রতিটি দুয়ারে তালা ঝুলান দেখতে পায়।

সোমবার (০৩ এপ্রিল) বিকেলে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের বাগবাড়ী এলাকায় ওই তরুণীকে অনশন করতে দেখা গেছে।
এদিকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিকাকে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে পরে তা অস্বীকার করছেন প্রেমিক।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানায় অভিযোগ দিতে গেলে পুলিশ অভিযোগ না নিলে কোর্টের শরণাপন্ন হন বলে জানান ভুক্তভোগী ওই তরুণী।

অনশনরত তরুণী হলেন- উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের রাউৎবাড়ী গ্রামের মো. আকবর হোসেনের মেয়ে আয়শা খাতুন এবং অভিযুক্ত প্রেমিক একই ইউনিয়নের বাগবাড়ী গ্রামের মো. বাদশার ছেলে আল-আমিন।

অনশনরত প্রেমিকা জানান, প্রায় তিন বছর আগে বাগবাড়ী জহির তালুকদারের ছেলে মো. বেলালের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের দু’বছর মাথায় শ্বশুর বাড়ি যাওয়া-আসার পথে তার সঙ্গে আমার পরিচয় হয়। একপর্যায়ে তার প্রেমের ফাঁদে পা দেই।
একদিন আমাকে বাড়ি থেকে নিয়ে জামালপুরে সে যেখানে চাকরি করে সেখানে ৩/৪ দিন যাবৎ আমার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে।

জামালপুর থেকে আসার পর বিয়ে করবে বলে এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে রেখে যায়। অতঃপর সে ফোন না ধরায় আমি বিষয়টি জানালে আমার পরিবার তার পরিবারকে জানায়। তারপর সে ফোনে ভয়-ভীতি ও হত্যার হুমকি দিয়ে আমার সাথে একেবারে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

এদিকে স্বামীর সঙ্গে আমার ডিভোর্স হয়ে যায়। পরে অনেকটা বাধ্য হয়েই বিয়ের দাবিতে আল আমিনের বাড়িতে আসি। অনশনরত তরুণী আরও বলেন, তার দাবি মেনে না নেওয়া পর্যন্ত তিনি অনশন চালিয়ে যাবে এবং দাবি পূরণ না হলে প্রেমিকের বাড়িতেই ফাঁস দিয়ে মারা যাবেন বলেও জানান।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরিদুল ইসলাম জানান, বিয়ের দাবিতে একটি তরুণী অনশন করছে শুনেছি। বিয়ের দাবি এটা তার একান্তই ব্যক্তিগত ব্যাপার। এ বিষয়ে আমাদের কাছে কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপসায় ৮ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

ভূঞাপুরে বিয়ের দাবিতে দু’দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন

আপডেট সময় ০১:৫৮:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ এপ্রিল ২০২৩

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বিয়ের দাবিতে দু’দিন ধরে প্রেমিক আল-আমিনের (২৩) বাড়িতে অনশন করছেন প্রেমিকা আয়শা খাতুন (১৭) নামে এক তরুণী। এদিকে তরুণী ছেলের বাড়িতে এসে ঘরের প্রতিটি দুয়ারে তালা ঝুলান দেখতে পায়।

সোমবার (০৩ এপ্রিল) বিকেলে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের বাগবাড়ী এলাকায় ওই তরুণীকে অনশন করতে দেখা গেছে।
এদিকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিকাকে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে পরে তা অস্বীকার করছেন প্রেমিক।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানায় অভিযোগ দিতে গেলে পুলিশ অভিযোগ না নিলে কোর্টের শরণাপন্ন হন বলে জানান ভুক্তভোগী ওই তরুণী।

অনশনরত তরুণী হলেন- উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের রাউৎবাড়ী গ্রামের মো. আকবর হোসেনের মেয়ে আয়শা খাতুন এবং অভিযুক্ত প্রেমিক একই ইউনিয়নের বাগবাড়ী গ্রামের মো. বাদশার ছেলে আল-আমিন।

অনশনরত প্রেমিকা জানান, প্রায় তিন বছর আগে বাগবাড়ী জহির তালুকদারের ছেলে মো. বেলালের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের দু’বছর মাথায় শ্বশুর বাড়ি যাওয়া-আসার পথে তার সঙ্গে আমার পরিচয় হয়। একপর্যায়ে তার প্রেমের ফাঁদে পা দেই।
একদিন আমাকে বাড়ি থেকে নিয়ে জামালপুরে সে যেখানে চাকরি করে সেখানে ৩/৪ দিন যাবৎ আমার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে।

জামালপুর থেকে আসার পর বিয়ে করবে বলে এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে রেখে যায়। অতঃপর সে ফোন না ধরায় আমি বিষয়টি জানালে আমার পরিবার তার পরিবারকে জানায়। তারপর সে ফোনে ভয়-ভীতি ও হত্যার হুমকি দিয়ে আমার সাথে একেবারে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

এদিকে স্বামীর সঙ্গে আমার ডিভোর্স হয়ে যায়। পরে অনেকটা বাধ্য হয়েই বিয়ের দাবিতে আল আমিনের বাড়িতে আসি। অনশনরত তরুণী আরও বলেন, তার দাবি মেনে না নেওয়া পর্যন্ত তিনি অনশন চালিয়ে যাবে এবং দাবি পূরণ না হলে প্রেমিকের বাড়িতেই ফাঁস দিয়ে মারা যাবেন বলেও জানান।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরিদুল ইসলাম জানান, বিয়ের দাবিতে একটি তরুণী অনশন করছে শুনেছি। বিয়ের দাবি এটা তার একান্তই ব্যক্তিগত ব্যাপার। এ বিষয়ে আমাদের কাছে কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।