ঢাকা ১২:৪২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo সাংবাদিকতা নিয়ে পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের বিবৃতি ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান Logo রূপসায় ৮ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত Logo আমতলীতে বৌ-ভাতের অনুষ্ঠানে আসার পথে ব্রীজ ভেঙ্গে ৯জন নিহত Logo বরুড়ায় আ.লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত Logo চাঁপাই নবাবগঞ্জে ১৫০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার সহ দুইজন গ্রেফতার Logo সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে কালীগঞ্জে মানববন্ধন Logo গলাচিপায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন Logo তোমাকে যে ধরতে আমি চাই Logo নওগাঁ থেকে বিপুল পরিমান গাঁজাসহ তিন মাদক কারবারি গ্রেফতার Logo মুরাদনগরে রোহিঙ্গাকে জন্ম নিবন্ধন করে দেওয়ায় ইউপি সচিব গ্রেফতার

মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা দূর করার কৌশল জেনে রাখুন

মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা দূর করার কৌশল জেনে রাখুন অধিকাংশ মানুষই হতাশা ও উদ্বেগের শিকার হচ্ছেন
বর্তমান সময়ে অধিকাংশ মানুষই হতাশা ও উদ্বেগের শিকার হচ্ছেন। এর পেছনে কিছু কারণ আছে যেমন অফিসের কাজের চাপ, সাফল্য, পারিবারিক কলহ, প্রেম ইত্যাদি।

এসব কারণে মানুষ প্রায়ই তাদের মানসিক স্বাস্থ্যের বিঘ্ন ঘটায়। কিছু মানুষের মধ্যে, উদ্বেগের সমস্যা এতটাই বেড়ে যায় যে তাদের থেরাপি নিতে হয়।

কেউ যদি দুশ্চিন্তার সমস্যায় ভোগেন, তাহলে কিছু উপায় বা অভ্যাস আছে যা রপ্ত করতে পারলেই স্ট্রেস বা দুশ্চিন্তা দূর হবে। জেনে নিন কী কী-

ব্যায়াম করুন

দুশ্চিন্তা এড়াতে ব্যায়াম শুরু করুন। ব্যায়াম করার জন্য জিমে যেতে হবে এমনটি নয়। আপনি হাঁটতে, সাঁতার কাটতে বা সন্ধ্যায় সাইকেল চালাতে পারেন। এ ধরনের বহিরঙ্গন কার্যকলাপ আপনার মানসিক স্বাস্থ্য নিরাময়ে সাহায্য করে।

কম কফি গ্রহণ করুন

আপনি যদি মানসিক চাপ ও বিষণ্নতা কমাতে চান, তাহলে কম কফি পান করুন। কফিতে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন থাকে যা আপনার মানসিক চাপকে আরও বাড়িয়ে দিতে পারে।

এক কাপ কফিতে প্রায় ৮০-১০০ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন থাকে। যা মাথাব্যথা, মাইগ্রেন ও উচ্চ রক্তচাপের কারণ হতে পারে।

পর্যাপ্ত ঘুমান

আপনি যদি বিষণ্নতা থেকে নিজেকে রক্ষা করতে চান, তাহলে পর্যাপ্ত ঘুমান। ঘুমের অভাবেও মানুষ দুশ্চিন্তার শিকার হয়।

হাঁটতে বের হন

আপনি যখন বেশি অস্থির বোধ করতে শুরু করেন, তখন ঘরে বসে না থেকে একা একা হাঁটতে বের হন। এতে তাজা বাতাসে শ্বাসও নিতে পারবেন আবার স্বস্তিও অনুভব করবেন।

মেডিটেশন শুরু করুন

মেডিটেশন ডিপ্রেশনের সমস্যা কমায় ও শরীরকে সুস্থ রাখে। মেডিটেশন সুখী হরমোন নিঃসরণ করে যা আপনার মনকে শান্ত রাখে।

