ঢাকা ০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানির শাস্তির দাবিতে যশোরে মানববন্ধন

যশোর জেলা প্রতিনিধি : যশোরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার বিকেলে প্রেসক্লাব যশোরের সামনে জেলা মহিলা পরিষদ এ কর্মসূচির আয়োজন করে। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মহিলা পরিষদের সাবেক সভাপতি কেন্দ্রীয় নেত্রী হাবিবা শেফা, সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি ও দৈনিক কল্যাণের প্রকাশক বীর মুক্তিযোদ্ধা একরাম-উদ-দ্দৌলা, ঘাতক দালাল নিমুল কমিঠির সভাপতি হারুন আর রশিদ, উলসী সৃজন সংঘ নিবার্হী পরিচালক খন্দকার আজিজুল হক মনি, টিআইবি সভাপতি শাহীন ইকবাল, শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আ্যাড মাহমুদ হাসান বুলু, সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম,শুভাংকর গুপ্ত প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক এমন ঘটনা ঘটাবেন এটা অকল্পনীয়। তিনি যে অশ্লীল বাক্য এবং অঙ্গভঙ্গি করেছেন তার সহকর্মীর সাথে তা ঠিক করেননি। আমরা ন্যায় বিচার চাই এবং দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি চাই। তারা বলেন শারীরিক অঙ্গভঙ্গি প্রদর্শন, ভাষার ব্যবহার এগুলো যে হয়রানি মুলক। এই ব্যবহারগুলোর যদি শাস্তি না হয় তাহলে এগুলো আরও বাড়বে। তাই আমরা এর শাস্তি দাবি করছি।

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানির শাস্তির দাবিতে যশোরে মানববন্ধন

আপডেট সময় ১১:২৫:১৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৪ জুন ২০২৩

যশোর জেলা প্রতিনিধি : যশোরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার বিকেলে প্রেসক্লাব যশোরের সামনে জেলা মহিলা পরিষদ এ কর্মসূচির আয়োজন করে। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মহিলা পরিষদের সাবেক সভাপতি কেন্দ্রীয় নেত্রী হাবিবা শেফা, সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি ও দৈনিক কল্যাণের প্রকাশক বীর মুক্তিযোদ্ধা একরাম-উদ-দ্দৌলা, ঘাতক দালাল নিমুল কমিঠির সভাপতি হারুন আর রশিদ, উলসী সৃজন সংঘ নিবার্হী পরিচালক খন্দকার আজিজুল হক মনি, টিআইবি সভাপতি শাহীন ইকবাল, শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আ্যাড মাহমুদ হাসান বুলু, সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম,শুভাংকর গুপ্ত প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক এমন ঘটনা ঘটাবেন এটা অকল্পনীয়। তিনি যে অশ্লীল বাক্য এবং অঙ্গভঙ্গি করেছেন তার সহকর্মীর সাথে তা ঠিক করেননি। আমরা ন্যায় বিচার চাই এবং দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি চাই। তারা বলেন শারীরিক অঙ্গভঙ্গি প্রদর্শন, ভাষার ব্যবহার এগুলো যে হয়রানি মুলক। এই ব্যবহারগুলোর যদি শাস্তি না হয় তাহলে এগুলো আরও বাড়বে। তাই আমরা এর শাস্তি দাবি করছি।