খাদ্যাভ্যাসের যত্ন নিন

দুশ্চিন্তাজনিত সমস্যায় ভুগছেন এমন ব্যক্তিদের খাদ্যাভ্যাসের বিশেষ যত্ন নেওয়া উচিত। জাংক ফুড খাওয়া বন্ধ করুন। এর পরিবর্তে স্বাস্থ্যকর জিনিস খান। আপনার খাদ্যতালিকায় ফল, শাকসবজি, বাদাম ও বীজ অন্তর্ভুক্ত করুন।

জনপ্রিয় সংবাদ

সাংবাদিকতা নিয়ে পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের বিবৃতি ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান

মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা দূর করার কৌশল জেনে রাখুন

আপডেট সময় ০২:৪৫:৩৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০২৪

মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা দূর করার কৌশল জেনে রাখুন অধিকাংশ মানুষই হতাশা ও উদ্বেগের শিকার হচ্ছেন
বর্তমান সময়ে অধিকাংশ মানুষই হতাশা ও উদ্বেগের শিকার হচ্ছেন। এর পেছনে কিছু কারণ আছে যেমন অফিসের কাজের চাপ, সাফল্য, পারিবারিক কলহ, প্রেম ইত্যাদি।

এসব কারণে মানুষ প্রায়ই তাদের মানসিক স্বাস্থ্যের বিঘ্ন ঘটায়। কিছু মানুষের মধ্যে, উদ্বেগের সমস্যা এতটাই বেড়ে যায় যে তাদের থেরাপি নিতে হয়।

কেউ যদি দুশ্চিন্তার সমস্যায় ভোগেন, তাহলে কিছু উপায় বা অভ্যাস আছে যা রপ্ত করতে পারলেই স্ট্রেস বা দুশ্চিন্তা দূর হবে। জেনে নিন কী কী-

ব্যায়াম করুন

দুশ্চিন্তা এড়াতে ব্যায়াম শুরু করুন। ব্যায়াম করার জন্য জিমে যেতে হবে এমনটি নয়। আপনি হাঁটতে, সাঁতার কাটতে বা সন্ধ্যায় সাইকেল চালাতে পারেন। এ ধরনের বহিরঙ্গন কার্যকলাপ আপনার মানসিক স্বাস্থ্য নিরাময়ে সাহায্য করে।

কম কফি গ্রহণ করুন

আপনি যদি মানসিক চাপ ও বিষণ্নতা কমাতে চান, তাহলে কম কফি পান করুন। কফিতে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন থাকে যা আপনার মানসিক চাপকে আরও বাড়িয়ে দিতে পারে।

এক কাপ কফিতে প্রায় ৮০-১০০ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন থাকে। যা মাথাব্যথা, মাইগ্রেন ও উচ্চ রক্তচাপের কারণ হতে পারে।

পর্যাপ্ত ঘুমান

আপনি যদি বিষণ্নতা থেকে নিজেকে রক্ষা করতে চান, তাহলে পর্যাপ্ত ঘুমান। ঘুমের অভাবেও মানুষ দুশ্চিন্তার শিকার হয়।

হাঁটতে বের হন

আপনি যখন বেশি অস্থির বোধ করতে শুরু করেন, তখন ঘরে বসে না থেকে একা একা হাঁটতে বের হন। এতে তাজা বাতাসে শ্বাসও নিতে পারবেন আবার স্বস্তিও অনুভব করবেন।

মেডিটেশন শুরু করুন

মেডিটেশন ডিপ্রেশনের সমস্যা কমায় ও শরীরকে সুস্থ রাখে। মেডিটেশন সুখী হরমোন নিঃসরণ করে যা আপনার মনকে শান্ত রাখে।

খাদ্যাভ্যাসের যত্ন নিন

দুশ্চিন্তাজনিত সমস্যায় ভুগছেন এমন ব্যক্তিদের খাদ্যাভ্যাসের বিশেষ যত্ন নেওয়া উচিত। জাংক ফুড খাওয়া বন্ধ করুন। এর পরিবর্তে স্বাস্থ্যকর জিনিস খান। আপনার খাদ্যতালিকায় ফল, শাকসবজি, বাদাম ও বীজ অন্তর্ভুক্ত করুন।